তরুণদের জন্য স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি নোট টেন লাইট

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি নোট টেন লাইট

walton

ঢাকা: দেশের বাজারে নতুন গ্যালাক্সি নোট টেন লাইট উন্মোচন করেছে স্যামসাং বাংলাদেশ। এর মাধ্যমে প্রথমবারের মতো দেশে তরুণদের জন্য নোট সিরিজের ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইস নিয়ে এলো স্যামসাং।

গ্যালাক্সি নোট সিরিজের ধারাবাহিকতায় তৈরি, লাইট মডেলের এই ডিভাইসটিতেও রয়েছে প্রিমিয়াম সব ফিচার, এর মধ্যে রয়েছে সর্বাধুনিক সিগনেচার এস পেন, ক্যামেরা প্রযুক্তি, ইমার্সিভ ডিসপ্লে এবং দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারি সুবিধা। গ্যালাক্সি নোট টেনলাইট ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইসটি পাওয়া যাবে ৫৫ হাজার ৯৯৯ টাকায়।

এ নিয়ে স্যামসাং বাংলাদেশের হেড অব মোবাইল মো. মূয়ীদুর রহমান বলেন, ফোনের পারফরমেন্স ও পাওয়ার থেকে শুরু করে বুদ্ধিমত্তা ও সেবা পর্যন্ত সবকিছুতেই প্রযুক্তিখাতের উদ্ভাবনী সব সেবা দেওয়া আমাদের নিরলস প্রচেষ্টার ফল গ্যালাক্সি নোট টেন লাইট। ব্যবহারকারীদের ভিন্নধর্মী অভিজ্ঞতা দেওয়ায় গ্যালাক্সি নোট সিরিজ বিশ্বজুড়েই পরিচিত।

এখন ব্যবহারকারীরা প্রিমিয়াম নোট সিরিজ ব্যবহারের অভিজ্ঞতা নিতে পারবেন এবং গ্যালাক্সি নোট ১০ লাইটের সিগনেচার এস পেন তাদের কর্ম দক্ষতাও বাড়াতে সহায়তা করবে।

ফোনটিতে থাকা ব্লুটুথ লো-এনার্জির (বিএলই) মাধ্যমে এস পেন-এ ক্লিক করে তরুণরা প্রেজেন্টেশনের স্লাইড নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন, ভিডিও শুরু ও বন্ধ করতে পারবেন এবং ছবিও তুলতে পারবেন। এয়ার কমান্ড তাদের সুযোগ দেবে সহজে সিগনেচার এস পেনের ফিচার ব্যবহারের।

স্যামসাংয়ের শীর্ষ স্থানীয় ক্যামেরা প্রযুক্তিতে তৈরি গ্যালাক্সি লাইট ডিভাইসটিতেও রয়েছে উদ্ভাবনী ক্যামেরা ফিচার। গ্যালাক্সি নোট টেন লাইটে রয়েছে ১২ মেগা পিক্সলে সেন্সরের ট্রিপল ক্যামেরা সিস্টেম। আরও রয়েছে ডুয়াল পিক্সেল ও আইএস (অপটিক্যালইমেজ স্পেশালাইজেশন) এফ/১ দশমিক ৭ অ্যাপাচারসহ ১২ মেগাপিক্সেল ওয়াইডক্যামেরা, ১২৩ ডিগ্রি ও এফ/২ দশমিক ২ ১২ মেগালিক্সেলের আল্ট্রা-ওয়াইড সেন্সর এবং অটো ফোকাস ও এফ/২ দশমিক ৪ অ্যাপাচারে ১২ মেগাপিক্সেল টেলিফটো সেন্সর।

গ্যালাক্সি নোট টেনলাইট ডিভাইসের ক্যামেরা ফিচারে সুপার স্টেডি মোড ও লাইভ ফোকাস মোড ব্যবহার করা হয়েছে। সেলফি তোলার জন্য ফোনটিতে রয়েছে এফ/২ দশমিক ২ অ্যাপাচারসহ ৩২ মেগাপিক্সেল রেজ্যুলেশনের পাঞ্চ হোল ক্যামেরা।

স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট টেন লাইটে ৬ দশমিক৭ ইঞ্চির ফুল এইচ ডিপ্লাস সুপার অ্যামোলেড প্লাস ইনফিনিটি ও ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে। যার রেজ্যুলেশন ২৪০০/ ১০৮০পি এবং এর অ্যাসপেক্ট রেশিও ২০:৯। ফোনটিতে ১০ এনএম ৬৪-বিট এক্সিনোস অক্টাকোর প্রসেসর রয়েছে। ফোনটিতে ৮ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ রয়েছে, যা ১ টেরা বাইট পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। ফোনটিতে ফাস্ট চার্জ সাপোর্টসহ ৪৫০০ মিলি অ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি রয়েছে। অরাব্ল্যাক ও অরা গ্লো এ দু’টি রঙে ডিভাইসটি বাজারে পাওয়া যাবে।

রূপান্তর মূলক ধারণা ও প্রযুক্তির মাধ্যমে স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স বিশ্বব্যাপী অনুপ্রেরণাদানসহ ভবিষ্যত উন্নয়নে কাজ করছে। প্রতিষ্ঠানটি টিভি, স্মার্টফোন, ওয়্যারেবল ডিভাইস, ট্যাবলেট, ক্যামেরা, ডিজিটাল অ্যাপ্লায়েন্স, মেডিকেল ইকুইপমেন্ট, নেটওয়ার্ক সিস্টেম, সেমিকন্ডাক্টর এবং এলইডি সল্যুশনের ক্ষেত্রে যুগান্তকারী ভূমিকা রেখেছে। এ সংক্রান্ত প্রাসঙ্গিক খবরের জন্য অনুগ্রহ করে ভিজিট করুন news.samsung.com

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২০
এএটি

রামজান উপলক্ষে বুধবার থেকে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু
চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীদের যাতায়াতের ব্যবস্থা করবে সিএমপি
করোনা: পোল্ট্রি শিল্পে ক্ষতি ১১৫০ কোটি টাকা
 কবি হাসান হাফিজুর রহমানের প্রয়াণ
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ইতালিতে আরও ৮৩৭ জনের মৃত্যু


গোপনে রাতের আঁধারে ত্রাণ পৌঁছে গেল ঘরে
কুষ্টিয়ায় দুপক্ষের সংঘর্ষে দুই ভাই নিহত
চট্টগ্রামে আইসোলেশনে থাকা রোগীর মৃত্যু 
১০ হাজার অসহায় পরিবারের পাশে পিএইচপি ফ্যামিলি 
হটলাইনে ফোন করে খাবার পেলো ৪১ পরিবার