নেপালে পাহাড়ি নদীতে বাস পড়ে নিহত ১৭  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি- প্রতীকী

walton

নেপালের সিন্ধুপালচক জেলায় দেড়শ’ ফুট নিচের পাহাড়ি নদীতে যাত্রীবাহী বাস পড়ে শিশুসহ অন্তত ১৭ জনের প্রাণহানি হয়েছে। আহত হয়েছেন প্রায় ৫০ জন। এছাড়া কিছু যাত্রী নিখোঁজ রয়েছেন বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে।

রোববার (৩ নভেম্বর) রাজধানী কাঠমান্ডুর উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের সাঙ্কোসি নদীতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম থেকে এ তথ্য জানা যায়।   

জেলার কর্মকর্তা গোমা দেবি সেমজং সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানান, পাহাড়ি রাস্তায় চলার পথে যাত্রীতে পরিপূর্ণ বাসটি ১৬৫ মিটার নিচের নদীতে পড়ে যায়। এতে এখন পর্যন্ত ৭ শিশুসহ ১৭ জন নিহত হয়েছেন। চালকসহ আহত হয়েছেন আরও প্রায় ৫০ জন। আহতদের চিকিৎসা চলছে। 

গোমা আরও জানান, বাসে ঠিক কতো জন যাত্রী ছিল এ ব্যাপারে বাসমালিক কর্তৃপক্ষের কাছে কোনো তথ্য নেই, ফলে দুর্ঘটনায় কতো জন নিখোঁজ রয়েছেন তা বলা যাচ্ছে না।  

খবরে বলা হয়, দুর্ঘটনার পর উদ্ধারকাজে স্থানীয় মাঝিরা পুলিশ ও সেনাবাহিনীকে সহযোগিতা করে। তারপরও কিছু যাত্রী নিখোঁজ রয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

কর্তৃপক্ষ এখনও দুর্ঘটনার প্রকৃত কারণ নিশ্চিত করতে পারেনি। 

বেহাল রাস্তাঘাট, যানবাহন রক্ষণাবেক্ষণের অভাব ও বেপরোয়া গাড়ি চালানোর ফলে প্রায়ই হিমালয়ের এসব অঞ্চলে প্রাণঘাতী সড়ক দুর্ঘটনা হয়ে থাকে। গত মাসেও যাত্রীবাহী আরেকটি বাস নদীতে পড়ে ১১ জন নিহত হন। আহত হন শতাধিক।

বাংলাদেশ সময়: ১০১৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৪, ২০১৯
এইচজে

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: সড়ক দুর্ঘটনা
Nagad
করোনায় নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে মহিলা পরিষদের সংবাদ সম্মেলন
সেদিন কেঁদেছিল বাংলাদেশ
শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস বৃহস্পতিবার
নিল আর্মস্ট্রংয়ের চাঁদে যাত্রা
শাহজাহান সিরাজের দাফন সম্পন্ন


ডিএসসিসিতে সন্ধ্যা ৬টা থেকে বর্জ্য সংগ্রহ শুরু
কামরাঙ্গীরচরে সিনিয়র-জুনিয়র মারামারি, ছুরিকাঘাতে যুবক খুন
আগোরা স্মাইল হিরো খুলনার হাবিবুর রহমান
দেবহাটা থানায় সাহেদ করিমের বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলা
প্রথমবারের মতো পালিত বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবস