কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২.৭, দার্জিলিংয়ে ৩.২ 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সংগৃহীত ছবি

walton

কলকাতা: উত্তরের হাওয়ার দাপট বাড়তেই পশ্চিমবঙ্গে শীত ক্রমশ বাড়ছে। শনিবার (২২ ডিসেম্বর) কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ১২ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা চলতি মরশুমে শীতলতম দিন। 

php glass

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, রাজ্যে তাপমাত্রা আরও কমবে। বড়দিনের পরেও শীতের এই আমেজ থাকবে। শুধু তাই নয়, আগামী কয়েকদিনের মধ্যে শীত আরও জাঁকিয়ে পড়বে এবং কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১১ থেকে ১২ ডিগ্রির আশপাশে চলে আসতে পারে। শুক্রবার (২১ ডিসেম্বর) কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৩ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

উত্তর ভারতের উপর দিয়ে ঠাণ্ডা হাওয়া প্রবাহিত হয়ে পশ্চিমবঙ্গে পৌঁছাতে শুরু করেছে। সমগ্র উত্তর ভারত এখন শীতে জবুথুবু। দিল্লি ৭ ও লখনউতে শুক্রবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ৪ ডিগ্রির আশপাশে। পাটনায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ৯ ডিগ্রি। 

তাপমাত্রা কমলেও পশ্চিমবঙ্গে দার্জিলিং বাদে কোনো জেলাতেই সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রির নিচে আসেনি। উত্তরের হাওয়া বিহার, ঝাড়খণ্ড হয়ে প্রথমে রাজ্যের জেলাগুলিতে প্রবেশ করে। তাই সেখানে শীতের তীব্রতা বেশি। শনিবার (২২ ডিসেম্বর) ওই এলাকার জেলাগুলিতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা মোটামুটি ১০ ডিগ্রির আশপাশে ছিল। তবে আগামী কয়েকদিনে মধ্যে বাকুড়া, বীরভুমসহ জেলাগুলির তাপমাত্রা কমে ১০ ডিগ্রির নিচে চলে যেতে পারে বলে আবহাওয়াবিদরা মনে করছেন। 

তবে দার্জিলিংয়ে পাহাড় ও সংলগ্ন সমতল এলাকায় অবশ্য কনকনে ঠাণ্ডা অব্যাহত থাকবে। সেখানের তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রির নিচে রয়েছে। দার্জিলিংয়ে এদিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৩ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

যেহেতু উত্তরের হাওয়ার পথে কোনো বাধা নেই, তাই বড়দিনের পরেও কয়েকদিন শীতের এই আমেজ থাকবে। এই দফার শীত বেশ কয়েকদিন থাকছে, এমটাই মনে করছেন আবহাওয়াবিদরা। 

বাংলাদেশ সময়: ১০৫৪ ঘণ্টা, ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৮
ভিএস/আরআর

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: হাওর
আইএসের পেছনে যুক্তরাষ্ট্রের হাত!
‘শহরগুলো পরিকল্পনার অভিধান মেনে চলে না’
কিরগিজস্তানকে হারিয়ে গ্রুপ সেরা বাংলাদেশের মেয়েরা
ড. কামাল নাটক করেছেন, এ দলই করবো না: পথিক
বিএনপি দল হিসেবে টিকবে, প্রশ্ন শেখ হাসিনার


সাগরে নিম্নচাপ, রূপ নিতে পারে ঘূর্ণিঝড়ে
নেত্রকোণায় পানিতে ডুবে ৩ শিশুর মৃত্যু
ঢাকাস্থ বারহাট্টা ছাত্রকল্যাণ পরিষদের নতুন কমিটি
আলিয়ার উড়ন্ত যোগাভ্যাস
বৌ-ভাত খাওয়া হলো না শিশু মুনতাহার!