ঢাকা, সোমবার, ৪ মাঘ ১৪২৭, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

ভারত

ত্রিপুরায় করোনার টিকা কর্মসূচির মহড়া

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৫৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২, ২০২১
ত্রিপুরায় করোনার টিকা কর্মসূচির মহড়া

আগরতলা (ত্রিপুরা): প্রথম পর্যায়ে ত্রিপুরা রাজ্যের ৪৫ হাজার স্বাস্থ্যকর্মীকে করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক দেওয়া হবে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন জাতীয় স্বাস্থ্য মিশন ত্রিপুরার কর্মকর্তা ডা. এস জসওয়াল।

টিকাকরণ কর্মসূচি সঠিকভাবে সম্পন্ন করতে ইতোমধ্যে প্রাথমিক পর্যায়ে ১৮০ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

প্রথম পর্যায়ে স্বাস্থ্য দপ্তরের বিভিন্ন স্তরের কর্মীদের টিকা দেওয়ার কাজ শেষ হলে দ্বিতীয় পর্যায়ে নিরাপত্তারক্ষী, সশস্ত্র বাহিনী, পুলিশ এবং নিরাপত্তার সঙ্গে জড়িত সদস্যদের করোনার টিকা দেওয়া হবে।

প্রাথমিকভাবে মোট তিনটি কেন্দ্রে মহড়া অনুষ্ঠিত হলেও টিকা দেওয়ার জন্য ত্রিপুরা রাজ্যের মোট ২১৯টি জায়গাকে চিহ্নিত করা হয়েছে। করোনা ভাইরাসের টিকা সংরক্ষণ করার জন্য ভারত সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ত্রিপুরা সরকারের স্বাস্থ্য দপ্তরকে মোট ১১০টি বিশেষ ধরনের রেফ্রিজারেটর পাঠাচ্ছে। এগুলি আগামী ১০ জানুয়ারির মধ্যে ত্রিপুরা রাজ্যে এসে পড়বে বলেও জানান ডা. জসওয়াল।

শনিবার (২ জানুয়ারি) ত্রিপুরার পশ্চিম জেলার তিনটি জায়গায় মহড়া অনুষ্ঠিত হয়। জায়গাগুলি হলো—আগরতলার আইজিএম হাসপাতাল, গান্ধীগ্রাম প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং বোরাখা প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র।

এদিন মহড়ার নমুনা জার আগরতলা জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের ত্রিপুরা সেন্টার স্টোরেজ থেকে করোনার টিকা ওই তিন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। স্টোরেজ থেকে টিকাকরণ কেন্দ্র পর্যন্ত মহড়ার নমুনা জার নিয়ে যাওয়ার জন্য ২৫ জন করে স্বাস্থ্যকর্মী ছিলেন এক একটি টিমে।

তবে মহড়ায় করোনার টিকা ছিল না। কীভাবে টিকা এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নিরাপদে নিয়ে যেতে হবে, কীভাবে সংরক্ষণ করতে হবে সেই মহড়া অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০২, ২০২১
এসসিএন/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa