ইনসমোনিয়া ও অ্যানিমিয়া প্রতিরোধে জিরা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
ভারতীয় উপমহাদেশের রন্ধনশিল্পে জিরার প্রচুর ব্যবহার রয়েছে। ডাল, মাংস, কাবাবসহ বিভিন্ন ঝাল খাবারে জিরা ব্যবহার করা হয়। সুগন্ধী এ মসলাটির কিছু স্বাস্থ্য গুণাগুণও রয়েছে।

ঢাকা: ভারতীয় উপমহাদেশের রন্ধনশিল্পে জিরার প্রচুর ব্যবহার রয়েছে। ডাল, মাংস, কাবাবসহ বিভিন্ন ঝাল খাবারে জিরা ব্যবহার করা হয়। সুগন্ধী এ মসলাটির কিছু স্বাস্থ্য গুণাগুণও রয়েছে।
 
জিরা হজম শক্তি বাড়ায় ও ইনসমোনিয়া প্রতিরোধ করে। কোষ্ঠকাঠিন্য, অ্যাজমা এমনকি ক্যানসারও প্রতিরোধ করে এ মসলাটি।


যাদের কোষ্ঠকাঠিন্য রয়েছে তারা জিরা গুঁড়া করে নিন। পানিতে মিশিয়ে মধু সমেত খালিপেটে খান। প্রতিদিন ডাল রান্নার সময় এক চিমটি জিরাগুঁড়া মিশিয়ে এড়াতে পারেন ক্যানসারের ঝুঁকি।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রোজ সকালে খালি পেটে জিরা পানি পান করুন। রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে ও হৃৎপিণ্ডের গতি স্বাভাবিক থাকবে। ঠাণ্ডার সমস্যা থ‍াকলে দু’কাপ পানিতে এক টেবিল চামচ জিরা ফোটান।

ছেঁকে পান করুন। যাদের অ্যানিমিয়া রয়েছে তারা খাবারে জিরা গুঁড়া ছিটিয়ে খেলে উপকার পাবেন। গর্ভবতী নারীরা দুধে জিরাগুঁড়া ও মধু দিয়ে খান। এভাবে দিনে দু’বার খাওয়া যেতে পারে। শুধু শরীর কেন স্মৃতিশক্তি বাড়াতেও জিরার জুড়ি নেই। জিরা গুঁড়া করে বোতলে রেখে দিন। প্রতিদিন খাবারের সঙ্গে এক চিমটি মিশিয়ে খান।

তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট।

বাংলাদেশ সময়: ০০৫৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৩, ২০১৬
এসএমএন/এএ

Nagad
বন্ধ পাটকলগুলো আধুনিকায়ন করা হবে: প্রধানমন্ত্রী
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪১ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৩০৭
চট্টগ্রামেও কোরবানির পশু পরিবহন করবে ট্রেন
ঈদের আগেই বেতন-বোনাস দাবি শিক্ষক-কর্মচারীদের
ফিল্ড হাসপাতালে হাই ফ্লো-ন্যাসাল ক্যানোলা প্রদান


খুলনা জেলা পরিষদের শিক্ষাবৃত্তি পেলো ৪৫০ ছাত্র-ছাত্রী
শূন্য পদে নিয়োগ চান এসআই সুপারিশ বঞ্চিতরা
দোকানে মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য, হোটেলে বাসি খাবার
আশুলিয়ায় চাঁদাবাজির অভিযোগে যুবক আটক
করোনায় আতঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর