মস্কোর ভয়াবহ প্লেন দুর্ঘটনা বজ্রপাতের আঘাতে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সুখোই সুপারজেট-১০০ মডেলের প্লেনটির ধ্বংসাবশেষ, ছবি: সংগৃহীত

walton

ঢাকা: মস্কোতে সুখোই সুপারজেট-১০০ প্লেন বিধ্বস্ত হয়ে ৪১ জন নিহত হওয়ার যে ঘটনা ঘটেছে, সেটি বজ্রপাতের কারণে হয়েছে বলে জানা গেছে। মাঝ আকাশে উড়ন্ত প্লেনটির পেছন দিকে বজ্রপাতের আঘাতে আগুন লেগে যায় এবং যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। এরপরই জরুরি অবতরণের সিদ্ধান্ত নেন পাইলট। যদিও শেরিমেতভো বিমানবন্দরে নামা মাত্রই প্লেনটি বিধ্বস্ত হয়।

php glass

মঙ্গলবার (০৭ মে) রুশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি কোমারসান্ট রিপোর্ট করেছে, সুখোই সুপারজেট-১০০ মডেলের প্লেনটি মস্কো টাইম সন্ধ্যা ৬টা ৩ মিনিটে শেরিমেতভো বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের পরপরই এর পাইলট আবার ফিরে আসার জন্য অনুরোধ করেন।

কেননা, বজ্রপাতের আঘাতে না-কি প্লেনটির রেডিও কমিউনিকেশন চ্যানেল এবং অটোমেটিক কন্ট্রোল ডিভাইস কাজ করছিল না। এসময় পাইলট বিকল্প কমিউনিকেশন চ্যানেলের মাধ্যমে কন্ট্রোল টাওয়ারের সঙ্গে যোগাযোগ করছিলেন। একইসঙ্গে মাঝ আকাশে প্লেনের পেছনে আগুনও ধরে যায়। যদিও বলা হচ্ছে- বিমানবন্দরে অবতরণের পর প্লেনে ভয়াবহ রকমের আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

প্লেনটির পাইলট দেনিশ ইভদোকিমোভ জানিয়েছেন, বজ্রপাতের কারণে ‘এসইউ১৪৯২’ ফ্লাইটের কমিউনিকেশন এবং প্রয়োজনীয় অন্যান্য কন্ট্রোল মুড হারিয়ে যায়। বজ্রপাতের কারণেই মারাত্মক ধরনের এ ঘটনা ঘটেছে।

ফ্লাইট্র্যাডার-২৪ ট্র্যাকিং সার্ভিস দেখাচ্ছে, উড্ডয়নের ৩০ মিনিটের মধ্যেই বিধ্বস্ত হওয়ার আগে প্লেনটি মস্কোতে দুইবার চলাচল করেছে। তখন কোনো সমস্যা হয়নি বা কোনো কিছু ধরাও পড়েনি।

সংবাদমাধ্যমের ভিডিওতে দেখা গেছে, প্লেনটির পেছনে ভয়াবহ আগুন। বিমানবন্দরে যখন প্লেন অবতরণ করা হলো, তখন আরোহীরা দ্রুত নামছেন। যদিও প্লেনটিতে থাকা ৭৩ যাত্রী এবং পাঁচ ক্রু’র মধ্যে ৪১ জন মারা গেছেন।

এদিকে, রুশ সংবাদমাধ্যম দ্য মস্কো টাইমস বলছে, এ ঘটনায় গঠিত রাশিয়ার তদন্ত কমিটি জানিয়েছে, তারা একটি ক্রিমিনাল কেস পর্যালোচনা করছে। একইসঙ্গে প্লেন দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে পাইলটরা এয়ার নিরাপত্তা আইন লঙ্ঘন করেছিলেন কি-না, সে বিষয়ে অনুসন্ধান করেছে দলটি। এছাড়া ডাটা রেকর্ডের মাধ্যমে এ ঘটনার তদন্ত চলছে।

রোববার (০৫ মে) স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় মস্কোর শেরিমেতভো বিমানবন্দর থেকে ৭৮ আরোহী নিয়ে মুরমানস্ক অভিমুখে উড্ডয়ন করে ‘এসইউ১৪৯২’ ফ্লাইট। এর কিছুক্ষণ পরই আগুন নিয়ে প্লেনটি আবার শেরিমেতভো বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করে। তখন রানওয়েতে প্লেনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটে। এ ঘটনায় ৪১ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন। তাদের স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুণ>> রাশিয়ায় বিমান দুর্ঘটনায় নিহত বেড়ে ৪১

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩০ ঘণ্টা, মে ০৭, ২০১৯
টিএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: রাশিয়া বজ্রপাত
খিলগাঁয়ে কাভার্ড ভ্যানচাপায় শিক্ষার্থীর মৃত্যু
ট্রেনের টিকিটের জন্য রাত জাগছেন তারা
ক্রেতা টানতে বুলি, ফুটপাতে জমেছে বিকিকিনি
নূরজাহান বেগমের প্রয়াণ
ইতিহাসের এই দিনে

নূরজাহান বেগমের প্রয়াণ

রাজধানীতে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি


রহমতগঞ্জকে উড়িয়ে দিয়ে শেখ জামালের বড় জয়
রমজানে রাতভর এবাদত-বন্দেগিতে সজাগ বাড়িটি
ভেজাল তেল কারখানায় গোয়েন্দা পুলিশের হানা
গাজীপুরে অগ্নিকাণ্ডে একই পরিবারের ৪ জনের মৃত্যু
চলে গেলেন বরেণ্য সঙ্গীতশিল্পী খালিদ হোসেন