জম্মু-কাশ্মীরে তুষারপাতে নিহত ৬, আটকা পড়েছেন পর্যটকরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

তুষারধসে আটকা পড়েছে হাজার হাজার গাড়ি। ছবি: সংগৃহীত

walton

ভারতশাসিত জম্মু-কাশ্মীরের কুপওয়ারা জেলায় তুষারপাতে ছয়জন প্রাণ হারিয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও কয়েকজন। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) সন্ধ্যায় আলাদা দু’টি গাড়ি দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান তারা। নিহতদের মধ্যে চারজন সেনা সদস্য রয়েছেন। 

খবরে বলা হয়, জম্মু-কাশ্মীরে আকস্মিক তুষারঝড়ে স্থবির হয়ে গেছে জনজীবন। দ্বিতীয়দিনেই তাপমাত্রা নেমে গেছে হিমাঙ্কের ১০ ডিগ্রি নিচে। অবিরাম তুষারপাতে কয়েক ইঞ্চি বরফস্তরে ঢেকে গেছে পুরো এলাকা। এতে রাস্তাঘাট পিচ্ছিল আকার ধারণ করেছে। দুই হাত দূরেও কিছু দেখা যাচ্ছে না। 

দু’টি দুর্ঘটনাই ঘটেছে পিচ্ছিল রাস্তা থেকে গাড়ি ছিটকে পড়ায়। দু’জন মারা গেছেন তুষারঝড়ে পথ হারিয়ে। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

দুর্ঘটনা এড়াতে স্থানীয়দের বাইরে বের না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। পর্যটকদের হোটেলের ভেতরেই থাকতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে, সীমান্ত চৌকিগুলোতে টহলদারদের শীত নিবারণের যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এদিকে, শুক্রবার তুষারধসের কারণে গুলবা, লাহুল, কুলু ও মুঘল রোডে আটকা পড়েছে অন্তত চার হাজার গাড়ি। প্রাণহানি এড়াতে শ্রীনগর ও লেহ বিমাবন্দরে ১১টি ফ্লাইট বাতিল করেছে কর্তৃপক্ষ। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন কয়েক হাজার যাত্রী। 

গত বুধবার (৬ নভেম্বর) থেকে শুরু হওয়া তুষারপাত কতদিন অব্যাহত থাকবে তা এখনও বলতে পারছে না দেশটির আবহাওয়া দপ্তর। এক বিজ্ঞপ্তিতে স্থানীয়দের শীতকালীন সবধরনের সতর্কতা গ্রহণের প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে।    

বাংলাদেশ সময়: ১৫১২ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৮, ২০১৯
কেএসডি/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ভারত
Nagad
বাংলানিউজের শারমীনা ও শিমুলের বাবা আর নেই
ব্যাংকক থেকে রাতে ঢাকায় আনা হবে সাহারা খাতুনের মরদেহ
দেশবাসীকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর
সাতক্ষীরা মেডিক্যালে করোনা রোগীসহ ২ জনের মৃত্যু
হবিগঞ্জে আরও ২৯ জনের করোনা শনাক্ত


চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটে দেখা হবে রিয়াল-রোনালদোর!
শিখরে পৌঁছেও ছিলেন শেকড়ে, রাজশাহী ছাড়লেন না মরণেও
লোকমান মৃধার মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
বংশালে ১০ হাজার ইয়াবাসহ এক মাদক কারবারি গ্রেফতার
উইগুর নির্যাতন: মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় ৪ চীনা কর্মকর্তা