চৌ-রাস্তার যানজট কমাবে ‘আনব্রেকেবল রোড’

ইসমাইল হোসেন, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

‘আনব্রেকেবল রোড’ এর মডেল নিয়ে শিক্ষার্থীরা/ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: চার রাস্তার মোড়ে ট্রাফিক সিগন্যালে দীর্ঘ গাড়ির সারি। দু’দিকে গাড়ি চলছে তো অপর দু’দিক বন্ধ। অফিসগামী কিংবা ঘরমুখো মানুষের নাভিশ্বাস। মহানগরীর চার রাস্তার মোড়গুলোতে এ চিত্র নৈমিত্তিক। যানজটের এ সমস্যা থেকে মুক্তির উপায় খুঁজে বের করেছেন ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইনস্টিটউটের একদল শিক্ষার্থী।

তাদের উদ্ভাবিত পদ্ধতিতে চার রাস্তার মোড়ে একই সঙ্গে চারদিকের যান চলাচল সচল থাকবে। ‘আনব্রেকেবল রোড’ ব্যবহারের মাধ্যমে ঢাকার মতো স্থানেও চার রাস্তার মোড়ের যানজট এড়িয়ে চলাচল সম্ভব বলে দাবি তাদের। 
 
রাজধানীর সোবহানবাগে ড্যাফোডিল টাওয়ারে দু’দিনব্যাপী ইনোভেটিভ টিচিং অ্যান্ড লার্নিং এক্সপো’তে স্থান পেয়েছে ইনস্টিটউটের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের এই মডেল।
 
মডেলটিতে দেখা যায়, প্রধান সড়কের উপর একটি ওভারব্রিজ ব্যবহার করা হয়েছে। ওভারব্রিজের নিচে ডানে বা বামে মোড় নিতে ব্যবহার হয়েছে অপর দু’টি ছোট ব্রিজ। আবার চার রাস্তার মোড় ঘুরতে ব্যবহার করা হবে দু’টি আন্ডারপাস।
 
‘আনব্রেকেবল রোড’ এর উদ্ভাবকদের একজন মঞ্জিলা আক্তার বাংলানিউজকে বলেন, চার রাস্তার মোড়ের সিগন্যালে দু’দিকে চালু তো অপর দু’দিকে রাস্তা বন্ধ থাকে। কিন্তু আমাদের পদ্ধতিতে কোনো সিগন্যালের প্রয়োজন পড়বে না। সিগন্যাল এড়িয়ে যে যার পথে দ্রুত যেতে পারবে।
 
তিনি বলেন, রাস্তায় বের হওয়ার পর যানজটে পড়তেই হয়। প্রধানত চার রাস্তার মোড়ের কারণে যানজট তৈরি হয়। কারণ একদিকে গাড়ি বন্ধ করে আরেক দিকের গাড়ি ছাড়তে হয়। যানজটের ধকল থেকে মুক্তি পেতে এই প্রকল্পের চিন্তা মাথায় এসেছে। এটা চালু থাকলে কোনো দিকে গাড়ি বন্ধ ধাকবে না।
 
‘যে কোনো চার রাস্তার জন্য একটি আদর্শ মডেল। যে কোনো চার রাস্তার মোড়ে এই পদ্ধতি ব্যবহার করা যাবে।’
 
ঢাকায়ও এটা করা যেতে পারে দাবি করে শিক্ষার্থীরা জানান, আশপাশের বেজমেন্ট দেখে উচ্চতা মেজারমেন্ট করা যাবে। কার্যকর করা হলে অবশ্যই যানজট মুক্ত করা যাবে।
 
বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবনীমূলক কার্যক্রম নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ শুক্রবার এক্সপোর উদ্বোধন করেন। এক্সপোতে আসা দর্শনার্থীদের দেখানো হচ্ছে কীভাবে যানবাহনগুলো যানজটহীন চলে যাচ্ছে যে যার পথে।
 
ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইনস্টিটউটের তৃতীয়বর্ষের আর্কিটেকচার অ্যান্ড ইন্টেরিয়র ডিজাইনের তৃতীয় বর্ষের সাতজন মিলে এই প্রকল্প নিয়ে এসেছেন।
 
অপর শিক্ষার্থীরা হলেন- জাকিয়া আফরিন, নদী, শুভমনি, শান্ত, নাইমুল নাইম ও আকাশ।
 
বাংলাদেশ সময়: ০৭৩০ ঘণ্টা, আগস্ট ২৬, ২০১৭
এমআইএইচ/এএ

চৌদ্দগ্রামে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৬
চট্টগ্রামে আগুনে পুড়ে ৮ জনের মৃত্যু
খাশোগি হত্যায় সব তথ্য এখনো প্রকাশ করেনি তুর্কি
ইউএনওর তৎপরতায় রক্ষা পেলো এক পরিবার
সয়াবিন চাষে বাড়ে জমির উর্বরতা, কমে সারের ব্যবহার


চা বাগানে এখন কুঁড়ির অপেক্ষা
খুলনায় নলকূপে উঠছে না পানি!
ইউরোপীয় আ’লীগের সভাপতি নজরুল, সম্পাদক মুজিব
পেনাল্টি মিস করেও জয়ের নায়ক মেসি
কবিরহাটে ইয়াবাসহ আটক ২