ঢাকা, বুধবার, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ১২ আগস্ট ২০২০, ২১ জিলহজ ১৪৪১

আন্তর্জাতিক

বর্ণ বৈষম্যের প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রে বিশাল বিক্ষোভ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২১৪ ঘণ্টা, জুন ৭, ২০২০
বর্ণ বৈষম্যের প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রে বিশাল বিক্ষোভ ওয়াশিংটন ডিসিতে বিক্ষোভ। ছবি: সংগৃহীত

শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তার হাতে কৃষ্ণাঙ্গ মার্কিন নাগরিক জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে ১২ দিন ধরে যুক্তরাষ্ট্রে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ চলছে। এদিন পুলিশি সহিংসতা এবং বর্ণ বৈষম্যের বিরুদ্ধে শান্তিপূর্ণ পদযাত্রায় অংশ নেন লাখ লাখ মানুষ।

রোববার (৭ জুন) বিবিসি এ তথ্য জানায়।

রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে শহরের বৃহত্তম বিক্ষোভে পদযাত্রায় অংশ নেন লাখো মানুষ।

তবে হোয়াইট হাউসের আশপাশের রাস্তা বন্ধ করে রাখে নিরাপত্তা বাহিনী।

এদিন নিউইয়র্ক, শিকাগো এবং সান ফ্রান্সিসকোতেও বিক্ষোভে হয়। এদিকে নর্থ ক্যারোলিনায় জর্জ ফ্লয়েডের জন্মস্থানে স্মরণ সভায় তার প্রতি শ্রদ্ধা জানান বহু মানুষ।

যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও আরও বেশ কয়েকটি দেশে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ হয়েছে। করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে জনসমাবেশে জারি করা নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে যুক্তরাজ্যের সেন্ট্রাল লন্ডনে পার্লামেন্ট স্কয়ারে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেন মানুষ।

আদিবাসীদের সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণের প্রতিবাদে অস্ট্রেলিয়ার সিডনি, মেলবোর্ন ও ব্রিসবেনে বড় ধরনের আন্দোলন হয়। এছাড়া, ফ্রান্স, জার্মানি ও স্পেনেও বিক্ষোভ হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানীতে বিক্ষোভকারীরা ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ লেখা প্ল্যাকার্ড নিয়ে ক্যাপিটল, লিঙ্কন মেমোরিয়াল এবং হোয়াইট হাউসের কাছে লাফায়েট পার্কে জড়ো হন। এদিন মেয়র মুরিয়েল বাউজার সমবেত জনতাকে স্বাগতম জানিয়ে বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কাছে নিজেদের বার্তা পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছেন তারা।

শহর থেকে ফেডারেল আইনপ্রয়োগকারী কর্মকর্তা এবং ন্যাশনাল গার্ডের সেনাদের সরিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান বাউজার। তাদের উপস্থিতি ‘অপ্রয়োজনীয়’ বলে মন্তব্য করেন তিনি। হোয়াইট হাউসের সামনের রাস্তার নাম পরিবর্তন করে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার প্লাজা’ নামকরণ করেন তিনি।  এরপর রাস্তাটির ওপর হলুদ রঙে বড় করে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ কথাটি অঙ্কিত করেন ওয়াশিংটন ডিসির সিটি করপোরেশনের কর্মীরা।

৩৫ বছর বয়সী বিক্ষোভকারী এরিক উড বলেন, ‘আমি এখানে এসেছি কারণ এখানে না এসে থাকা আর সম্ভব হচ্ছিল না। বর্ণ বৈষম্য দীর্ঘ দিন ধরে যুক্তরাষ্ট্রের অংশ হয়ে আছে। ’

এবারের আন্দোলন নিয়ে আশাবাদী ৪৬ বছর বয়সী ক্রিস্টাল বলিঙ্গার। তিনি বলেন, ‘এবারের বিক্ষোভ নিয়ে কিছুটা ভিন্ন অনুভব করছি। আমি আশাবাদী যে, একতা এবং সমতার বার্তা সবার কাছে পৌঁছাচ্ছে। ’

সান ফ্রান্সিসকোতে গোল্ডেন গেট ব্রিজ কিছুক্ষণের জন্য বন্ধ করে দেন বিক্ষোভকারীরা।  ছবি: সংগৃহীতনিউইয়র্কে বিক্ষোভরত জনতা পদযাত্রা করে ব্রুকলিন ব্রিজ পার হন। সান ফ্রান্সিসকোতে গোল্ডেন গেট ব্রিজ কিছুক্ষণের জন্য বন্ধ করে দেন বিক্ষোভকারীরা। শিকাগোর ইউনিয়ন পার্কে প্রায় ৩০ হাজার মানুষ পদযাত্রা করেন। লস এঞ্জেলেসে হলিউডের সামনের সড়ক আটকে বিক্ষোভ করেন মানুষ। সিয়াটলে স্বাস্থ্যকর্মীরা ইউনিফর্ম পরে সিটি হলের অভিমুখে পদযাত্রা করেন। এছাড়া, যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় সব প্রধান শহরে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হয়।

আরও পড়ুন>> বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল বিশ্ব

বাংলাদেশ সময়: ১২১৪ ঘণ্টা, জুন ০৭, ২০২০
এফএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa