ইভেন্ট আপডেট :

আজ থেকে ‘সিটিআইটি’ প্রদর্শনী শুরু

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকার আগারগাঁওস্থ বিসিএস কমপিউটার সিটিতে ১৩ জানুয়ারি শুরু হচ্ছে ডিজিটাল পণ্যকেন্দ্রিক দেশের অন্যতম বৃহৎ কমপিউটার প্রদর্শনী। বিসিএস নির্বাহী কমিটি এ তথ্য জানিয়েছে।

php glass

ঢাকার আগারগাঁওয়ে অবস্থিত বিসিএস কমপিউটার সিটিতে ১৩ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে সপ্তাহব্যাপী ডিজিটাল পণ্যকেন্দ্রিক দেশের অন্যতম বৃহৎ কমপিউটার প্রদর্শনী। বিসিএস নির্বাহী কমিটি সাংবাদিক সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

এ প্রদর্শনীর ভেন্যু আগারগাঁওস্থ বিসিএস কমপিউটার সিটি। এরই মধ্যে বৃহৎ এ প্রদর্শনী সফল করতে সব ধরনের প্রস্তুতি চূড়ান্ত করা হয়েছে। আয়োজক কমিটির পক্ষে বাংলানিউজকে এ কথা জানান এএল মজহার ইমাম চৌধুরি পিনু।

‘ডিজিটাল লাইফ, বেটার লাইফ’ স্লোগানে অনুষ্ঠিতব্য ১০ দিনব্যাপী এ প্রদর্শনীর বিষয় নিয়ে ১১ জানুয়ারি জাতীয় প্রেসকাবে সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

এ সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিটিআইটি কমিটির সভাপতি এটি শফিক উদ্দিন আহমেদ, বাংলালায়ন কমিউনিকেশনের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা আব্রাহাম কায়কোবাদ, সিটিআইটির নির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী সামছুদ্দিন আহমেদ লাভলু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এএনএম কামরুজ্জামান, কোষাধ্যক্ষ জয়নুল আবেদীন, সমাজকল্যাণ সম্পাদক একেএম মাহমুদুল হাসান খান টিটু ছাড়াও নির্বাহী কমিটির সদস্য এবং পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠানের শীর্ষস্থানীয় প্রতিনিধিরা।

উল্লেখ্য, সপ্তাহব্যাপী এ প্রদর্শনীতে ডেস্কটপ, ল্যাপটপ, নোটবুক, নেটবুক, হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার এবং বিনোদনভিত্তিক ডিজিটাল পণ্য এবং সেবাকেন্দ্রিক সব প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করবে।

এরই মধ্যে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের নিজস্ব অফার প্রস্তুত করতে শুরু করেছেন। নতুন বছরের শুরুতেই অনেকগুলো নতুন পণ্য দেশের বাজারে প্রবেশ করতে যাচ্ছে বলে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানের পক্ষে বাংলানিউজকে জানানো হয়।

এবারের ‘সিটিআইটি ২০১১’ প্রদর্শনীর আহ্বায়ক এএল মজহার ইমাম চৌধুরি পিন বাংলানিউজকে বলেন, ১০ দিনব্যাপী কমপিউটার পণ্যভিত্তিক প্রদর্শনীতে দর্শনার্থীদের জন্য থাকছে আকর্ষনীয় সব আয়োজন আর অফার। তবে এবারে প্রতিযোগিতামূলক আয়ো‍জনই থাকবে বেশি।

সিটিআইটি প্রদর্শনীতে ১৬০টি স্থায়ী তথ্যপ্রযুক্তি পণ্য বিপণনকারী প্রতিষ্ঠান বিশেষ মূল্যছাড় এবং আকর্ষণীয় উপহারসহ সফটওয়্যার, হার্ডওয়্যার, নেটবুক, নোটবুক এবং ল্যাপটপ বিক্রির উদ্যোগ নিয়েছে।

এবারের আসরে দর্শনার্থীদের জন্য প্রতিযোগিতামূলক আয়োজন বেশি। এর মধ্যে শিশু চিত্রাঙ্কন, গেমিং, ডিজিটাল ফটোগ্রাফী, বিতর্ক, কুইজ এবং রক্তদান কর্মসূচি অন্যতম। আর প্রতিদিনের প্রবেশ টিকেটের উপর র‌্যাফেল ড্র এর মাধ্যমে দেওয়া হবে আকর্ষণীয় সব পুরস্কার।

এ প্রদর্শনী ২২ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে। ওয়াইম্যাক্স প্রযুক্তির সহায়তায় প্রাঙ্গনজুড়ে ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগ পাওয়া যাবে। পুরো প্রাঙ্গণজুড়ে থাকবে ওয়াইম্যাক্স জোন এবং দর্শনার্থীরা তা বিনামূল্যে তা ব্যবহার করতে পারবেন।

এ প্রদর্শনী প্রতিদিন সকাল ১০টায় শুরু হয়ে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে। প্রবেশমূল্য ২০ টাকা। এবারও শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে প্রবেশের সুযোগ পাবেন।

এবারের প্রদর্শনীর প্ল্যাটিনাম স্পন্সর ওয়াইম্যাক্স ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বাংলালায়ন কমিউনিকেশন লিমিটেড। গোল্ড স্পন্সর ক্যাসপারস্কি, লাইটঅন, স্যামসাং এবং তোশিবা। আগ্রহীরা www.bcscomputercity.org.bd এ সাইটে প্রয়োজনীয় তথ্য পাবেন।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ১৭১২, জানুয়ারি ১১, ২০১১

চুয়াডাঙ্গায় ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করলো বড় ভাই
দিল্লিকে হারিয়ে চেন্নাই’র জয়
বিশ্বখ্যাত স্থপতি এফআর খানের প্রয়াণ
রাজশাহীতে পর্দা নামলো আন্তর্জাতিক সাংস্কৃতিক উৎসবের
বরগুনায় ৯ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ


মুক্তিযোদ্ধাদের আঙুলের ছাপ নিয়ে ডকুমেন্টারি
আবৃত্তি-গান-নাটকে স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত
লোকসভায় প্রার্থী হলেন প্রজ্ঞা
রাজধানীতে ‘থাই ট্রেড ফেয়ার’ শুরু বুধবার
আবারো ত্রিপুরায় যাচ্ছেন মোদী-অমিত শাহ