আমি সেনার পক্ষে, মোদীবাবুর নই: মমতা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

walton

কলকাতা: ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, আমি দেশের পক্ষে, সেনার পক্ষে এবং মানুষের পক্ষে। কিন্তু মোদীবাবুর পক্ষে নই।

php glass

তিনি বলেন, সেনাদের রক্তের বিনিময়ে কেউ ভোটে জিতবে—এটা আমরা মেনে নেবো না। আমরা সবসময়ই সেনার পক্ষে ছিলাম এবং থাকবো। সেনা রাজনীতি করে না, দেশের জন্য লড়াই করে। কিন্তু মোদী সেনাদের নিয়ে রাজনীতি করছেন। প্রধানমন্ত্রী পদের লজ্জা! কিছু সংবাদমাধ্যম তাকে সাপোর্ট দিচ্ছে। দেশের লোক প্রকৃত সত্য জানতে পারছে না।

বুধবার (০৬ মার্চ) পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের প্রশাসনিক ভবন নবান্ন থেকে সাংবাদিকদের সামনে এসব কথা বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, কেন এত সেনার মৃত্যু হলো? আগাম সতর্কতা থাকা সত্ত্বেও কেন ব্যবস্থা নেওয়া গেলো না? যিনিই মোদীর বিরুদ্ধে বলছেন, তাদেরই দেশদ্রোহী বা পাকিস্তানি বলা হচ্ছে। যারা গান্ধীজিকে খুন করেছে, তাদের কাছ থেকে আমি দেশপ্রেমের কথা শুনবো না। আমার বাবা স্বাধীনতাসংগ্রামী ছিলেন। আমার কথা বিকৃত করা হচ্ছে। আমি কখনও সেনার বিরুদ্ধে বলিনি, যোগ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

মুখ্যমন্ত্রী আরো বলেন, আমার বক্তব্য- পুলওয়ামায় এত সেনার মৃত্যু হলো কী করে? কে দায়ী? জওয়ানদের রক্ত নিয়ে রাজনীতি হচ্ছে। যারা সেই রাজনীতি করছে, আমি তাদের নিন্দা করি। জওয়ানদের রক্ত নিয়ে ভোটে জেতার চেষ্টা হচ্ছে। আমি তার বিরুদ্ধে বলেছি। মোদীবাবুর এই অন্যায় নীতির বিরুদ্ধে বলবোই। তাতে আমার যা হয় হবে, আমি ভয় পাই না। আমাকে যা ইচ্ছে শাস্তি দিতে পারেন। 

জাতীয় সংবাদমাধ্যমে তার বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে জানিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, দেশের মানুষ প্রকৃত তথ্য জানতে পারছে না। দেশের সাধারণ মানুষ হিসেবে আমার কথা বলার অধিকার আছে। যারা জওয়ানদের রক্ত নিয়ে রাজনীতি করছে, আমি তাদের সমালোচনা করি। জওয়ানরা দেশের জন্য কাজ করেন, আমি তাদের পক্ষে। কিন্তু মোদীর বিপক্ষে। বিজেপির বিপক্ষে। আমি ভারতবাসী, ভারত আমার গর্ব। বাংলায় জন্মগ্রহণ করেছি, এটা আমার গর্ব।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩২ ঘণ্টা, মার্চ ০৬, ২০১৯
ভিএস/এমজেএফ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: কলকাতা নরেন্দ্র মোদী
চবির সাবেক শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী ১৮ নভেম্বর
শাহবাগে চাকরির বয়স ৩৫ করার দাবিতে সমাবেশ, আটক ৭
আদিতমারীতে গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার 
টাঙ্গাইলে ভুয়া চিকিৎসকের কারাদণ্ড
অনশনরত রোহিঙ্গাদের নির্যাতন করছে সৌদি আরব!


উন্নয়‌নের অগ্রযাত্রা ধরে রাখ‌তে শেখ হা‌সিনার বিকল্প নেই
গাজীপুরে অটো‌রিকশা-কভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ৫
বিদেশে নেওয়ার আশ্বাসে ৮ কোটি টাকা হাতিয়ে নিলেন তারা
‘ট্যাক্স না দেয়ার সংস্কৃতি থেকে বের হতে হবে’
২০৩০ সালের মধ্যে গুণগত শিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে