নাইকো চুক্তিতে হওয়া ক্ষতির দাবি তুলবে সরকার

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ/ছবি: দীপু

walton

ঢাকা: কানাডিয়ান আন্তর্জাতিক কোম্পানি নাইকোর সঙ্গে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে বাপেক্স ও পেট্রোবাংলার চুক্তি হওয়ার জেরে যে ক্ষতি হয়েছে তার দাবি তুলবে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়।

এ বিষয়ে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেছেন, ক্ষতিপূরণ আদায় করতে নাইকোর সম্পদগুলো খুঁজে দেখা হবে, তা দেশে হোক বা বিদেশে।

একটি রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে গ্যাস উত্তোলন ও সরবরাহের জন্য ২০০৩ সালে রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান বাপেক্সের সঙ্গে নাইকোর করা জয়েন্ট ভেনচার চুক্তি অবৈধ ঘোষণা করে বৃহস্পতিবার (২৪ আগস্ট) রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট।

রায়ের পর বিদ্যুৎ ভবনে প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, আমরা দীর্ঘ দিন চেষ্টা করছিলাম। তথ্য-প্রমাণগুলো মাঝপথে হারিয়ে গিয়েছিল। পরবর্তীতে কানাডিয়ান সরকারের কাছ থেকে তথ্য-প্রমাণগুলো এনেছি। তথ্য-প্রমাণের মধ্যে এফবিআই সরাসরি লিখিতভাবে সাক্ষী দিয়েছে।

খালেদা জিয়ার বড় ছেলে তারেক রহমানের বন্ধু গিয়াস উদ্দিন আল মামুনের ভিডিও সাক্ষী দেওয়া হয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, কীভাবে তারা দুর্নীতির সাথে যুক্ত হয়েছে তা হাইকোর্টে উপস্থাপন করি।

“সাক্ষী প্রমাণের ভিত্তিতে এবং নাইকোর স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে যে রায় পেলাম তার ভিত্তিতে সরকার গ্যাস ফিল্ড ফেরত পেলো। পরবর্তীতে আমরা এক্সিডের রায়ের জন্য অপেক্ষা করবো। এই রায়ের প্রভাব এক্সিডে অবশ্যই পড়বে। এক্সিডেও এভিডেন্স সাবমিশন করেছি। এক্সিড সময় নিয়েছে আমাদের এগুলো শোনার জন্য।”

প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশে যে ইতোমধ্যে গ্যাস ফিল্ডগুলো আছে, এ রায়ের হিসেবে আমরা এখনি সেগুলো ফেরত নিতে পারি। কিন্তু যে ক্ষতিটা বাংলাদেশের হয়ে গেছে, মাত্র চার মিলিয়ন ডলারের দুর্নীতিতে বিলিয়ন ডলারের ক্ষতি হয়ে গেছে।

“যে গ্যাসটা পেতাম সেই সময়ে, সেই গ্যাস দিয়ে যে পরিমাণ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট হতো, যে কস্ট অব অপারচুনিটি তৈরি হতো সেটা অবিশ্বাস্য, সেটা বিলিয়ন ডলারেও জাজ করা যায় না। কয়েক বিলিয়ন ডলার হবে। সেটা ক্ষতিপূরণ চাইলে, দেখতে হবে কীভাবে আদায় করতে পারবো।”

বিদেশেও নাইকোর বেশকিছু জায়গায় তাদের দুর্নীতি ধরা পড়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ ধরনের একটা দুর্নীতিবাজ কোম্পানিকে রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে সরাসরি কাজ দিয়ে দেশের এতো বড় ক্ষতি তারা করে গেছে। সেটা বাংলাদেশকে ভালোবাসে বা বাংলাদেশের পক্ষে কোনো দলের পক্ষে সম্ভব হতে পারে না।

“আমরা বলতে পারি, বিএনপি-জামায়াতের মতো দল দেশের জন্য যে কী পরিমাণ ক্ষতিকর। আমরা তাদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড দেখেছি। কিন্তু অর্থনৈতিকভাবে দেশকে পঙ্গু করার জন্য তারা যে দুর্নীতি করেছে এই ধরনের দলকে দিয়ে ভবিষতের বাংলাদেশকে পরিচয় করানো লজ্জাকর, বিদেশের মাটিতে এবং দেশের মাটিতে।”

বাংলাদেশে তাদের কী পরিমাণ সম্পদ আছে তা মূল্যায়ন করলে বোঝা যাবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

প্রতিমন্ত্রী জানান, নাইকো পরিচালিত ছাতক গ্যাস ফিল্ডের বিস্ফোরণে ওই এলাকার জনগণের স্বাস্থ্যহানি এবং গ্যাসফিল্ডটি ধ্বংস হয়ে গেছে। ভবিষতে আমাদের সতর্কবাণী, আমরা যেভাবেই কনডাক্টর নিয়োগ করি না কেন, যদি স্বচ্ছতা থাকতো তাহলে এ ধরনের অবস্থা তৈরি হতো না।

রায়ের ফলে ভাঙ্গুরা ৯ নম্বর ব্লকে নাইকোর চুক্তি বাতিল হয়ে গেছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সেখানে গ্যাস পাচ্ছি, পেমেন্ট বন্ধ করে দিয়েছি আগেই। এটা আমাদের জন্য আর একটি জোরালো অবস্থা তৈরি করলো।

‘দুর্নীতির মাধ্যমে যে ক্ষতিটা হয়েছে সেই ক্লেইমের দিকে আমরা যাবো। ক্লেইমগুলো কোথা থেকে আদায় করতে পারি তার অ্যাসেটগুলো ফাইন্ড আউট করবো। সারা বিশ্বে যেখানেই তাদের অ্যাসেট থাকুক না কেন, আমরা হাত দেব। ভাঙ্গুরায় যা আছে সেটা আমাদের। বিদেশেও অ্যাসেট থাকলে আমরা ক্লেইম প্রতিষ্ঠা করতে পারবো।’

এর আগে বিদ্যুৎ ভবনের বিজয় হলে অবকাঠামোখাতে সাইবার নিরাপত্তা নিয়ে এক সেমিনারে বক্তব্য রাখেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩০ ঘণ্টা, আগস্ট ২৪, ২০১৭
এমআইএইচ/জেডএম

হাসপাতালে রোগীর খাবার পৌঁছাতে এগিয়ে এলো পুলিশ
গোডাউন থেকে ২১ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধার
৪০০ পরিবহন শ্রমিককে খাবার দিলেন ফারাজ করিম
সার্কভুক্ত দেশের বাণিজ্য ক্ষতি পোষাতে ৫ সুপারিশ
ইসরায়েলে করোনা আক্রান্ত বেড়ে প্রায় ১০ হাজার, মৃত্যু ৭১


করোনা প্রতিরোধে দোষারোপ নয়, একযোগে কাজ করতে জাসদের আহ্বান
বিশ্বকাপ ফাইনালের ম্যাচসেরা অনুপ্রেরণা হিসেবে দেখছেন আকবর
গৃহহীনদের অস্থায়ী আবাসনের দাবি গণসংহতি আন্দোলনের
করোনায় আক্রান্ত মার্কিন রণতরী থিওডোর রুজভেল্টের ২৮৬ নাবিক
নেতাকর্মীদের মুক্তি দিতে সরকারকে ফখরুলের চিঠি