শুধু ক্রিকেট নয়, গোটা দেশের ইমেজ জড়িত

1624 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
দু’টি টেস্ট খেলতে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের সদস্যরা কয়েক ভাগে ভাগ হয়ে বাংলাদেশে আসার কথা ছিল। প্রথম দলটি রোববার ঢাকায় পৌছাবার সময়ও নির্ধারিত ছিল। শনিবার সন্ধ্যায় জানা গেল নির্ধারিত সময়ে আসছে না অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল।
php glass

দু’টি টেস্ট খেলতে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের সদস্যরা কয়েক ভাগে ভাগ হয়ে বাংলাদেশে আসার কথা ছিল। প্রথম দলটি রোববার ঢাকায় পৌছাবার সময়ও নির্ধারিত ছিল। শনিবার সন্ধ্যায় জানা গেল নির্ধারিত সময়ে আসছে না অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। সফর স্থগিত বা বাতিল হয় নাই। তবে কবে আসবে তাও বলতে পারছেন না কেউ।

নির্ধারিত সফর সূচি অনুযায়ী অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের না আসার কারণ কি ? নিরাপত্তাহীনতা! ক্যাঙ্গারুদের ওপর জঙ্গি হামলার আশংকার কথা জানালেন ক্রিকেট অষ্ট্রেলিয়ার সিইও। তাদের সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বাংলাদেশে সফরকারী দলের ওপর জঙ্গি হামলা হতে পারে। এ জন্য ক্রিকেট দল না পাঠিয়ে নিরাপত্তা কর্মকর্তা পাঠাচ্ছে তারা। নিরাপত্তা কর্মকর্তার প্রতিবেদনের ওপর নির্ভর করবে অষ্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল বাংলাদেশ সফর করবে কি না। আর করলে সেটা কবে করবে তাও নির্ভর করছে ওই প্রতিবেদনের ওপর।

চলতি বছরই ক্রিকেট বিশ্বের সেরা তিনটি দল পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা বাংলাদেশ সফর করে গেছে।  এই তিন দেশের বাংলাদেশ সফরের খবর আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে যথেষ্ট গুরুত্বে সাথে প্রচার হয়েছে। শুধু খেলার ফলাফলেই নয়, এ দেশের কোটি দর্শকের গর্জন শুনেছে পুরো ক্রিকেট বিশ্ব।

সবশেষ ক্রিকেট বিশ্বকাপ যেটি অনুষ্ঠিত হলো খোদ অষ্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে, সেখান থেকেই ক্রিকেট বিশ্বকে নতুন করে ভাবাতে শুরু করেছে বাংলাদেশ। সে সময় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পারফরমেন্সের প্রশংসা করেন নাই এমন বিশেষজ্ঞ ও  খেলোয়াড় খুঁজে পাওয়া মুশকিল। তবে প্রশ্ন ছিল, বাংলাদেশ তার এই পারফরমেন্স কতটা ধরে রাখতে পারে।
বিশ্বকাপের পরে পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে সন্দেহাতীতভাবে বাংলাদেশ তার সামর্থ্যরে পরিচয় দিতে সক্ষম হয়েছে। শুধু সক্ষম হয়েছে বললে ভুল হবে, বাংলাদেশ নিয়ে ক্রিকেট বিশ্ব নতুন করে ভাবতে শুরু করেছে। এ সময় বাংলাদেশের ক্রিকেটের যেমন নতুন কিছু বন্ধু মিলেছে, তেমনি শক্রুও মিলেছে।

তবে সামর্থ্যের পরিচয়টা যেমন সীমিত (একদিনের ম্যাচ) ওভারের খেলায় বাংলাদেশ প্রমাণ করতে পারলেও টেষ্টে এখনো নিজেদের সেই মানে নিয়ে যেতে পারে নাই টাইগারররা। এ জন্য অবশ্য বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ ক্রিকেট পরিকল্পনা দায়ী। কেননা লংগার ভার্সন ক্রিকেট ম্যাচের চর্চা দেশের ভেতরে খুবই কম।

নিজেদেরকে একটি দল হিসেবে দাড় করানোর পাশাপাশি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সাংগঠনিক দক্ষতারও পরিচয় দিতে পেরেছে। বিশ্বকাপ ক্রিকেট, টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপের মত বড় বড় টুর্নামেন্ট সফলভাবে আয়োজন করে বাংলাদেশ। তবে এর জন্য বড় কৃতিত্ব বাংলাদেশের দর্শকদের। ক্রিকেটের প্রতি তাদের ভালোবাসা ছাড়া বাংলাদেশ বিশ্ব মঞ্চে দাড়াতে পারতো কিনা তা প্রশ্নের বিষয়। বাংলাদেশের দশর্কদের নিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো অনেক সময় প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

বাংলাদেশে কোনো ক্রিকেট ম্যাচকে ঘিরে কোন রকম অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেনি। বাংলাদেশ সফরে এসে কোন বিদেশি দলকে বিব্রতকর ঘটনার মুখোমুখি হতে হয় নাই। শুধুমাত্র ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের গাড়ি বহরে একটি ইটের টুকরো মারা হয়েছিল। যদিও ক্যারিবিয়ানরা বিষয়টিকে হালকাভাবে নিয়েছিল। হামলা তো দুরে থাক কোন রকম অপ্রীতিকর ঘটনার সাথে বাংলাদেশের ক্রিকেটের পরিচয় নেই।

বরং পারফরমেন্সের দিক দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার অবস্থা দিন দিন খারাপ হচ্ছে। মাইকেল ক্লার্ক, রায়ান হ্যারিস, ক্রিস রর্জাসের বিদায়ের পর দলটি নতুন করে সাজাতে হচ্ছে। ডেভিড ওয়ার্নার, মিশেল জনসন ও প্যাট কামিন্সকে ছাড়া অনেকটা আনকোরা দলে পরিণত হয়েছে অষ্ট্রেলিয়া। তারপরও বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা বা দর্শকরা অষ্ট্রেলিয়া কম সমীহ করছেন না। কিন্তু এখন প্রশ্ন উঠে গেছে যে, নিরাপত্তা কি অজুহাত, নকি পিছনে অন্য কোন কারণ আছে।

অপরদিকে, মৌলবাদ, জঙ্গিবাদের সাথে তো বলতে গেলে গোটা বিশ্ব লড়াই করছে। তার মধ্যে একমাত্র বাংলাদেশ লড়াই করে সফলতা পেয়েছে। মৌলবাদ, জঙ্গিবাদ যখনই মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে তখনই সেই মাথা কেটে দিতে শক্ত হাতে কাজ করেছে বাংলাদেশ। শীর্ষ জঙ্গি নেতাদের গ্রেফতার করে বাংলাদেশ বিচারের মুখোমুখি করেছে এবং সবের্¦াচ্চ সাজা দিয়েছে। বাংলাদেশের লড়াই অব্যাহত আছে। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের কঠোর অবস্থান বিশ্বের অনেক দেশের কাছে আজ অনুকরণীয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

রাতে বাড়ি ফিরতে বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের নিরাপত্তাবোধ নিয়ে করা এক গবেষণা প্রতিবেদনে  দেখা  গেছে ভারত ও পাকিস্তানের তুলনায় বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো। এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের  চেয়েও এগিয়ে বাংলাদেশ। গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গবেষণা ও জরিপ প্রতিষ্ঠান গ্যালাপ এসব  দেশের নিরাপত্তা (আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি) সূচক প্রকাশ করে।

অষ্ট্রেলিয়ানদের নির্ধারিত সময়ে বাংলাদেশ সফরে না আসার ঘোষণায়  কোটি কোটি দর্শক শুধু মর্মাহতই হন নাই, সেই সাথে ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন। যদিও ‘আসল’ (ওয়ানডে টিম) বাংলাদেশের মুখোমুখি এবার অষ্ট্রেলিয়াকে হতে হতো না।  টেস্ট টিম হিসেবে অন্য দলগুলোকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মত অবস্থায় বাংলাদেশ এখনো পৌঁছাতে পারে নাই। তারপরও কাল্পনিক অজুহাত তোলা হয়েছে বলে মন্তব্য বাংলাদেশের দর্শকদের।

