php glass

কম্বোডিয়ায় ভবন ধস, কাজ বন্ধে সতর্ক করা হয় দুইবার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ভবন ধসের পর ঘটনাস্থল। ছবি: সংগৃহীত

walton

ঢাকা: যথাযথ অনুমোদন ছাড়াই চলছিল কম্বোডিয়ার উপকূলবর্তী শহর সিহানৌকভিলে ধসে পড়া ওই সাততলা ভবনের নির্মাণকাজ। চীনা মালিকানাধীন এ ভবনের নির্মাণকাজ বন্ধে দুইবার সতর্কও করেছিল কর্তৃপক্ষ।

সোমবার (২৪ জুন) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানায়।

সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, শনিবার (২২ জুন) সিহানৌকভিলের ওই নির্মাণাধীন ভবনটি ধসে পড়ে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৪ জন নিহত ও ২৪ জন আহত হয়েছেন।

ঘটনায় পরপরই সেখানে গিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে উদ্ধারকাজ শুরু করে উদ্ধারকর্মীরা। তাদের প্রচেষ্টাতেই এখনও সেখানে উদ্ধারকাজ চলছে।

স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানায়, ভবনটিতে নির্মাণকাজ চালানোর ব্যাপারে যথাযথ অনুমোদন ছিলোনা। এ দুর্ঘটনার আগেই ভবনটির মালিককে নির্মাণকাজ বন্ধ করতে দুইবার সতর্কও করা হয়েছিল।

ইতোমধ্যে ঘটনাস্থল থেকে প্রায় সব ধ্বংসস্তুপ সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলেই জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এ ঘটনায় তিন চীনা নাগরিক ও এক কম্বোডিয়ান নাগরিককে আটক করা হয়েছে।

এ দুর্ঘটনায় বেঁচে ফেরা ওই ভবনে কর্মরত এক শ্রমিক জানায়, ভবনটির প্রায় ৮০ শতাংশ নির্মাণকাজই শেষ হয়ে গিয়েছিল। তবে এ ভবন নির্মাণে যে উপকরণ ব্যবহার করা হয়েছে, তা একটি সাততলা ভবন নির্মাণের জন্য পর্যাপ্ত ছিলোনা। 

কয়েকবছর আগেও এ শহরটি প্রত্যন্ত অঞ্চল হিসেবেই পরিচিত ছিলো। তবে চীনা পর্যটকদের আগ্রহের কারণেই বর্তমানে এ শহরে বহু হোটেল ও ক্যাসিনো নির্মাণ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪০ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০১৯
এসএ/

চাঁপাইনবাবগঞ্জে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
সেভিয়ার কাছে লিভারপুলের হার
রাজধানীতে ৫ ডাকাত আটক
ধোবাউড়ায় গণধর্ষণ মামলার অন্যতম আসামি গ্রেফতার
বরিশালে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা


ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের বারান্দায় শিশুদের পাঠদান
ছোটপর্দায় আজকের খেলা
জমতে শুরু করেছে ভাসমান পেয়ারার বাজার
টানা বৃষ্টিতে লোকসানে মরিচ চাষিরা
১১ ঘণ্টায়ও মেলেনি তুরাগে পড়া ট্যাক্সিক্যাব