হট বিটস :

জুকারবার্গের কণ্ঠে ফেসবুক বন্ধের ঘোষণা!

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিশ্বের কোটি কোটি ব্যবহারকারীর চাপে দারুণ বিপাকে এখন ফেসবুক। আর তাই ফেসবুক বন্ধের অনানুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছে সাইটটির প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ।

php glass

বিশ্বের কোটি কোটি ব্যবহারকারীর চাপে দারুণ বিপাকে এখন ফেসবুক। আর তাই ফেসবুক বন্ধের অনানুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছে সাইটটির প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ।

ফলে ২০১১ সালের ১৫ মার্চ থেকে বন্ধ হয়ে যেতে পারে ফেসবুক। সংবাদমাধ্যম সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

জুকারবার্গ সাংবাদিক সম্মেলনে জানান, দিন দিন ফেসবুক ব্যবস্থাপনা জটিল হয়ে পড়ছে। অনেকটা নিয়ন্ত্রণের বাইরেই চলে যাচ্ছে। এর পরিচালনায় হিমশিম খেতে হচ্ছে। এ চাপ তার পক্ষে সামাল দিয়ে ওঠা সহজ নয়। ফলে তিনি ফেসবুক পরিচালনায় যুক্তিতর্কের মাধ্যমেই অনীহা প্রকাশ করেছেন।

তার ভাষ্যমতে, ১৫ মার্চ থেকে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা তাদের অ্যাকাউন্টে প্রবেশের সুযোগ আর নাও পেতে পারেন। ফেসবুক বন্ধ হওয়াটা নিঃসন্দেহে কষ্টদায়ক, মর্মাহত। তারপরও হয়তো নেতিবাচক সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত ঘোষণা আকারে আসতে পারে বলে তিনি ইঙ্গিত করেন।

অতিগোপনীয় ব্যক্তিগত ফোনভিত্তিক আলোচনায় তিনি জানান, ফেসবুক বন্ধ। এটা কোনো বড় বিষয় নয়। আমার বিশ্বাস এটি বন্ধ হলেও বন্ধুত্বের বন্ধন বিচ্ছিন্ন হবে না।

এ প্রসঙ্গে ফেসবুকের কারিগরি বিভাগের সহসভাপতি আভরাট হামরাতি জানান, স্থায়ীভাবে ১৫ মার্চ থেকে ফেসবুক বন্ধের ঘোষণা আসতে পারে। এর আগে ব্যবহারকারীরা তাদের ছবি দেখতে এবং সংগ্রহ করার সুযোগ পাবেন। উল্লেখ্য, তবে ফেসবুক বন্ধ হয়ে গেলে এ সুযোগ আর পাওয়া যাবে না।

ইন্টারনেটভিত্তিক বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান ফেসবুক পরিচালনায় জুকারবার্গকে আর্থিক সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দিলে তিনি তা তাৎক্ষণিক নাকচ করে দেন। জুকারবার্গ জানান, আর্থিক বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ নয়। এ প্রতিষ্ঠান ব্যবস্থাপনায় জীবন জটিল হয়ে উঠেছে। তাই তিনি সাধারণ জীবনে ফিরে যেতে চান।

তবে ফেসবুক বন্ধের সংবাদে অভিভাবকদের মনে বইছে প্রশান্তির সুবাতাস। তাদের মতে, ফেসবুকের কারণে শিক্ষার্থীরা পড়ালেখায় নিয়মিত ফাঁকি দিতে শুরু করেছে। বন্ধের পর শিক্ষার্থীরা অন্তত ফেসবুক নেশা থেকে মুক্তি পাবে।

অন্য একটি সংবাদমাধ্যম সূত্র জানিয়েছে, ফেসবুক করপোরেশন ১৫ মার্চের আগেই ব্যবহারকারীদের নিজ নিজ অ্যাকাউন্ট থেকে সব তথ্য, ছবি এবং ভিডিওচিত্র মুছে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০০৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে যাত্রা শুরু করে ফেসবুক। এ মুহূর্তে সামাজিক যোগাযোগের এ সাইটটির ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৫০ কোটি ছাড়িয়ে গেছে।

অন্যদিকে পশ্চিমা সংবাদমাধ্যম সূত্রগুলো জানিয়েছে, ফেসবুক কখনই বন্ধ হবে না। এ সাইটের মানোন্নয়নের কারণে সাময়িকভাবে ব্যবহারকারীরা ক’দিন প্রতিবন্ধকতার মুখে পড়তে পারেন।

সব মিলিয়ে পরিস্থিত সম্পর্কে বিশ্লেষকরা বলছেন, জুকারবার্গ তার পুরনো সহজ সরল জীবনে ফিরে যেতে চান। এ ইচ্ছাকেই পুঁজি করে অনেক সংবাদমাধ্যম ফেসবুক বন্ধ নিয়ে নানা ধরনের তথ্যপ্রকাশ করছে। তবে এর সত্যতা যাচাইয়ের জন্য মার্চ পর্যন্ত অপেক্ষা করার পরামর্শ দিয়েছেন।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ১৮১৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৯, ২০১০

মাইগ্রেনের ব্যথায় 
সড়কে নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলবে ১৪ দল
এক্সিম ব্যাংকের কুমিল্লা অঞ্চলের গ্রাহক সমাবেশ 
বিআরটিএ’র বিভিন্ন পদে নিয়োগ
আফগানিস্তানে জোড়া বোমা হামলায় নিহত ৪


খাল দখল করে ভবন নির্মাণ করায় দণ্ড
মানবাধিকার সমুন্নত করতে সরকার কাজ করছে
সিরিয়ায় আইএসের ‘খেলাফতের সমাপ্তি’ ঘোষণা
মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ কংগ্রেসের
মুকসুদপুরে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু