ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১২ সফর ১৪৪২

জাতীয়

‘আমি বেঁচে থাকতে আনিসুলের কাজ ব্যর্থ হতে দেবো না’

মহিউদ্দিন মাহমুদ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯৪৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৭
‘আমি বেঁচে থাকতে আনিসুলের কাজ ব্যর্থ হতে দেবো না’ তেজগাঁওয়ে ট্রাকের দখলে যাওয়া সড়ক/ছবি: জিএম মুজিবুর 

ঢাকা: উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের নেতৃত্বে আমরা সবাই মিলে এ সড়কটি এতো সুন্দর করেছি। আমি বেঁচে থাকতে মেয়র আনিসুলের কাজ ব্যর্থ হতে দেবো না।

তেজগাঁও সড়ক ফের ট্রাকস্ট্যান্ডে পরিণত হওয়া প্রসঙ্গে ফোনে বাংলানিউজকে একথা বলেন বাংলাদেশ ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান ড্রাইভার্স ইউনিয়নের সভাপতি তালুকদার মো. মনির।  

তিনি বলেন, আমাদের সংগঠনের মান-সম্মান ক্ষুণ্ন করার জন্য একটা অসাধু চক্র এটা করছে।

কিছু বহিরাগত এর সঙ্গে জড়িত। আমি বেঁচে থাকতে, সংগঠনের নেতৃত্বে থাকতে এ রাস্তা আবার দখল হতে দেবো না।  

এক মাসও হয়নি ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক সবাইকে ছেড়ে না ফেরার দেশে চলে গেছেন। এর মধ্যেই তেজগাঁও সাত রাস্তা থেকে কারওয়ান বাজার রেলগেটের রাস্তাটি আবার ট্রাকের দখলে চলে গেছে।

তেজগাঁওয়ে ট্রাকের দখলে যাওয়া সড়ক/ছবি: জিএম মুজিবুরঅনেক চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে তেজগাঁও সাত রাস্তা থেকে কারওয়ান বাজার রেলগেটের রাস্তাটি উদ্ধার করেছিলেন প্রয়াত আনিসুল হক। তিনি মারা যাওয়ার এক মাস না যেতেই ঝকঝকে, তকতকে সড়কটি আবারো ট্রাকের দখলে চলে গেছে। এ নিয়ে বাংলানিউজসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলেও নড়চড় হচ্ছে না অবস্থার।

সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ও মধ্য রাতে সড়কটি ঘুরে দেখা যায় রাস্তার দু’পাশে অসংখ্য ট্রাক পার্ক করে রাখা। কারওয়ান বাজার তেকে সাত রাস্তার দিকে যেতে রেলগেট পার হলেই ডান পাশের দোকানগুলোর সামনের রাস্তা দখল করে ট্রাক পার্কিং করা হয়েছে। মোড়ে পার্কিং করা ট্রাকের পাশে ময়লার স্তূপ দেখা গেছে।

আরেকটু সামনে এগোতে রাস্তার দু’পাশে সারি সারি ট্রাক, কাভার্ডভ্যান, পিকআপভ্যান পার্ক করে রাখতে দেখা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, মূলত আনিসুল হক অসুস্থ হওয়ার সময় থেকে রাস্তায় অবৈধভাবে ট্রাক-কাভার্ডভ্যান, পিকআপভ্যান রাখা শুরু হয়। আনিসুল হক মারা যাওয়ার পর থেকে রাস্তায় ট্রাকের সংখ্যা আরো বেড়েছে। এ সংখ্যা জ্যামিতিক হারে বাড়ছে।  

তারা বলেন, এভাবে চলতে থাকলে রাস্তাটি অতীতের মতো ট্রাকস্ট্যান্ড ও ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হতে বেশিদিন লাগবে না।

দখলমুক্ত করার পর আনিসুল হক সড়কটির সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ শুরু করেছিলেন। সড়কের পাশে দেয়ালে রংও করেছিলেন তিনি। সেই দেয়ালগুলোও ফের পোস্টারে ভরে যাচ্ছে।

তেজগাঁও-বেগুন বাড়ির বাসিন্দা বেসরকারি চাকরিজীবী শিহাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, এ সড়কে কম সময়ে ফার্মগেটে যাওয়া যায়। অনেকে যানজট এড়াতে এ সড়কটি ব্যবহার করেন। এখন আবার রাস্তাটি ট্রাকের দখলে গেলে সাধারণ মানুষের কষ্ট বাড়বে।  

এ বিষয়ে তালুকদার মো. মনির বলেন, যারা ওখানে পার্কিং করেছে তাদের বিরুদ্ধে এখনই ব্যবস্থা নিচ্ছি।

কেউ যাতে রাস্তা দখল করে পার্কিং না করে সে জন্য সংগঠনের পক্ষ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান ড্রাইভার্স ইউনিয়নের সভাপতি বাংলানিউজের সঙ্গে কথা বলার পর সংগঠনটির পক্ষ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি ও মাইকিং করার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ডের এক নেতা।

বাংলাদেশ সময়: ১৪২৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৭
এমইউএম/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa