php glass

বিদ্যুৎ খাতে বিনিয়োগ করছে এস আলম গ্রুপ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
বিদ্যুৎ খাতে বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে এস আলম গ্রুপ। দেশি কোম্পানিটি চীনা কোম্পানির সঙ্গে যৌথ মালিকানায় চট্টগ্রামে ১২২৪ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের জন্য চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

ঢাকা: বিদ্যুৎ খাতে বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে এস আলম গ্রুপ। দেশি কোম্পানিটি চীনা কোম্পানির সঙ্গে যৌথ মালিকানায় চট্টগ্রামে ১২২৪ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের জন্য চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) ও এস‌ আলম গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান এসএস পাওয়ারের মধ্যে বিদ্যুৎ ক্রয় চুক্তি (পিপিএ) ও নির্মাণ চুক্তি (আইএ) সই করা হয়। এস আলম গ্রুপের পক্ষে চেয়ারম্যান সাইফুল আলম ও পিডিবির পক্ষে কোম্পানি সচিব মাজহারুল হক চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, বিদ্যুৎ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব  আহমেদ কায়কাউস, পিডিবির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান লোকমান হোসেন মিয়া, এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান সাইফুল আলম মাসুদ, পিডিবির সাবেক চেয়ারম্যান ও এস আলম গ্রুপের উপদেষ্টা এএসএম আলমগীর কবির প্রমুখ।

দুই দশমিক চার বিলিয়ন ডলারের এ প্রকল্পটির ৭৫ শতাংশ ঋণ দেবে চীন। যার পরিমাণ এক দশমিক ৭৩৯ বিলিয়ন ডলার। ২০১৩ সালের ৩১ অক্টোবর এস আলম গ্রুপ এ প্রকল্পটির জন্য বিদ্যুৎ বিভাগের অনুমোদন পায়। এর ২৭ মাস পর চুক্তি সম্পন্ন করা হলো। চুক্তি কার্যকরের দিন থেকে ৪৫ মাসের মধ্যে কেন্দ্রটি উৎপাদনে যাবে।

এস আলম গ্রুপ জানিয়েছে, ২০১৯ সালের ১৬ নভেম্বর বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু করতে পারবে। আগামী মাস (মার্চ) থেকে অবকাঠামো উন্নয়নে কাজ শুরু হবে। প্রকল্পের জন্য চট্টগ্রামের বাঁশখালীর গণ্ডামারা পশ্চিম বড়ঘোনায় ইতোমধ্যে  ৬০০ একর জমি কেনা হয়েছে।

প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের অনুমিত দর (লেভেলাইড ট্যারিফ) ধরা হয়েছে ৬ টাকা ৬১ পয়সা। উৎপাদন শুরুর পর প্রকল্প ব্যয় ও জ্বালানি মূল্যের ওপর নির্ভর করে এ দাম সমন্বয় করার সুযোগ রাখা হয়েছে। এস আলম গ্রুপের কাছে থাকছে ৭০ শতাংশ, আর চীনা কোম্পানি সেপকো’র কাছে থাকছে ২০ শতাংশ এবং  এইচটিজি ডেভলপমেন্টের হাতে থাকছে ১০ শতাংশ শেয়ার।

তৌফিক-ই-ইলাহী বলেন, বেসরকারি উদ্যোগে এটা বাংলাদেশের অন্যতম একটি বড় প্রকল্প হতে যাচ্ছে। আমাদের বেসরকারি খাত এখন আড়াই বিলিয়ন ডলারের প্রকল্প গ্রহণের সক্ষমতা অর্জন করেছে। অন্যান্য উদ্যোক্তরাও এতে উৎসাহিত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০২০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৬
এসআই/এএসআর

** ২০ হাজার কোটি টাকার বিদ্যুৎ কেন্দ্র এস আলম গ্রুপের

মায়ের ওপর অভিমান, রাজধানীতে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা
নোয়াখালীতে ট্রাক-অটোরিকশা সংঘর্ষে প্রাণ গেলো দু’জনের
প্রণব মুখার্জি-খান আতার জন্ম
খালেদার মুক্তির জন্য স্বেচ্ছায় কারাভোগে রাজি ফেনী বিএনপি
‘মাথাপিছু আয় ৬০০০ ডলারের আগেই সবার কাছে গাড়ি থাকবে’


দলের জন্য সবটুকু অভিজ্ঞতা ঢেলে দেবেন গিবস
কর দিতে হয়রানি হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা: অর্থমন্ত্রী
মিয়ানমারে গণহত্যার বিচার শুরু, সন্তুষ্ট রোহিঙ্গারা
বিশ্বসভ্যতার ইতিহাসই মানবাধিকার অর্জনের ইতিহাস
প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নানা আয়োজন সিএমপির