php glass

কাশ্মীরে নিহত চার জঙ্গির দু’জনই সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনী। ছবি: সংগৃহীত

walton

ঢাকা: ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত চার জঙ্গির মধ্যে দুইজনই পুলিশের সাবেক কর্মকর্তা ছিলেন বলে জানিয়েছে দেশটির পুলিশ।

শুক্রবার (০৭ জুন) এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম।

জানা যায়, শুক্রবার কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলায় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে জঙ্গিদের বন্দুকযুদ্ধ হয়। এতে জঙ্গিগোষ্ঠীর চার সদস্য নিহত হয়। এদের মধ্যে দুইজন পুলিশের সাবেক কর্মকর্তা। পুলিশের ওই দুই কর্মকর্তা চলতি সপ্তাহেই পুলিশের চাকরি থেকে পালিয়ে এসে জঙ্গি সংগঠনে যোগ দিয়েছেন।

পুলিশের ধারণা, নিহত জঙ্গিরা পাকিস্তানি জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মুহম্মদের সদস্য।  

পুলিশ জানায়, ঈদের ছুটির পর বৃহস্পতিবার (৬ জুন) পুলিশের ওই দুই কর্মকর্তার কাজে যোগ দেওয়ার কথা থাকলেও ওই দিন থেকেই তারা নিখোঁজ ছিলেন। পরে জানা যায়, তারা তাদের রাইফেলসহই জঙ্গি সংগঠনে যোগ দেয়।

এছাড়া, ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে কাশ্মীরের জঙ্গিদের সহায়তা করতে পুলিশেরই আরেক বিশেষ কর্মকর্তা গুলিসহ সাতটি রাইফেল ও একটি পিস্তল চুরি করেন। বৃহস্পতিবারই ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধেও অভিযোগ এনেছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ।  

এর আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলওয়ামায় পাকিস্তানি জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মুহম্মদের হামলায় দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর ৪৪ সদস্য নিহত হয়। এরপর থেকেই ভারত ও পাকিস্তান- দু’দেশের মধ্যেই চলছে উত্তেজনা। ভারতের দাবি, পাকিস্তানই এ ধরনের জঙ্গি সংগঠনগুলোকে সহায়তা দিয়ে আসছে। তবে ভারতের এ দাবি প্রত্যাখ্যান করেছে পাকিস্তান।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৪ ঘণ্টা, জুন ০৭, ২০১৯
এসএ/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ভারত কাশ্মীর
চুরি-ডাকাতি রোধে স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা পরিস্কার
বিশ্বের ৮৫ শতাংশ ইলিশ উৎপাদন হয় বাংলাদেশে: খসরু
তৃণমূলের নেতাকর্মীরাই আ’লীগের মূল শক্তি: কৃষিমন্ত্রী
পূর্বধলায় ট্রাকচাপায় যুবক নিহত
‘কাঞ্চন পৌরসভা নির্বাচনে কেউ ঝামেলা করলে গুলি চালাবেন’


ছেলেধরা সন্দেহে নারীকে গণপিটুনি, রক্ষা করতে পুলিশ আহত
চিকিৎসা সংকট: দেশের স্বাস্থ্যসেবা মূলত শহরকেন্দ্রিক
দেশীয় ব্যবসায়ীদের সম্ভাবনাময়ী বাজার আমাজন
৭ নারী ব্যবসায়ী উদ্যোক্তাকে পুরস্কৃত করলো কালারস
মাদক থেকে শিক্ষার্থীদের দূরে থাকার আহ্বান বিজিবি ডিজির