নারকেল গাছের রস থেকে চিনি হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: সংগৃহীত

walton

পশ্চিমবঙ্গের বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় নারকেল গাছের রস থেকে চিনি তৈরির প্রক্রিয়া শুরু করেছে। তবে সেই চিনি তৈরি হবে একটু ভিন্নভাবে।

php glass

কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গের বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় নারকেল গাছের রস থেকে চিনি তৈরির প্রক্রিয়া শুরু করেছে। তবে সেই চিনি তৈরি হবে একটু ভিন্নভাবে। কোনো রাসায়নিক নয়, পুরোপুরি প্রাকৃতিক উপায়ে তৈরি চিনি খেতে পারবেন মধুমেহ রোগীরা।

 

বিজ্ঞানীদের তরফে বলা হয়েছে এই চিনি মধুমেহ রোগীদের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে। নারকেল গাছের মোচির (ফুল) রস থেকে এ চিনি তৈরি করা হচ্ছে। সাধারণ চিনিতে থাকে প্রচুর পরিমাণে গ্লাইসেমিক। গ্লাইসেমিক মধুমেহ রোগীদের ক্ষেত্রে শারীরিক সমস্যার মূল কারণ। কিন্তু নারকেল গাছের রসে তৈরি চিনিতে এ গ্লাইসেমিক থাকবে না।

এর ফলে মধুমেহ রোগীরা এ চিনি থেকে তৈরি মিষ্টি খেতে পারবেন। ভারতের দক্ষিণ অংশে এ চিনি জনপ্রিয়। কোকোস্যাপ চিলার বক্স নামে একটি যন্ত্র ব্যবহার করে নারকেল গাছে মোচি (ফুল) থেকে রস সংগ্রহ করা হয়। তারপর সেই রস থেকে তৈরি হয় চিনি।

নতুন ধরনের এই চিনির নামকরণ করা হয়েছে ‘নীরা’। জানা গেছে আমেরিকা এবং ইউরোপের বাজারে এই চিনির চাহিদা প্রচুর। আগামী দিনে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের সাহায্য পেলে বাণিজ্যিকভাবে এই চিনি তৈরির প্রকল্প নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

মনে করা হচ্ছে মিষ্টি না খেতে পারার হতাশা থেকে কিছুটা হলেও মুক্তি পাবেন মধুমেহ রোগীরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০১৬
এসএস/আরআইএস/এমজেএফ

বাইতুল জান্নাত মসজিদ উদ্বোধন করলেন বসুন্ধরা চেয়ারম্যান
মানিকগঞ্জে বাসচাপায় গার্মেন্টস কর্মী নিহত
উত্তরায় পিস্তল-ইয়াবাসহ আটক ৩
নিজেকে নয়, আসগরকেই অধিনায়ক মানেন গুলবাদিন!
নাগেশ্বরীতে বিরল প্রজাতির প্রাণী বনরুই উদ্ধার


’৯২ বিশ্বকাপে খরা কাটাল পাকিস্তান
বেগমগঞ্জে সম্পত্তি বিরোধে গৃহবধূকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ৩
আন্তর্জাতিক সঙ্গীত সভায় বন্যা
বরিশালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু
শেখ হাসিনার নামে চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রীহোস্টেল উদ্বোধন