php glass

স্বাগত ২০১১

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

কুয়াশার চাদর ভেদ করে পূব আকাশে উঠেছে নতুন সূর্য। নতুন বছরের প্রথম সূর্য। স্বর্ণোজ্জ্বল ভোর চারদিকে ছড়াচ্ছে স্বপ্ন। নতুন বছর। এ এক নতুন ভোর। আজ নতুন দিন। স্বাগত ২০১১ সাল। শুভ নববর্ষ।

ঢাকা: কুয়াশার চাদর ভেদ করে পূব আকাশে উঠেছে নতুন সূর্য। নতুন বছরের প্রথম সূর্য। স্বর্ণোজ্জ্বল ভোর চারদিকে ছড়াচ্ছে স্বপ্ন। নতুন বছর। এ এক নতুন ভোর। আজ নতুন দিন। স্বাগত ২০১১ সাল। শুভ নববর্ষ।  

মহাকালের চিরন্তন গতি প্রবাহে নানা ঘটনার স্মৃতি নিয়ে বিগত হলো আরও একটি বছর। শুরু হল খ্রিস্টীয় ২০১১ সালের পথ পরিক্রমা। নতুনের প্রতি সব সময়ই মানুষের থাকে বিশেষ আগ্রহ ও উদ্দীপনা। নতুনের মধ্যে নিহিত থাকে অমিত সম্ভাবনা।

চোখের সামনে এসে দাঁড়ায় পুরনো গল্পগাঁথার সারি সারি চিত্র। কখনও বুকের ভিতর উঁকি দেয় শুধুই দুঃখ যাতনা। কখনও বুকের ভেতর নেচে ওঠে পাওয়ার আনন্দ। ভুলতে বসা কত স্মৃতি আজ নতুন করে উঁকি দেবে মনে। পুরনো দিনের কত পুরনো দৃশ্য। সামনে এসে নিঃশব্দে দাঁড়ায় স্মৃতি বিস্মৃতির কত আড়াল।  

বিগত বছরটি ছিল আমাদের কাছে ছিল নানা দিক দিয়ে তাৎপর্যপূর্ণ।
 
বছরের শুরুতেই বহুল প্রত্যাশিত বঙ্গবন্ধুর হত্যা মামলার রায় কার্যকর হয়। এ রায় কার্যকর করার মাধ্যমে জাতি অনেকটা ঋণ মুক্ত হয়েছে।   

বাঙালি শুধু এখানেই থেমে থাকেনি। মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার প্রক্রিয়াও শুরু হয় ২০১০ সালেই।

শিক্ষা ক্ষেত্রে বছরটি বেশ ভালো গেছে। জাতীয় শিক্ষানীতি চূড়ান্ত হয় গত বছরেই।

বিজ্ঞানী মাকসুদুল আলমের নেতৃত্বে একদল বাংলাদেশি তরুণ বিজ্ঞানী দেখান আন্তর্জাতিক সাফল্য। তারা পাটের জীবন রহস্য উন্মোচন করেছেন। ফলে বছরটি বিশ্বের কাছে বাংলাদেশেকে নতুনভাবে পরিচয় করিয়ে দিয়েছে।   

তবে এর পাশাপাশি কিছু অনভিপ্রেত ঘটনা ধাক্কা দিয়ে গেছে দেশের রাজনীতি, অর্থনীতি এবং মানুষের চেতনাকে।

রাজনৈতিক অঙ্গন বারবার উত্তপ্ত হয়েছে। ছাত্রলীগ সারা বছরই ছিল অনেকটা বেপরোয়া। নাটোরে প্রকাশ্যে হত্যা করা হয় বিরোধী দলের একজন নেতাকে।

 দ্রব্য মূল্য নিয়ে বাজারের অস্থিরতা ছিল লক্ষ্যণীয়।
 
এর মধ্য দিয়েই নতুন বছর এল আমাদের জীবনে। একটি সমৃদ্ধ ও মানবিক মূল্যবোধে শ্রদ্ধাশীল জাতি বিনির্মাণে বাঙালি যুদ্ধ করেছে। সফল হয়েছে। পরাধীনতার ইতিহাস বদলে দিয়েছে। কিন্তু স্বপ্নের সবটুকু বাস্তবায়ন হয়নি। হবে না এমন নয়।

ভালো মন্দ অনেক শিক্ষনীয় বিষয়ের অভিজ্ঞতা নিয়েই দিন বদলের অঙ্গীকার নিয়ে বর্তমান সরকার দায়িত্ব নিয়েছে। সেই অঙ্গীকার পূরণের দিকেই তাকিয়ে আছে জাতি।

নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে এবং ২০১০ সালকে বিদায় জানাতে রাজধানীসহ সারা দেশের মানুষই উৎসবে মেতে ওঠে। রাজধানীর অভিজাত হোটেল, কাব ও কূটনৈতিক পাড়ায় শুক্রবার মধ্যরাত থেকেই শুরু হয় উৎসবের আমেজ।

ধানমণ্ডি, গুলশান, বনানী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ গোটা ঢাকায়ই যেন উৎসবমুখর হয়ে ওঠে সারা রাত। তবে অপ্রাতিকর ঘটনা এড়াতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীও ছিল বিশেষ তৎপর।

নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিরোধী দলীয় নেতা খালেদা জিয়া বাণী দিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি তার বাণীতে ইংরেজি নববর্ষ উপলক্ষে দেশবাসী ও প্রবাসী বাংলাদেশিদের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন  জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেছেন, নতুনের আবাহনে পুরাতন বছরের সব জঞ্জাল ধুয়ে মুছে সাফ হোক। নতুন বছর আমাদের সবার জীবনে অনাবিল সুখ, সমৃদ্ধি ও শান্তি বয়ে আনুক।

বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়াও তার বাণীতে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১০৩৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০১, ২০১১

‘আমার এই বাজে স্বভাব’ খ্যাত সংগীত পরিচালক পৃথ্বীরাজ আর নেই
মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত স্থানগুলো এখনো অরক্ষিত
ফেরাউনের বাড়িতেই বেড়ে ওঠেন মুসা
অন্ধকার ময়মনসিংহে আসছে আলো
ডিমলায় দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ পেয়ে আনন্দিত ৩৬ পরিবার


পিরোজপুরে গণপূর্ত মন্ত্রীর নেতৃত্বে সুসংগঠিত আ’লীগ
৪৮ বছর ধরে উপেক্ষিত ধনবাড়ীর শহীদ বুদ্ধিজীবী মুহাম্মদ আখতার 
‘বিসমিল্লা’ দিয়ে শেষ হলো দুই বাংলার নাট্যমেলা
জাতিকে মেধাশূন্য করতেই বুদ্ধিজীবী হত্যা: শিল্পমন্ত্রী
বুয়েট কেমিস্ট্রি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সভা