অস্ট্রেলিয়ার জঙ্গি হামলার আশঙ্কা প্রকাশ কি শুধুই ক্রিকেটের দুটো টেস্ট ম্যাচ? নিরাপত্তার বিষয়টির সাথে ক্রিকেটের দুটো টেস্ট ম্যাচই জড়িত নয়, জড়িত পুরো বাংলাদেশের ভাবমূর্তি। অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশকে জঙ্গি রাষ্ট্র করানোর চেষ্টার সাথে যেমন দেশীয় মহল জড়িত, তেমনি বিদেশি কোন কোন মহল রয়েছে এর পেছনে? নিরাপত্তা ইস্যুতে অস্ট্রেলিয়ার এমন ঘোষণা জঙ্গিদের তৎপরতাকে উৎসাহিত করবে নাকি অনুৎসাহিত করবে?

যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের নাগরিকদের বাংলাদেশ ভ্রমণে কোন সতর্কতা জারি করে নাই। এ তালিকায় কানাডা যেমন নেই, তেমনি নেই অষ্ট্রেলিয়ার প্রতিবেশী দেশ নিউজিল্যান্ডও নেই। একমাত্র অস্ট্রেলিয়ার উল্টো পথে যাত্রা  কেনো? এ প্রশ্ন এখন জাগাই স্বাভাবিক।

এ ধরনের সফরসূচি ঘোষণার আগ থেকেই নিরাপত্তা ইস্যুটি নিয়ে দু’দেশ আলোচনা করে। সফর শুরুর আগের দিন আকস্মিকভাবে অষ্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা ইস্যুটি উত্থাপন এখন বাংলাদেশে সবার কাছে প্রশ্নবিদ্ধ। সাম্প্রতিককালে কোন জঙ্গি তৎপরতা দেখা যায়নি। আবার বাংলাদেশে এখন কোন রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতাও নেই। অষ্ট্রেলিয়ার সফরের সময় কোন রাজনৈতিক সহিংসতা হবার কোনও লক্ষণ নেই।

বাংলাদেশ নি¤œ মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে এবং মধ্য আয়ের দেশে এগিয়ে যাওয়ার হবার লক্ষে কাজ করছে। সম্প্রতি বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক সম্মাননা পেয়েছে। বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে বিশেষ অর্থনৈতিক জোন করা হচ্ছে। এ অবস্থায় জঙ্গি হামলার আশংকা প্রকাশ করে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের না আসাটা গোটা বাংলাদেশের ভাবমূর্তিকেই প্রশ্নবিদ্ধ করে ফেলেছে।

অস্ট্রেলিয়া সরকার যখন অভিবাসী বহনকারী জাহাজের নাবিকদের ঘুষ দিয়ে জাহাজ ঘুরিয়ে দেয়, তখন তৃতীয় বিশ্বের বাংলাদেশ আড়াই লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে বছরের পর বছর তার দেশে ভরণ-পোষণের সুযোগ করে দিয়েছে। ক্রিকেটেও বাংলাদেশ এভাবেই জবাব দিয়ে যাবে, এগিয়ে যাবে।

লেখক: চিফ রিপোর্টার, বৈশাখী টেলিভিশন

বাংলাদেশ সময় ১৫০৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৫
এমএমকে

দিনাজপুরে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেলের ২ আরোহী নিহত
বিজেপির আসন ৩০০ ছাড়াবে, আগেই জানতেন মোদী!
দায়িত্বশীল কারো কানে পৌঁছায়নি খুদ বানুর আর্তনাদ!
নবাবগঞ্জের ভাঙা মসজিদ নিয়ে নানা আলেখ্য
ছোটপর্দায় আজকের খেলা


ঈদযাত্রায় ভোগান্তি কমবে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে
বিআইডব্লিউটিসির ঈদ বহরে নেই ৯০ বছর পুরনো পিএস অস্ট্রিচ
বিশ্বকাপে কোহলিরা খেলতে পারেন কমলা জার্সিতে!
বিদেশেও রপ্তানি হচ্ছে মানিকগঞ্জের কাঁচা মরিচ
সাংবাদিকদের ওপর হামলার নিন্দা আগরতলা প্রেসক্লাবের