ঢাকা, শনিবার, ৩ মাঘ ১৪২৭, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

তরুণ প্রকৌশলীরাই আনবেন জ্বালানি শক্তির ইতিবাচক পরিবর্তন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯৫৪ ঘণ্টা, জুলাই ২৯, ২০১৭
তরুণ প্রকৌশলীরাই আনবেন জ্বালানি শক্তির ইতিবাচক পরিবর্তন সেমিনারে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ

ঢাকা: তরুণ প্রকৌশলীদের উদ্ভাবিত শক্তিই বাংলাদেশের জ্বালানি শক্তির ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটাবে। অর্থনৈতিক, বাণিজ্যিক, সামাজিক তথা সার্বিক উন্নয়নের পেছনে জ্বালানি শক্তির অবদান অপরিহার্য।

শনিবার (২৯ জুলাই) মিরপুর সেনানিবাসস্থ মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সাইন্স অ্যান্ড টেকনোলজির (এমআইএসটি) পেট্রোলিয়াম ও মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত এক সেমিনারে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এসব কথা বলেন।  

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সরকার ২০২১ সালের মধ্যে ২৪ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যে কাজ করছে।

এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে জ্বালানি শক্তি ও খনিজ সম্পদের ব্যবহার উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে।  

তিনি বলেন, বাংলাদেশ সরকারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বঙ্গোপসাগর এলাকায় নতুন সমুদ্র সীমানা নির্ধারণ করা হয়েছে। এই এলাকায় প্রাকৃতিক গ্যাসসহ নানা খনিজ সম্পদ থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। আমাদের পেট্রোলিয়াম ও মাইনিং প্রকৌশলীরা তাদের জ্ঞান ও মেধা প্রয়োগ করে এই সম্পদকে জ্বালানি খাতে ব্যবহারের উপযোগী করবেন বলে তিনি আশা করেন।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূ-তত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. বদরুল ইমাম এবং বাংলাদেশ সরকারের বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন পাওয়ার সেল অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসেন।

সেমিনারে এমআইএসটি-এর কমান্ড্যান্ট মেজর জেনারেল মো. আবুল খায়ের, এনডিসি, শিক্ষাবিদ, পেশাজীবী, জ্বালানী উদ্যোক্তা এবং ঊর্ধ্বতন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৪ ঘণ্টা, জুলাই ২৯, ২০১৭
ওএইচ/আরআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa