ভাঙনের মুখে ব্রাজিলের সাও পাউলোর স্বাস্থ্য ব্যবস্থা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সাও পাউলোর শহরের সরকারি হাসপাতালগুলো ৯০ শতাংশ পূর্ণ হয়ে গেছে। ছবি: সংগৃহীত

walton

ব্রাজিলের বৃহত্তম শহর সাও পাউলোর মেয়র ব্রুনো কোভাস বলেছেন, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর জন্য হাসপাতালে জরুরি শয্যার চাহিদা বাড়তে থাকায় শহরটির ‘স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়তে পারে’।

তিনি বলেছেন, ‘শহরের সরকারি হাসপাতালগুলো ৯০ শতাংশ পূর্ণ হয়ে গেছে এবং দু’ সপ্তাহের মধ্যেই সেখানে আর কোনো ফাঁকা জায়গা থাকবে না।’

সোমবার (১৮ মে) বিবিসি জানায়, ব্রাজিলে করোনা ভাইরাসে সবচেয়ে বিপর্যস্ত অঞ্চল সাও পাউলো। শহরটিতে এখন পর্যন্ত প্রাত তিন হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (১৬ মে) শনাক্ত কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যার দিক থেকে স্পেন ও ইতালিকে ছাড়িয়ে বিশ্বের চতুর্থ শীর্ষ অবস্থানে উঠে আসে ব্রাজিল।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে সর্বাধিক ৭ হাজার ৯৩৮ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২ লাখ ৪১ হাজারেরও বেশি।

এদিক থেকে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া এবং যুক্তরাজ্যের পরই ব্রাজিলের অবস্থান। যদিও অন্য তিনটি দেশের তুলনায় অনেক কম পরীক্ষা করা হয়েছে ব্রাজিলে।

লাতিন আমেরিকার এ দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৪৮৫ জন মারা গেছেন। দেশটিতে এ রোগে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১৬ হাজার ১১৮ জন, যা বিশ্বে পঞ্চম সর্বাধিক।

ব্রাজিলের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন, দেশটিতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের প্রকৃত সংখ্যা আরও অনেক বেশি কারণ কম সংখ্যক পরীক্ষা করা হচ্ছে।

এদিকে মেয়র কোভাস জানান, হাসপাতাল ব্যবস্থা ধসে পড়ার আগেই সংক্রমণ কমানোর জন্য স্টেট গভর্নরের সঙ্গে কথা বলে কঠোর লকডাউন জারি করতে চান তিনি।

সাও পাউলোর পুলিশের নিয়ন্ত্রণ স্টেট গভর্নরের হাতে এবং লকডাউন সফল করতে হলে তার সহযোগিতা জরুরি।

শহরটিতে ১ কোটি ২০ লাখ মানুষ বাস করেন এবং বেশিরভাগই সামাজিক দূরত্ব মেনে চলছেন না।

ইউনিভার্সিটি অব সাও পাউলো মেডিক্যাল স্কুলের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডোমিঙ্গো আলভেস বলেন, ‘হাসপাতালে যারা যায়, শুধু তাদেরই পরীক্ষা করে ব্রাজিল। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের সত্যিকার কোনো নীতিমালাই নেই এখানে।’

আলভেসের আশঙ্কা, ব্রাজিলে আক্রান্তের সংখ্যা সরকারি হিসাবের চেয়ে ১৫ শতাংশ বেশি।

লাতিন আমেরিকা এবং ক্যারিবীয় অঞ্চলে পাঁচ লাখেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন, যার মধ্যে ৫০ শতাংশই ব্রাজিলে।

করোনা ভাইরাস সংকট মোকাবিলায় ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারোর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে দেশে-বিদেশে। করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ এড়িয়ে যাচ্ছেন বলসোনারো। একমাসের মাথায় দু’জন স্বাস্থ্যমন্ত্রী হারালেন তিনি। তার সঙ্গে মতবিরোধের জের ধরে আগের স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে বরখাস্ত করার পর দায়িত্ব নেওয়ার একমাস না যেতেই পদত্যাগ করলেন দ্বিতীয়জন।

আরও পড়ুন>> করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় ইতালি, স্পেনকে ছাড়ালো ব্রাজিল

বাংলাদেশ সময়: ১১৫৬ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২০
এফএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ব্রাজিল করোনা ভাইরাস
করোনায় মৃত বিএনপি নেতার মরদেহ দাফন করলো ছাত্রলীগ
ফিরতে হচ্ছে প্রকৃতির কাছে, তুলসী পাতা আছে তো ঘরে?
রোববার চট্টগ্রাম থেকে ৩ ট্রেনে যাত্রী যাবেন ১০৪০ জন
করোনা: জনপ্রতিনিধিদের আরও বেশি সম্পৃক্ত করার নির্দেশ
পাথরঘাটায় হরিণের মাথা-চামড়া জব্দ


রাজনীতির ইতিহাসে কালজয়ী জিয়া: এলডিপি
ফেরিঘাট দেখে সারাদেশ মূল্যায়ন করা যাবে না
করোনাকালে বাল্যবিয়ের চেষ্টা, বর-কনের অভিভাবকের জরিমানা
বশেমুরবিপ্রবির উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের করোনা শনাক্ত
পাইলটের করোনা, মাঝপথ থেকে ফিরলো এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইট