ওয়েব হোস্টিং উন্নয়নে রাজধানীতে সামিট

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

দেশের ৩০টিরও বেশি শীর্ষ কোম্পানি ওয়েব হোস্টিং ইন্ডাস্ট্রি সামিটে অংশ নেয়। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: দেশের ওয়েব হোস্টিং উন্নয়নের লক্ষ্যে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়েছে ওয়েব হোস্টিং ইন্ডাস্ট্রি সামিট-২০১৯। 

php glass

বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর একটি হোটেলে এ সামিট হয়। দেশের ৩০টিরও বেশি শীর্ষ কোম্পানি এই আয়োজনে অংশ নেয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) প্রেসিডেন্ট আলমাস কবির। বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী তথ্যপ্রযুক্তিবিদ এবং সিনারিস ওয়েব সার্ভিসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আবু সুফিয়ান হায়দার। 

দেশের শীর্ষ ওয়েব হোস্টিং কোম্পানিগুলোর মধ্যে পারস্পরিক সু-সম্পর্ক এবং সমঝোতা বাড়ানোর মাধ্যমে ওয়েব হোস্টিং ইন্ডাস্ট্রির সামগ্রিক উন্নয়নে আয়োজিত এ অনুষ্ঠান ছিল তৃতীয় ওয়েব হোস্টিং ইন্ডাস্ট্রি সামিট। এ বছরের আয়োজনে ছিল বাংলাদেশের অন্যতম ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি আলফা নেট। তাদের সহযোগী সংগঠন হিসেবে ছিল যেওন বিডি, ঢাকা ওয়েব হোস্ট লিমিটেড এবং ওয়েব হোস্ট বিডি।

সামিটটিতে বর্তমানে দেশের ওয়েব হোস্টিংয়ের সামগ্রিক পরিস্থিতি, বিবিধ সমস্যা এবং সম্ভাব্য সমাধান নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন অংশগ্রহণকারীরা।

প্রধান অতিথি আলমাস কবির সমস্যাগুলোর সমাধান নিয়ে বক্তব্য রাখেন। তিনি ওয়েব হোস্টিং ইন্ডাস্ট্রির সামগ্রিক উন্নয়নে বেসিসের সর্বাত্মক সহায়তার প্রতিশ্রুতিও দেন। 

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আলফা নেটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) একরামুল হায়দার। আড়ম্বরপূর্ণ মধ্যাহ্ন ভোজনের মাধ্যমে ওয়েব হোস্টিং সামিটের সমাপ্তি হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৯
এইচএ/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: আইসিটি
লক্ষ্মীপুরে ৩টিতে স্বতন্ত্র, ২টিতে আ'লীগ জয়ী
ঝালকাঠির ৪ উপ‌জেলায় নৌকার প্রার্থী জয়ী
গোপালগঞ্জের ৫ উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা
ফিঞ্চের টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে অস্ট্রেলিয়ার দাপুটে জয়
ইতিহাসের জঘন্যতম নৃশংসতার ভয়াল ২৫ মার্চ


কক্সবাজারে চারটিতে স্বতন্ত্র, একটিতে নৌকার প্রার্থী জয়ী
পন্তের ব্যাটে দিল্লির শুভ সূচনা
ওয়ানডের পর টি-টোয়েন্টিতেও ধবলধোলাই শ্রীলঙ্কা
বরিশালের ৯ উপজেলায় চেয়ারম্যান হলেন যারা
মসজিদ হামলায় হতাহতদের পরিবারের তহবিলে ৭৪ লাখ ডলার