php glass

বিজ্ঞান প্রতিযোগিতায় পুরস্কার পেলেন ৪৫ জন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় পুরস্কার পেয়েছেন ৪৫ জন। ছবি: জিএম মুজিবুর

walton

ঢাকা: বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় পুরস্কার পেয়েছেন ৪৫ জন। তিন দিনব্যাপী ৪০তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলা, তৃতীয় জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড এবং তৃতীয় জাতীয় বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করে তাদের পুরস্কৃত করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরে এসব প্রতিযোগিতার সমাপনী পর্ব আয়োজিত হয়। প্রতিযোগিতা শেষে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। 

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হক। সমাপনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক মো. নুরুল আলম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মুহাম্মদ আকবর হুসাইন।
 
এবারের প্রতিযোগিতায় বিজ্ঞান মেলায় তিনটি গ্রুপে ৮ জন করে মোট ২৪ শিক্ষার্থীকে পুরস্কৃত করা হয়। গ্রুপ তিনটি হল জুনিয়র, সিনিয়র এবং বিশেষ গ্রুপ। বিজ্ঞান মেলায় জুনিয়র গ্রুপে ‘যানবাহনের গতি দ্বারা বিদ্যুৎ উৎপাদন’ প্রকল্পের জন্য প্রথম স্থান অধিকার করেন বাগেরহাটের আটকা কে আলী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী অন্যন্যা সাহা। সিনিয়র গ্রুপে ‘বাংলাদেশ রোবট ফোর্স’ প্রকলের জন্য প্রথম স্থান অধিকার করেন চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের শিক্ষার্থী জাহিদ হোসেন নোবেল ও ফাহিম জাওয়াদ। আর বিশেষ গ্রুপে ‘ভিটামিন-সি’ প্রকল্পের জন্য প্রথম স্থান অধিকার করেন লালমনিরহাটের সাইয়েদুল মোস্তায়িন তরঙ্গ। 
বক্তব্য রাখছেন মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। ছবি: জিএম মুজিবুরঅন্যদিকে জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড প্রতিযোগিতায় সিনিয়র ও জুনিয়র গ্রুপে ৬ জন করে মোট ১২ শিক্ষার্থীকে পুরস্কার দেওয়া হয়। জুনিয়র গ্রুপে প্রথম স্থান অধিকার করেন চট্টগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাফিতুল হাসান অভি এবং সিনিয়র গ্রুপে প্রথম স্থান অধিকার করেন সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী আলিফ সানজানা রুমু।
 
আর জাতীয় বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতায় তিনটি গ্রুপে মোট ৯ জনকে পুরস্কৃত করা হয়। এদের মধ্যে প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় হন যথাক্রমে ঝিনাইদহের সলিমুন্নেছা পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী অর্পিতা মজুমদার, হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ ইসলামি একাডেমি অ্যান্ড হাই স্কুলের শিক্ষার্থী ইশতিয়াক আহম আনান এবং রাজশাহীর সরদহ সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মোহাম্মন মিনহাজ সরকার।
 
পুরস্কার হিসেবে বিজয়ীদের মাঝে প্রাইজবন্ড, ক্রেস্ট এবং সনদপত্র তুলে দেওয়া হয়।
 
এর আগে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইয়াফেস ওসমান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, তোমরাই আগামী দিনের সোনার বাংলাদেশের রূপকার ও কারিগর। কারা পুরস্কার জিতলো আর কারা জিতলো না, সেটি বড় বিষয় নয়। এমন একটি জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতা সব প্রতিযোগীকে ভেতর থেকে আলোকিত করবে। তোমরা যখন বড় হবে তখন তোমরাই দেশকে নেতৃত্ব দিয়ে সঠিক পথে এগিয়ে নেবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১১৫ ঘণ্টা, জুন ২৭, ২০১৯
এসএইচএস/এইচএ/

পর্তুগালের দাবানল নিয়ন্ত্রণে ‘সবচেয়ে বড় অভিযান’
বিমানবন্দর সড়কের অত্যাধুনিক আন্ডারপাস খুলবে আগামী বছর
রেনুর দাফন হয়েছে, অবুঝ শিশু জানে না মা কোথায়
স্বস্তি ফিরেছে রাতের ধূমকেতুতে
পানগুছি নদীর ভাঙনে রাস্তাসহ দুই একর জমি বিলীন


৪ ঘণ্টা পর তুরাগে উদ্ধার অভিযান শুরু
বাড্ডায় গণপিটুনিতে নারী হত্যার ঘটনায় আটক ৩
নদে ট্যাক্সিক্যাব, ৩ ঘণ্টায়ও শুরু হয়নি উদ্ধারকাজ 
শাহজালালে ইয়াবা পাচারকালে নারীসহ আটক ২
বেনাপোল ইমিগ্রেশনে ছিনতাইকারী আটক