ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১২ সফর ১৪৪২

আন্তর্জাতিক

আজাদ কাশ্মীরের চেয়ে ভারতীয় কাশ্মীরের মানুষ বেশি সুখী: জরিপ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৩৭ ঘণ্টা, জুলাই ৩০, ২০২০
আজাদ কাশ্মীরের চেয়ে ভারতীয় কাশ্মীরের মানুষ বেশি সুখী: জরিপ পাকিস্তান ও ভারতের ছবি

একটি যৌথ জরিপে দেখা গেছে, পাকিস্তান শাসিত কাশ্মীরের তুলনায় ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখের বাসিন্দারা তাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে বেশি আশাবাদী। একইসঙ্গে সীমানা রেখার কাছাকাছি বসবাসরত ভারতীয়রা বিশ্বাস করেন, মা-বাবার আমলের তুলনায় তাদের জীবন আরও উন্নত হবে।

ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব ম্যানেজমেন্টের পরিচালক অধ্যাপক ধীরাজ শর্মা এবং লাহোর বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট সায়েন্সের অধ্যাপক ফারাহ আরিফ পরিচালিত একটি জরিপ প্রতিবেদনে দুই কাশ্মীরে মানুষের জীবনযাত্রা সম্পর্কে এমন বিপরীত চিত্র তুলে ধরা হয়েছে।

জি-নিউজের খবরে বলা হয়েছে, অধ্যাপক ধীরাজ শর্মা ও অধ্যাপক ফারাহ আরিফকে উদ্ধৃত করে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) এক প্রতিবেদনেও বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ এর প্রেক্ষাপটে যেখানে বিশ্বের বেশির ভাগ শান্তির দেশে উদ্বেগ ও হতাশা বিরাজ করছে, সেখানে কাশ্মীরের মানুষকে বরং অনেক আশাবাদী ও খুশি দেখা যাচ্ছে।

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু ও কাশ্মীর এবং পাকিস্তান শাসিত আজাদ কাশ্মীরে বসবাসকারী দৈবচয়ন পদ্ধতিতে এক হাজার ৪২৫ জনের ওপর এ জরিপ করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের মধ্যেই বিভিন্ন স্থানে জরিপটি চালানো হয়।

জরিপের জন্য পাকিস্তান অধ্যুষিত কাশ্মীর ও গিলগিত-বালতিস্তান থেকে মোট ৩৯৬ জনের মতামত সংগ্রহ করা হয়। এছাড়া ভারতের কাশ্মীর, জম্মু ও লাদাখ থেকে এক হাজার ২৯ জনের মতামত সংগ্রহ করা হয়।

জরিপে অংশগ্রহণকারীদের কাছে জানতে চাওয়া হয়, নিজেদের জীবন নিয়ে তারা কতটা সন্তুষ্ট। এছাড়া তাদের মা-বাবার আমলের চেয়ে তারা জীবন নিয়ে বেশি আশাবাদী কি-না। আগের প্রজন্মের চেয়ে তাদের জীবন উন্নত কি-না, সেটাও জানতে চাওয়া হয় জরিপে। তাদের কাছে আরও জানতে চাওয়া হয়েছিল, তারা যে এলাকায় থাকেন সেখানকার সরকারের ওপর তারা সন্তুষ্ট কি-না। চাকরির জন্য তারা অন্য কোনো স্থানে যেতে চান কি-না, সে প্রশ্নও করা হয়েছিল।

জরিপে দেখা যায়, ভারত নিয়ন্ত্রিত লাদাখ, কাশ্মীর ও জম্মু অঞ্চলের ৭৫ শতাংশেরও বেশি মানুষ আগের প্রজন্মের তুলনায় তাদের জীবনে ভালো কিছু ঘটবে বলে আশা করেন। অন্যদিকে পাকিস্তান, পাকিস্তান অধ্যুষিত কাশ্মীর এবং গিলগিত-বালতিস্তানের ৬০ শতাংশেরও কম মানুষ তাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী।

জরিপে আরও দেখা গেছে, পাকিস্তান অধ্যুষিত কাশ্মীর এবং গিলগিত-বালতিস্তানের ৫১ শতাংশ মানুষ কাজের জন্য অন্য জায়গায় যেতে আগ্রহী। অন্যদিকে ভারতের লাদাখ, কাশ্মীর ও জম্মুতে বসবাসরত ৩৩ শতাংশ মানুষ উন্নত কাজের জন্য স্থান পরিবর্তন করতে চান।

পাকিস্তান অধ্যুষিত কাশ্মীর এবং গিলগিতের ৫৫ শতাংশেরও বেশি অংশগ্রহণকারী জানিয়েছেন, সন্তানদের উন্নত জীবনের জন্য তারা অন্য কোনো জায়গায় যেতে চান। অন্যদিকে জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখের ৩০ দশমিক ৪ শতাংশ মানুষ তাদের সন্তানদের ভবিষ্যতের জন্য অন্য স্থানে যেতে আগ্রহী।

বার্তা সংস্থা এএনআইয়ের বরাত দিয়ে জি-নিউজ বলছে, জরিপে এও দেখা গেছে, জম্মু, কাশ্মীর ও লাদাখের ৬৭ শতাংশেরও বেশি অংশগ্রহণকারী তাদের সরকারের ওপর সন্তুষ্ট। অন্যদিকে গিলগিত-বালতিস্তান এবং পাকিস্তান অধ্যুষিত কাশ্মিরে বসবাসকারী ৪০ শতাংশ অংশগ্রহণকারী তাদের সরকারের কার্যক্রম নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩২ ঘণ্টা, জুলাই ৩০, ২০২০
টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa