ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১২ সফর ১৪৪২

জাতীয়

পরিছন্নকর্মীদের খাবার পরিবেশন করে এক টেবিলে খেলেন মন্ত্রী

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০১ ঘণ্টা, আগস্ট ১২, ২০২০
পরিছন্নকর্মীদের খাবার পরিবেশন করে এক টেবিলে খেলেন মন্ত্রী

ঢাকা: ঈদুল আজহায় কোরবানি পশুর বর্জ্য দ্রুত অপসারণ কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করায় পরিচ্ছন্নকর্মীদের ধন্যবাদ দিতে আয়োজন করা হয় এক অনুষ্ঠানের। শহর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে পরিবেশ দূষণমুক্ত রাখা কর্মীদের সেই অনুষ্ঠানে নিজ হাতে খাবার পরিবেশন ও এক টেবিলে বসে খেলেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

সঙ্গে ছিলেন মেয়র ও সচিব।
 
বক্তৃতাপর্ব শেষে এ আয়োজন উপস্থিত পরিচ্ছন্নকর্মীসহ অনেকেরই আবেগের জায়গায় নাড়া দেয়, অনেক পরিচ্ছন্নতাকর্মী সেলফি তুলে শেয়ার করেছেন ফেসবুকে।
 
স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামের সঙ্গে সেই টেবিলে স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলামও ছিলেন।
 
স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে পাঠানো একটি ছবিতে দেখা যায়, মন্ত্রী নিজেই পরিচ্ছন্নকর্মীদের টেবিলে খাবার তুলে দিচ্ছেন। যে সাতজন বসেছিলেন তার মধ্যে চারজনই পরিচ্ছন্নকর্মী।  
 বুধবার (১২ আগস্ট) রাজধানীর উত্তরা কমিউনিটি সেন্টারে উত্তর সিটি করপোরেশনের অধীন কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করায় সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে এ আয়োজন দেখা যায়।
 
উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন।
 
স্থানীয় সরকার বিভাগের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. হায়দার আলী বাংলানিউজকে বলেন, মন্ত্রী মহোদয় নিজেই পরিচ্ছন্নকর্মীদের খাবার তুলে দেন এবং এক টেবিলে খেয়েছেন। এতে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন পরিচ্ছন্নকর্মীরা।  
 
ওই অনুষ্ঠান আয়োজনে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী ঈদুল আজহায় কোরবানি পশুর বর্জ্য দ্রুত অপসারণ কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করায় সংশ্লিষ্টদের এবং খাবারের আয়োজন করায় উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়রকে ধন্যবাদ জানান।
 
মন্ত্রী বলেন, এটি খুবই ভালো ও প্রশংসনীয় উদ্যোগ। যারা শহর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে পরিবেশ দূষণমুক্ত রাখে তাদের প্রতি সবার দায়িত্ব রয়েছে।
 
‘পরিচ্ছন্নকর্মীরাও মানুষ, তাদের প্রতি আমাদের আন্তরিকতা, সম্মান ও দায়িত্ব রয়েছে। তাদেরও উন্নত জীবনযাপনের স্বপ্ন দেখা এবং স্বপ্ন পূরণের অধিকার আছে। ’
 
তাজুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তাদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা বাড়ানোর পাশাপাশি বহুতল ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। সেখানে সবাই উন্নত জীবনযাপনের সুযোগ পাবে।
 
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মানুষের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠায় সারা জীবন আন্দোলন-সংগ্রাম করে গেছেন উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর অনুধাবন থেকে শিক্ষা নিয়েই প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে পরিচ্ছন্নকর্মী থেকে শুরু করে সব খেটে খাওয়া মানুষদের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে সরকার।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৭ ঘণ্টা, আগস্ট ১২, ২০২০
এমআইএইচ/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa