অপরাধচিত্র কঠোরভাবে মনিটরিং করতে এসিদের নির্দেশ 

শেখ জাহাঙ্গীর আলম, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া (ফাইল ছবি)

ঢাকা: নিজ নিজ জোনের সার্বিক অপরাধচিত্র কঠোরভাবে মনিটরিং করতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সহকারী কমিশনারদের (এসি) বিশেষভাবে নির্দেশনা দিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। 

মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় ডিএমপির সব জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনারদের কাজের প্রসংশাও করেন তিনি। 

মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) ডিএমপি হেডকোয়ার্টার্সের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে ডিএমপির অপরাধ চিত্র নিয়ে আলোচনা করা হয়। এই সভায় পুলিশের ভালো কাজের স্বীকৃতি হিসেবে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের হাতে নগদ অর্থ পুরস্কার হিসেবে তুলে দেওয়া হয়। 

মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় ডিএমপি কমিশনার আরও বলেন, রাজধানীর সব থানা এলাকায় ব্লক রেইড অভিযান আরও বাড়াতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া জনগণকে পুলিশি সুবিধা দিতে ও তাদের সমস্যা সমাধানে নিজ নিজ থানা এলাকায় উঠান বৈঠক বৃদ্ধির বিষয়ে বলা হয়েছে। 

মাসিক অপরাধ সভায় আগত পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশে কমিশনার বলেন, নিজেদের পেশা, দায়বদ্ধতা ও নীতির উপর অটল থেকে জনসেবা দিতে হবে। আমাদের অনেক সীমাবদ্ধতা রয়েছে কিন্তু আন্তরিকতার কোনো ঘাটতি নেই। আজ যারা পুরস্কৃত হয়েছেন, এই পুরস্কার আপনার কর্মজীবনে কাজের গতি বাড়াবে বলে আমি মনে করি।

ডিসেম্বর মাসে ডিএমপির শ্রেষ্ঠ বিভাগ নির্বাচিত হয়েছে তেজগাঁও বিভাগ। শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার হয়েছেন পল্লবী জোনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার এবিএম জাকির হোসেন, শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক হয়েছেন শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল হাসান, শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হয়েছেন কদমতলী থানার (পরিদর্শক-তদন্ত) মো. সাজু মিঞা, শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশনস্) মো. মাহমুদুর রহমান মিরপুর মডেল থানা, শ্রেষ্ঠ উপ-পরিদর্শক (এসআই) যৌথভাবে এসআই বজলুর রহমান লালবাগ ফাঁড়ি ও মো. ফরিদ উদ্দিন তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানা, শ্রেষ্ঠ সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) যৌথভাবে এএসআই মো. হেলাল উদ্দিন, মতিঝিল থানা ও এএসআই মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন মিরপুর মডেল থানা।

গোয়েন্দা ও অপরাধতথ্য বিভাগে শ্রেষ্ঠ হয়েছে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)-পশ্চিম বিভাগ। শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার হয়েছেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার নাজমুল হাসান ফিরোজ (ডেমরা জোনাল টিম), চোরাই গাড়ি উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ হয়েছেন সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. রফিকুল আলম (গাড়ি চুরি উদ্ধার ও প্রতিরোধ টিম, ডিবি দক্ষিণ), মাদকদ্রব্য উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ হয়েছেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার নাজমুল হাসান ফিরোজ (ডেমরা জোনাল টিম, ডিবি পূর্ব)।

ট্রাফিকের শ্রেষ্ঠ বিভাগ নির্বাচিত হয়েছে ট্রাফিক-উত্তর বিভাগ। শ্রেষ্ঠ সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার রামপুরা ট্রাফিক জোনের এসএম মুক্তারুজ্জামান, শ্রেষ্ঠ ট্রাফিক ইন্সপেক্টর- রামপুরা ট্রাফিক জোনের মো. মনির হোসেন, শ্রেষ্ঠ শহর উপ-পরিদর্শক (টিএসআই)/সার্জেন্ট যৌথভাবে হয়েছেন ট্রাফিক দক্ষিণ বিভাগের সার্জেন্ট মো. মাজেদুল হক ও রামপুরা ট্রাফিক জোনের টিএসআই মো. জাকির হোসেন ।

বিশেষভাবে পুরস্কৃতরা হয়েছেন- হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটনে সম্মিলিতভাবে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মো. জাহিদুল হক তালুকদার, ডেমরা জোনের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার ইফতেখায়রুল ইসলাম, কদমতলী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সাজু মিঞা, তেজগাঁও থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সেন্টু মিয়া ও রমনা মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আলী হোসেন।

বাংলাদেশ সময়: ১১২১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০১৮
এসজেএ/আরআর

নির্বাচন হলেও পহেলা জানুয়ারি বই পাবে শিক্ষার্থীরা
গ্রেফতার-মামলার সেই তালিকা সিইসিকেও দিলো বিএনপি
কাস্টমস্, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট-এ নিয়োগ
লক্ষ্মীপুরে শীতবস্ত্র বিক্রি শুরু
মেধাতালিকায় ২৩তম আসলামকে থামিয়ে দিতে চায় ‘দারিদ্র্য’
কোনো দল কিনলো না আশরাফুলকে
হাসপাতালে খালেদার চিকিৎসা নিয়ে রিটের আদেশ সোমবার
অর্থ মন্ত্রণালয়ে নিয়োগ
পবিত্র ওমরাহ্‌ পালনে গেছেন তামিম
মনপুরা স্কুল অ্যান্ড কলেজে শিক্ষক নিয়োগ