php glass

ঈদের ছুটিতে ঘুরে আসুন শাহ মেরিন রিসোর্টে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

শাহ মেরিন রিসোর্ট। ছবি: বাংলানিউজ

walton

ঢাকা: ঢাকা ও মানিকগঞ্জ এবং এর আশেপাশে যারা এবার ঈদ কাটাচ্ছেন, তারা এই ছুটিতে বেড়িয়ে আসতে পারেন শাহ মেরিন রিসোর্ট থেকে। ধলেশ্বরী নদীর কোলঘেঁষে গড়ে ওঠা এই রিসোর্টটিতে অতিথিদের জন্য ঈদের তিন দিনই থাকছে নানান সব আকর্ষণীয় আয়োজন।  

ঢাকার আমিনবাজার ব্রিজ থেকে মাত্র ১৩ কিলোমিটার দূরে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার রিসোর্টটিতে ঈদের দিন সকালেই থাকছে কয়েক পদের সেমাই ও পায়েস। এছাড়া সকালের নাস্তায় থাকছে দেশি ও বিদেশি খাবার। দুপুরে থাকছে দেশি এবং চাইনিজ খাবারের আয়োজন। রাতের খাবারের আগে সন্ধ্যায় থাকছে আকর্ষণীয় বার-বি-কিউ আয়োজন। এছাড়া ট্রলারে করে ধলেশ্বরীর বুকে ঘুরে বেড়ানোসহ সুইমিং পুলে অতিথিরা সাঁতার কাটতে পারবেন ইচ্ছেমতো সময়।

রিসোর্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, যারা এবার ঢাকায় ঈদ উদযাপন করছেন তাদের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়েই ঈদ আয়োজনের নানান উপাদান রাখা হয়েছে রিসোর্টটিতে। যারা গ্রামের বাড়িতে যেতে পারেননি অথবা যারা ঢাকায়ই স্থায়ীভাবে বসবাস করে আসছেন, তাদের একটি ঘরোয়া আয়োজনের স্বাদ দেওয়ার প্রচেষ্টা থাকবে রিসোর্টের পক্ষ থেকে।শাহ মেরিন রিসোর্ট। ছবি: বাংলানিউজপ্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহ মোমিন বাংলানিউজকে বলেন, ঈদের ব্যাপারটাই হচ্ছে ঘরোয়া একটা পরিবেশের আয়োজন। এমন অনেকেই আছেন যারা পেশাগত কারণে অথবা যানবাহনের টিকিট না পেয়ে এবার ঢাকায় ঈদ করছেন, তাদের সেই ঘরোয়া পরিবেশের আমেজটাই আমরা দিতে চাইছি। যেমন দিনের শুরুতেই অতিথিদের জন্য আমাদের পক্ষ থেকে থাকছে বাংলার ঐতিহ্য ও প্রথাগত সেমাই ও ফিরনি-পায়েসের আপ্যায়ন পর্ব। দুপুর এবং রাতের খাবার মেন্যুতেও অন্যান্য আইটেমের সঙ্গে থাকছে বাংলা খাবারের নানান পদ। এছাড়া হালের ট্রেন্ড বার-বি-কিউ ও থাকছে আমাদের আয়োজনে।
 
সব অতিথি রিসোর্টে ছুটির দিনগুলোতে দারুণ কিছু সময় উপভোগ করতে পারবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন শাহ মেরিন রিসোর্টের এই কর্ণধার। তিনি বলেন, আমাদের ঢাকাবাসীদের একটি কঠিন বাস্তবতা আছে আর সেটি হচ্ছে, একে অপরের সঙ্গে সামাজিক দূরত্ব বেড়ে যাওয়া। ফ্ল্যাট বাসাগুলোতে একই ভবনে অনেক পরিবার দীর্ঘদিন থাকলেও অনেকেই আছেন যারা একে অপরের সঙ্গে কোনোদিন কথাও বলেননি। ঈদের সময়ে এই মানুষগুলো খুব দলছুট অবস্থায় থাকেন। আবার কোথাও ঘুরতে গেলে সড়কের জ্যাম, সময় এবং দূরত্ব বিবেচনায় রাখতে হয়। আমাদের আয়োজনটি রিসোর্টে আসা অতিথিদের সবার জন্য। ঢাকা থেকে খুবই কাছে, কোলাহলমুক্ত এবং সম্পূর্ণ প্রকৃতির মাঝে আমাদের রিসোর্টটি। তাই সবাই মিলিয়ে অতিথিদের সুন্দর কিছু সময় কাটবে এবং দারুণ কিছু মুহূর্তের স্মৃতি নিয়ে তারা বাসায় ফিরবেন বলে আমাদের প্রত্যাশা।
 
সাধারণ সময়ে ফ্রি গাড়ি পার্কিং এবং শীতাতাপ নিয়ন্ত্রিত (এসি) রুমসহ একদিনের জন্য রিসোর্টের এসব আয়োজনে অংশ নিতে একেকজনের খরচ হয় তিন হাজার টাকা। তবে ঈদ উপলক্ষে রিসোর্টের পক্ষ থেকে দেওয়া ১৫ শতাংশ মূল্যছাড়ে প্রতিজনের জন্য খরচ হবে দুই হাজার ৫৫০টাকা।
 
এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত জানা যাবে শাহ মেরিন রিসোর্টের ফেসবুক পেইজে- https://www.facebook.com/smrresort/
 
বাংলাদেশ সময়: ১৯৩২ ঘণ্টা, জুন ০৪, ২০১৯
এসএইচএস/এইচএ/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: পর্যটন
মানিকগঞ্জে কলেজ ছাত্রীর মৃত্যু
ঢাকার নতুন ফরাসি রাষ্ট্রদূত জ্যঁ-ম্যারি শু
হাইটেক সিটিতে বায়ো-টেকনোলজি নিয়ে কাজ করবে ওরিক্স
সাভারে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রাইভেটকার নদে, হতাহতের শঙ্কা
‘কর্নেল তাহের দেশপ্রেমিক, জিয়া বিশ্বাসঘাতক’


ছাগলনাইয়ায় ২ মরদেহ উদ্ধার
নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ ও বিআরটিসিতে নতুন চেয়ারম্যান
প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার ধুমপানের ছবি ভাইরাল
ছোট ফেনী নদীতে কৃষক নিখোঁজ
কোরবানির বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় ফ্রি ব্যাগ, ৪ লাখ লিফলেট