php glass

বাংলায় থাকলে বাংলা ভাষা জানতে হবে: মমতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: সংগৃহীত

walton

ঢাকা: বাংলায় অর্থাৎ পশ্চিমবঙ্গে থাকতে হলে বাংলা ভাষা জানতে হবে বলে জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

শুক্রবার (১৪ জুন) উত্তর ২৪ পরগণায় একটি সমাবেশে অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন। 

এ সময় কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সমালোচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, বিজেপি পশ্চিমবঙ্গকে গুজরাটে পরিণত করতে চাইছে। কিন্তু তা হতে দেওয়া হবে না। বাংলায় থাকতে হলে বাংলা ভাষা শিখতে হবে।

তৃণমূল সুপ্রিমো বলেন, বাংলা ভাষাকে আমাদের সামনে নিয়ে যেতে হবে। আমরা যখন দিল্লি যাবো, তখন হিন্দিতে কথা বলবো। যখন পাঞ্জাব যাবো, তখন পাঞ্জাবি ভাষায় কথা বলবো। আমিও এটাই করি। তবে যখন তামিলনাড়ুতে যাই, তখন একটু সমস্যা হয়। কারণ আমি তাদের ভাষার কয়েকটা শব্দ ছাড়া আর বেশি কিছু জানি না।  

তিনি বলেন, কেউ যদি বাংলায় আসতে চায়, তবে তাকে অবশ্যই বাংলা ভাষা শিখেই আসতে হবে। বাহির থেকে কেউ এসে এখানকার লোকজনকে মারধর করবে, তা হবে না।

এছাড়া বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে ‘রাজনৈতিক দাঙ্গা’ সৃষ্টি করতে চাইছে বলেও অভিযোগ করেন মমতা। 

তিনি বলেন, এ কাজ করে গুজরাটে সহিংসতা বাড়িয়েছে বিজেপি। এখানেও একি কাজ করতে চাইছে। তবে এখানে তা হতে দেওয়া হবে না।

‘তবে গুজরাট কিংবা ওই রাজ্যের মানুষের সঙ্গে আমাদের কোনো বিরোধ নেই। আমরা শুধু রাজনৈতিক দাঙ্গার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছি। তাই আমি যতদিন আছি, ততদিন বাংলাকে গুজরাটে পরিণত করতে দেবো না।’

দাঙ্গা সৃষ্টিকারীদের সতর্ক করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, যদি তারা ভাবে যে, এখানকার মানুষের ওপর হামলা চালিয়ে তারা শান্তিতে বসবাস করবে, এটি হবে তাদের ভুল ধারণা।

বাংলাদেশ সময়: ১৪২৬ ঘণ্টা, জুন ১৫, ২০১৯
এসএ/এমএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ভারত
‘ট্রাম্পকে দেওয়া প্রিয়া সাহার তথ্য সর্বৈব মিথ্যা’
শরণার্থী শিবির ‘দেখে গেল’ আইসিসির প্রতিনিধি দল
বসুন্ধরা কিংসের লাল জার্সিতে উন্মাতাল গ্যালারি
মামলা আতংকে ঘর ছেড়ে রিকশা চালাচ্ছেন নেতা-কর্মীরা
রাবিতে মাদকসহ তিন বহিরাগত আটক


পার্লামেন্টারি ফোরামের সভা শেষে দেশে ফিরেছেন স্পিকার
সংস্কার শেষে কক্সবাজার হাসপাতালের জরুরি বিভাগ উদ্বোধন
খুলনায় বিভাগীয় সমাবেশে অংশ নেবেন মির্জা ফখরুল
প্রথম দিনেই ‘দ্য লায়ন কিং’র বাজিমাত
পূর্বশত্রুতার জেরে খুন হন সঞ্জয় ধর