php glass

স্ট্রেস কমাতে খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন আনুন এখনই

স্বাস্থ্য ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

.

walton

বর্তমানে ‘স্ট্রেস’ শব্দটির সঙ্গে কমবেশি সবাই পরিচিত। মানসিক চাপ বা ধকল অর্থে শব্দটি বহুল ব্যবহৃত। ভালো চাকরি করছেন, ভালো জায়গায় পড়ালেখা করছেন, চমৎকার রুটিন মেনে চলায় সবার প্রিয় মানুষ আপনি। তারপরও দিনশেষে অনুভব করছেন প্রচণ্ড শূন্যতা! অযথাই নানা চিন্তা সিন্দাবাদের ভূতের মতো জেঁকে বসছে আপনার ঘাড়ে। অথচ ভেবেও পাচ্ছেন না কেন আপনার সঙ্গে এমন হচ্ছে। 

সেক্ষেত্রে প্রথমেই আপনার প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় নজর দিতে পরামর্শ দিয়েছেন ব্রিটিশ চিকিৎসক ও গবেষক ডা. রঙ্গন চ্যাটার্জি। এডিনবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের জার্নালে প্রকাশিত একটি গবেষণা প্রতিবেদনে তিনি বলেন, আমরা নিজেরাই নিজেদের স্ট্রেসের জন্য পুরোপুরি দায়ী। নিজের প্রতি যথেষ্ট সচেতনতাই পারে স্ট্রেসমুক্ত জীবন দিতে। এজন্য প্রথমেই খাদ্যতালিকায় পরিবর্তন আনার বিষয়ে বিশদ বর্ণনা করেছেন এই গবেষক। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেগুলো। 

১. ব্যাকটেরিয়া বা জীবাণু শুনলেই ভয় হয়। অথচ আপনার পাকস্থলীতে অসংখ্য উপকারী জীবাণু রয়েছে যা ক্যানসার হওয়া থেকেও রক্ষা করে আপনাকে। এই জীবাণুর সংখ্যা যদি কমে যায় তবে আপনার মেজাজও খারাপ হতে শুরু করবে। কেননা অনেক সময় আমরা শরীরের ভেতরের অস্বস্তি ধরতে পারি না। কিন্তু এটি প্রভাব ফেলে আমাদের মনে। তাই উপকারী জীবাণুর সংখ্যা ধরে রাখতে আপনাকে প্রথমেই খেতে হবে দই, কাস্টার্ড অথবা দুধজাতীয় খাবার। তবে অবশ্যই চিনি ছাড়া।.২. দেহে ভিটামিনের মাত্রা ঠিক রাখতে প্রতিদিন পাঁচ রঙের সবজি বা ফল খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। অনেক সময় আমরা বুঝতে পারি না কোন খাবার খেলে কী ভিটামিন পাওয়া যাবে। এক্ষেত্রে সহজ উপায় ভিন্ন রঙের সবজি বা ফল বাছাই করা। 

৩. চিনি বা মিষ্টিজাতীয় খাবার থেকে যতটা সম্ভব দূরে থাকুন। গবেষণায় বলা হয়েছে, নেশাজাতীয় যেকোনো দ্রব্যের চেয়ে কোনো অংশে পিছিয়ে নেই চিনি। আপনি যত মিষ্টিজাতীয় খাবার খাবেন ততই শরীরে চিনির চাহিদা তৈরি হবে। আর এটি মনের ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলে।  

৪. ধূমপান করেন না আবার কফিও খুব একটা খান না। এতেই ক্যাফেইনমুক্ত বলে ভাবছেন নিজেকে? শুনলে অবাক হবেন চকোলেট, আইসক্রিম, হট চকোলেট, সিরিয়াল, পুডিং এমনকী ফ্রোজেন দইয়েও ক্যাফেইন রয়েছে। তাই ক্যাফেইনযুক্ত যেকোনো খাবার খাওয়ার পর হাঁটুন বা ভারি কাজ করুন। এতে ক্যাফেইন শরীরে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারবে না। .৫. স্ট্রেসের সঙ্গে ক্ষুধাকে মিলিয়ে ফেলবেন না। রঙ্গন তার গবেষণায় দেখেছেন মানুষ মানসিক চাপে থাকলে প্রচুর অস্বাস্থ্যকর খাবার খেতে শুরু করে। বাইরে আড্ডায় ভাজাপোড়া বা জাঙ্কফুড খেয়ে যায় বিরামহীনভাবে। এটি মোটেও উচিত নয়।

আপনার দেহটাকে সুস্থ রাখার দায়িত্ব আপনার। মনের যত্ন নিন দেহেও রোগ বাসা বাঁধবে না। যথেষ্ট পরিশ্রম করুন পাশাপাশি অন্তত ৬-৮ ঘণ্টা পূর্ণ বিশ্রাম নিতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১০০৭ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৫, ২০১৯
কেএসডি/এএ 

মহাসড়কে যাত্রীদের শেষ ভরসা রিকশা-সিএনজি-লেগুনা
বিশ্বকাপের পরও খেলতে চান মালিঙ্গা
অনির্দিষ্টকালের জন্য সরে দাঁড়ালেন সানা মির
টিটিএডিসিকে টেরিটোরিয়াল কাউন্সিলে উন্নীত করার প্রস্তাব
কিন্ডারগার্টেন স্কুলগুলো নিবন্ধনের আওতায় আনা হবে


গাজীপুরে যান চলাচল কম, ভোগান্তিতে দূরপাল্লার যাত্রীরা
খাগড়াছড়িতে বাবাকে হত্যার দায়ে ছেলের মৃত্যুদণ্ড
অভিনেত্রী নওশাবার মামলা হাইকোর্টে স্থগিত
‘পরিবহনে চাঁদাবাজি বন্ধ হলে সব সমস্যার সমাধান হবে’
রাউজানে বিপুল অস্ত্রসহ ডাকাত সর্দার গ্রেফতার