শীতজনিত রোগে ভুগছেন ইজতেমায় আসা মুসল্লিরা

মো. রাজীব সরকার, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ইজতেমা ময়দানের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে দীর্ঘ লাইন/ছবি: বাংলানিউজ

গাজীপুর: টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিতে আসা বেশিরভাগ মুসল্লিই ভুগছেন শীতজনিত রোগে। রাতে ঢাকায় ৮ থেকে ১২ ডিগ্রিতে নেমে আসা তাপমাত্রার সঙ্গে হালকা বাতাস বাড়িয়ে দিচ্ছে শীতের তীব্রতা। খোলা মাঠে তাঁবু থাকলেও তাতে ঠাণ্ডা প্রতিরোধ করা তাই হয়ে উঠছে কঠিন। এতে বাড়ছে রোগ-অসুখ।

শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্যদিয়ে শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার প্রথম ধাপ। এর আগে বুধবার (১০ জানুয়ারি) থেকেই মুসল্লিরা আসতে থাকেন ইজতেমা ময়দানে। ইজতেমায় যোগ দিয়ে হাজার হাজার মুসল্লি শীতজনিত রোগে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।

হাসপাতাল ও ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প সূত্রে জানা যায়, টঙ্গীর তুরাগ তীরে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম ধাপ। ইতোমধ্যে হাজার হাজার মুসল্লি শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে বেশির ভাগ রোগী ঠাণ্ডা, জ্বর, সর্দি, কাশি, ডায়রিয়া, বদহজম ও বাতের ব্যাথায় ভুগছেন। প্রচণ্ড শীত ও ধুলাবালি থেকে এসব রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন মুসল্লিরা। বিনামূল্যে চিকিৎসা নিতে টঙ্গী সরকারি হাসপাতাল ও বিশ্ব ইজতেমার ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন তারা।

প্রতি বছরের মতো এ বছরও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নেওয়া মুসল্লিদের বিনামূল্যে চিকিৎসা দিচ্ছেন। এগুলো মধ্যে হামমর্দ ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, যমুনা ব্যাংক ফাউন্ডেশন, ইসলামিক মিশন, ইবনে সিনা ফ্রি মেডিকেল সেন্টার, স্বাস্থ্য অধিদফতর, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন ও গাজীপুর সিটি করপোরেশনসহ বেশ কয়েটি প্রতিষ্ঠান মুসল্লিদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে।

ঢাকা থেকে অংশ নেওয়া মুসল্লি আব্দুল আজিজ বাংলানিউজকে জানান, কয়েক বছর ধরে বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নেন। এবার ইজতেমায় অংশ নিয়ে প্রথম দিনই ঠাণ্ডা লেগে কাশিতে আক্রান্ত হয়েছেন। বিনামূল্যে চিকিৎসা নিতে হামমর্দ ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে এসেছি। এখানে টাকা ছাড়া চিকিৎসা ও ওষুধ পাচ্ছি। 

হামদর্দ ফ্রি মেডিকেল টিমের পরিচালক ড. মনিরুজ্জামান খাঁন বাংলানিউজকে জানান, প্রতি বছর বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে মুসল্লিদের বিনামূল্যে চিকিৎসা দিতে হামদর্দ ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প স্থাপন করা হয়। গত বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) ও শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) দু’দিনে প্রায় ২৫ হাজার রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা ও ওষুধ দেওয়া হয়েছে। আগামী ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হবে।

টঙ্গী সরকারি হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) মো. পারভেজ হোসেন জানান, গত দু’দিনে বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নেওয়া প্রায় ৭ হাজার মুসল্লিকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে শ্বাসকষ্ট, হাঁপানি, ঠাণ্ডা, কাশি ও জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যাই বেশি।

রোববার (১৪ জানুয়ারি) আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে ইজতেমার প্রথম ধাপ। মধ্যে চারদিন বিরতির পর শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) শুরু হবে দ্বিতীয় ধাপের ইজতেমা। একইভাবে আখেরি মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে রোববার (২১ জানুয়ারি) শেষ হবে এবারের বিশ্ব ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা।

বাংলাদেশ সময়: ০৫১৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৩, ২০১৮
আরএস/ওএইচ/এএ

সুনামগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২০
ব‌রিশালে কিং ব্র্যান্ড সিমেন্টের ‘রাজসভা’
জলপাইয়ের বিচি গলায় আটকে শিশুর মৃত্যু 
বিশ্বে বছরে দেড় মিলিয়ন অপরিণত শিশু জন্মায়
নির্বাচনের পরে আন্দোলনে নামবে পরিবহন শ্রমিকরা
কন্যা জন্ম দেয়ায় স্ত্রীকে তালাক, ৯ দিনের শিশুকে বিক্রি 
৫৬ হাজার বর্গমাইলের খণ্ডচিত্রে মঞ্চায়িত ‘কনডেমড সেল’
বাংলা একাডেমির ৪ পুরস্কার ঘোষণা 
স্কাইপি বন্ধ করে সরকার ঘৃণ্য নজির দেখালো: রিজভী
শীতে সতেজ থাকতে ‘সুগন্ধী ইয়োগা-চা’