php glass

ওল্ডহামে অমর একুশে উদযাপিত

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

মহান একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর ইউনেস্কো কর্তৃক এই স্বীকৃতির পর থেকে শুধু বাঙ্গালি জাতি-গোষ্ঠী নয়, পুরো বিশ্ববাসী এই দিনটিকে পালন করে মাতৃভাষার অধিকার রক্ষার দিন হিসেবে।

ম্যানচেস্টার : মহান একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর ইউনেস্কো কর্তৃক এই স্বীকৃতির পর থেকে শুধু বাঙ্গালি জাতি-গোষ্ঠী নয়, পুরো বিশ্ববাসী এই দিনটিকে পালন করে মাতৃভাষার অধিকার রক্ষার দিন হিসেবে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা বাংলাদেশিরা তাদের স্থানীয় সময় অনুসরণ করে বিনম্র শ্রদ্ধায় পালন করে থাকেন অমর একুশে কিংবা শহীদ দিবস।

যুক্তরাজ্যের ওল্ডহাম শহরে নির্মিত দেশের বাইরে প্রথম স্থায়ী শহীদ মিনারে একুশের প্রথম প্রহরে প্রায় সহস্রাধিক ব্রিটিশ-বাংলাদেশি সশ্রদ্ধ চিত্তে শহীদ মিনারের বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

নর্থ-ওয়েস্টের ম্যানচেস্টার, ওল্ডহাম, হাইড, রচডেল, টেইমসাইড, লিভারপুল এবং অ্যাস্টনসহ আশপাশের বিভিন্ন শহর থেকে রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন নিজস্ব ব্যানার ও ফুলের তোড়া নিয়ে রাত ১২টার আগেই শহীদ মিনার চত্বরে এসে হাজির হন।

ম্যানচেস্টারে নিযুক্ত বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনের সহকারী হাইকমিশনার জকি আহাদ সস্ত্রীক ও প্রথম সচিব অহিদুর রহমান টিপু রাত ১২টা ১ মিনিটে শহীদ বেদীতে ফুলের তোড়া দিয়ে শহীদদের শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এরপর একে একে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন শাখা, বিএনপির বিভিন্ন শাখা, কমিউনিস্ট পার্টি এবং অনেক সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ফুলের তোড়া দিয়ে শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

তাছাড়াও নর্থ-ওয়েস্ট বাংলা প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন মিডিয়া বিশেষ করে প্রবাসবাংলা, স্পাইস সিটি কারী জর্নাল, জনসেবা ও কাগজ পত্রিকার পক্ষ থেকেও শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

সহকারী হাইকমিশনার আবেগাপ্লুত কণ্ঠে তার অভিমত ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, ‘এত মানুষের উপস্থিতি দেখে আমার বিশ্বাসই হচ্ছে না যে বিদেশের মাটিতে কোনো শহীদ মিনারে ফুল দিতে এসেছি।’

ম্যানচেস্টার আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মীর গোলাম মোস্তফা বলেন, ‘প্রতি বছরই একুশে ফেব্রুয়ারিতে আমরা এই ঐতিহাসিক শহীদ মিনারে আসি বীর শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে।’ তবে তিনি অব্যবস্থাপনা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

দেশের বাইরে নির্মিত প্রথম স্থায়ী শহীদ মিনারটিতে ফুল দিতে দূর-দূরান্তর থেকে অনেকে একুশের প্রথম প্রহরে এখানে আসেন ৫২‘র ভাষা আন্দোলনে আত্মদানকারী বীর শহীদদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন এবং দেশ থেকে হাজার হাজার মাইল দূরে থাকলেও  নিজের বাঙ্গালিত্বকে যে বিসর্জন দেওয়া যায় না তা জানান দিতেই। কিন্তু এখানে এসে বিশৃঙ্খলার চিত্র দেখে অনেকেই হতাশ হয়ে ফিরে যান।

অনেকেই মনে করেন ঐতিহাসিক, দেশের বাইরে নির্মিত প্রথম শহীদ মিনারটিতে একুশে উদযাপন যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সুন্দর ও সুশৃঙ্খল ভাবে হওয়া উচিত।

এটিএন বাংলা (ইউকে), স্থানীয় জেটিভি নামক একটি টিভি স্টেশনের মাধ্যমে ওল্ডহামের শহীদ মিনার থেকে একুশের এই অনুষ্ঠান ইউরোপের দর্শকদের জন্য এবারই প্রথম সরাসরি সম্প্রচার করে।

একুশের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে বিলেতের গ্রেটার ম্যানচেষ্টারে বসবাসরত বৃটিশ-বাংলাদেশিরা স্ব স্ব ক্ষেত্রে সুপ্রতিষ্ঠিত হয়ে বিশ্ব দরবারে বাঙ্গালি জাতির সুনাম বৃদ্ধি করবে এই প্রেরণাই যেন নিয়ে গেলেন ওল্ডহামের ঐতিহাসিক শহীদ মিনারে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এসে।

বাংলাদেশ সময় : ১০২৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১২

আসছে শীত, বাড়ছে খেজুরগাছের পরিচর্যা
ছোটপর্দায় আজকের খেলা
৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা, বখাটে আটক
মানহীন ইনসুলিনে ঝুঁকিতে রোগীরা
ভৈরবে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় পথচারীর মৃত্যু


১৫ নভেম্বর পর্যন্ত দিল্লির সব স্কুল বন্ধ ঘোষণা
বানিয়াচংয়ে ফজলু হত্যার ঘটনায় আরেকজন গ্রেফতার
বগুড়ায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগে পান ব্যবসায়ী আটক
বেনাপোলে রজনী ক্লিনিকে অবহেলায় নবজাতক মৃত্যুর অভিযোগ
পটুয়াখালীতে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী দুইজনের বিবাহ দিলো প্রশাসন