জাপানে জাহাজ ছাড়তে শুরু করেছে যাত্রীরা, করোনা আক্রান্ত ৫৪৫

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: সংগৃহীত

walton

জাপানের ইয়োকোহামা বন্দরে কোয়ারেন্টাইনে রাখা যাত্রীবাহী জাহাজ ডায়মন্ড প্রিন্সেসে আরও ৮৯ ব্যক্তি নতুন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার প্রমাণ মিলেছে। এ নিয়ে ওই জাহাজে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৪৫। যে সব যাত্রী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি, তারা জাহাজ ছাড়তে শুরু করেছেন।

বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) এ তথ্য জানায় আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) ওই জাহাজে নতুন করে আরও ৮৮ জন ও বুধবার একজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। বুধবারে আক্রান্ত ব্যক্তি একজন পুরুষ চিকিৎসক যিনি ওই জাহাজের একটি মেডিক্যাল টিমের অংশ ছিলেন। এ নিয়ে ওই জাহাজে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৪৫।

এদিকে, রোববার রাতে (১৬ ফেব্রুয়ারি) জাহাজটি থেকে প্রায় ৩৪০ জন মার্কিন নাগরিককে দেশে ফিরিয়ে নিতে দু’টি প্লেন পাঠায় যুক্তরাষ্ট্র। উড়তে শুরু করার পর সেখানে ১৪ আরোহী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হন। তখন তাদের অন্য আরোহীদের কাছ থেকে আলাদা করে প্লেনের ভেতরেই কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। প্লেন দু’টির সব আরোহীকে যুক্তরাষ্ট্রের দু’টি ঘাঁটিতে ১৪ দিনের জন্য কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

অন্যদিকে, জাহাজটির করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেছে জাপান। ডায়মন্ড প্রিন্সেসের অন্য যাত্রীরা, যারা এ ভাইরাসে আক্রান্ত নয়, তারাও জাহাজটি ছাড়তে শুরু করেছেন। তবে, নিজের অজান্তেই এসব যাত্রী ভাইরাস বহন করে ছড়িয়ে দিতে পারেন, এমন আশঙ্কা করছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি) এক বিবৃতিতে বলে, জাহাজটির যাত্রীদের নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার হার থেকে এটিই বোঝা যায়, যাদের মধ্যে এ ধরনের কোনো লক্ষণ দেখা যায়নি, তারাও ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেন। মার্কিন নাগরিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায়, জাহাজ থেকে আসা সব যাত্রী ও ক্রু’র ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের আগে তাদের অন্তত ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে।

জাহাজের প্রায় তিন হাজার সাতশ’ যাত্রীকে দু’ সপ্তাহের বেশি সময় ধরে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল। তাদের মধ্যে ১০ শতাংশের বেশি যাত্রীই নতুন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে জাপান ছাড়াও আরও ১১ দেশের নাগরিক রয়েছেন। জাহাজটিতে অবস্থানরত নিজেদের নাগরিকদের ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য প্লেন পাঠাচ্ছে কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, ইতালি ও হংকং।

বুধবার পর্যন্ত চীনের মূল ভূখণ্ডে নতুন করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৭৪ হাজার ১৮৫ এবং মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৪ জনের। এছাড়া ফিলিপাইন, জাপান, তাইওয়ান ও ফ্রান্সে একজন করে এবং হংকংয়ে দু’জন মারা গেছেন। চীন ছাড়া অন্য দেশগুলোতে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় সাতশ’ জন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০
এফএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: করোনা ভাইরাস
চিকিৎসাধীন চট্টগ্রামের শীর্ষ তিন করোনাযোদ্ধা
শনির দশা কাটছে না রাজশাহীর আমের
লিবিয়ায় বেঁচে যাওয়া বাংলাদেশি যে লোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন
স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা
পত্নীতলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ ভাইয়ের মৃত্যু


দৌলতদিয়া ঘাটে বাড়ছে যাত্রীদের চাপ
ফতুল্লায় করোনা আক্রান্ত হয়ে আ’লীগ নেতার মৃত্যু
ঠাকুরগাঁওয়ে প্রথম করোনার উপসর্গ নিয়ে এক যুবকের মৃত্যু
চাষিদের স্বপ্ন হাঁড়িভাঙা আমে
নীলফামারীতে অতিবৃষ্টির কারণে ধান নিয়ে বিপাকে কৃষক