php glass

ল্যাপটপ মেলার শেষ দিনে ছাড়, অফার

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মেলায় ক্রেতা-দর্শনার্থীদের ভিড়/ছবি- জি এম মুজিবুর

walton

ঢাকা: রাজধানীতে চলছে তিন দিনব্যাপী ‘ইসেট ল্যাপটপ ফেয়ার ২০১৯’। মেলার শেষদিন শনিবার (১৩ জুলাই) সকাল থেকেই রয়েছে দর্শনার্থীদের ভিড়। এতে বিক্রি ভালো হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন স্টল মালিকসহ আয়োজক সংস্থা।

আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র (বিআইসিসি) ঘুরে ক্রেতা, বিক্রিতা ও আয়োজক সংস্থার সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।

দেখা যায়, নির্ধারিত সময় সকাল ১০টায় মেলা শুরুর পর থেকেই দর্শনার্থী ও ক্রেতাদের ভিড় ছিল স্টলগুলোতে। ক্রেতাদের জন্য ছাড়, অফার ও বিভিন্ন ধরনের উপহারের পসরা সাজিয়েছে ব্র্যান্ডগুলো। একটু পরপর মাইকে স্টলগুলো থেকে ছাড়, অফার ও উপহারের ঘোষণা দেওয়া হচ্ছে। ল্যাপটপ প্রদর্শনীর শেষ দিন হওয়ায় শিক্ষার্থীদের ভিড়ও ছিল লক্ষ্যণীয়।

আবহাওয়া ভালো থাকার কারণে দিনের শুরু থেকেই মেলা প্রাঙ্গণে টিকিট বুথের সামনে লাইন ধরে টিকিট কিনতে দেখা গেছে লোকজনেক। বিক্রিও বেশ ভালো। মেলায় পাওয়া যাচ্ছে ট্যাবলেট কম্পিউটার, ইন্টারনেট সিকিউরিটি পণ্য ও ল্যাপটপের আনুষঙ্গিক গ্যাজেট। বিশেষ ছাড়, উপহারের পাশাপাশি মেলায় বেশ কয়েকটি নতুন মডেলের ল্যাপটপের মোড়কও উন্মোচন করা হয়েছে।

মেলার আয়োজক এক্সপো মেকারের এজিএম সিরাজুল ইসলাম সার্থক বাংলানিউজকে বলেন, গত দুইদিন ক্রেতাদের সমাগম বেশ ভালো ছিল।  আজ সকাল থেকেও প্রচুর মানুষ মেলায় আসছেন। বিক্রিও হচ্ছে বেশ।  

তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ক্রেতার ভিড় বাড়বে। তবে পূর্বের অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি শেষদিনেও প্রচুর বেচাবিক্রি হয়, তা বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বোঝা যায়।  

এদিকে ল্যাপটপ কেনার উদ্দেশ্যে নরসিংদীর অরবিট ইনস্টিটিউট অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজির ছাত্র মোহাম্মদ আব্দুর রহমান সাগর এসেছেন মেলায়। অফারে ল্যাপটপ পাওয়ার আনন্দে আত্মহারা তিনি। বাংলানিউজকে বলেন, ২৩ হাজার ৫০০ টাকা দিয়ে এইচপি ল্যাপটপ কিনেছি, কুপণে ২০ হাজার টাকার প্রাইজবন্ড পেয়েছি। একই সঙ্গে আরো অনেকগুলো গিফট পেয়েছি। পুরো ল্যাপটপটিই আমার ফ্রিতে হয়ে গেছে। 

অপরদিকে মেলায় বেচা-বিক্রিতে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন নেট স্টার প্রাইভেট লিমিটেডের কো-অর্ডিনেটর মাহমুদুল্লাহ সবুজ। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, অন্যান্যবারের চেয়ে এবারের মেলায় বেচাবিক্রি ভালো। প্রচুর লোক এসেছেন এবং কিনছেন। এতে আমরা সন্তুষ্ট। তিনি আরো বলেন, মেলা উপলক্ষে আসুস থেকে প্রতিটি ল্যাপটপের উপরেই বিশেষ ছাড় রয়েছে। যা আগামীকাল থেকে আর পাওয়া যাবে না।

এবারের মেলায় একটি টাইটেল স্পন্সর প্যাভিলিয়ন, চারটি স্পন্সর প্যাভিলিয়ন, ২৬টি মিনি প্যাভিলিয়ন ও ১০টি স্টলে দেশ-বিদেশের শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা ও বিপণনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের সর্বশেষ প্রযুক্তির পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রি করে। মেলার প্রধান পৃষ্ঠপোষক ইসেট।

ল্যাপটপের বাইরে প্রদর্শনীতে পাওয়া যাচ্ছে ট্যাবলেট কম্পিউটার, ইন্টারনেট সিকিউরিটি পণ্য ও ল্যাপটপের আনুষঙ্গিক গ্যাজেট। বিশেষ ছাড়, উপহারের পাশাপাশি মেলায় বেশ কয়েকটি নতুন মডেলের ল্যাপটপের মোড়কও উন্মোচন করা হয়। প্রতিবারের মতো এবারো মেলার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে (facebook.com/laptopfair.bd) কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। কুইজে অংশ নিয়ে আকর্ষণীয় পুরস্কার জিতে নিচ্ছেন মেলায় আগত দর্শনার্থীরা।

মেলায় প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য খোলা থাকছে। প্রবেশ মূল্য ৩০ টাকা। তবে স্কুলের শিক্ষার্থীরা ইউনিফর্ম পরিহিত অবস্থায় কিংবা পরিচয়পত্র দেখিয়ে বিনামূল্যে প্রবেশ করতে পারছেন। প্রতিবন্ধীরাও বিনামূল্যে প্রবেশের সুযোগ পেয়েছেন মেলায়।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫০ ঘণ্টা, জুলাই ১৩, ২০১৯
এসএমএকে/জেডএস

ksrm
টি-টোয়েন্টি সিরিজে শ্রীলঙ্কার নেতৃত্বে মালিঙ্গা
‘দ্য ম্যান্ডালোরিয়ান’ আসছে ডিজনি প্লাসে
‘ভারতের ২০ শতাংশ রাবার উৎপাদন করবে ত্রিপুরা’
ভারতে প্রোটিয়াদের ব্যাটিং কোচ ক্লুজনার
‘পৃথিবীর সব ধর্মই শান্তি-সম্প্রীতির কথা বলেছে’


যৌতুক নিয়েও বিয়ে না করায় ৫ দিন ধরে অনশনে প্রেমিকা
খুলনা সিটি মেয়রের গাড়ির সঙ্গে প্রাইভেটকারের সংঘর্ষ
মহাকাশকেন্দ্রে অবতরণে ব্যর্থ ‘আধা-মানব’ রোবট ফেদর
গুরুদাসপুরে নবদম্পতির আত্মহত্যা
চসিকের সবুজ মেলা শুরু রোববার