রোগীর চেয়ে ডাক্তার বেশি, তবু সেবার মান নিয়ে প্রশ্ন

1009 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসা সেবার মান নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়েছে। রোববার (২ আগস্ট) জাতীয় সংসদ ভবনে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়।

ঢাকা: রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসা সেবার মান নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়েছে। রোববার (২ আগস্ট) জাতীয় সংসদ ভবনে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়।

বৈঠকে বলা হয়, দেশের অন্য সব সরকারি মেডিকেল কলেজে ডাক্তারের অভাব থাকলেও, বিএসএমএমইউতে অতিরিক্ত ডাক্তার রয়েছে। এ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমও।

বৈঠক শেষে কমিটির কার্যপত্রে মন্ত্রীর বক্তব্যের বিষয়টি উঠে আসে। বৈঠকে মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোগত সুযোগ-সুবিধা বহুগুণ বৃদ্ধি করা হয়েছে। দেশের অনেক হাসপাতালে ডাক্তারের অভাব থাকলেও এখানে অতিরিক্ত ডাক্তার রয়েছে। কিন্তু এখানকার সেবার মান সন্তোষজনক নয়, এটা বঙ্গবন্ধুর নামের সঙ্গে জড়িত প্রতিষ্ঠানটির মর্যাদা ক্ষুণ্ন করে।

বিষয়টি দায়িত্বপ্রাপ্ত নতুন উপাচার্যকে গুরুত্বে সঙ্গে বিবেচনার করার পরামর্শ দেন মন্ত্রী।
 
বৈঠকে কমিটির আরেক সদস্য বলেন, বিএসএমএমইউতে ইন্টার্নসহ ১২০০ ডাক্তার রয়েছেন। এখানে রোগীর সংখ্যাও এতো নেই। তাহলে সেবার মান এতো খারাপ হবে কেন? দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে রোগীরা এখানে আসেন, অথচ সেই মানের চিকিৎসা সেবা পান না।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত কমিটির গত বৈঠকেই বিষয়টি আলোচনায় তোলা হয়েছিল। রোববারের বৈঠকে এসব আলাপের পাশাপাশি নতুন উপাচার্য প্রফেসর ডা. কামরুল হাসান খান বিএসএমএমইউ’র সার্বিক কার্যক্রম তুলে ধরেন।

উপাচার্যের উত্থাপিত কার্যপত্রে বলা হয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে রোগীদের সেবার ক্ষেত্রে কিছুটা অভিযোগ রয়েছে, এটা নিরসনে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এখানে নতুন আইসিইউ, আধুনিক অপারেশন থিয়েটার ও আউটডোর চালু করা হয়েছে। অটিজম রোগীদের জন্য একটি প্রকল্প অনুমোদিত হলেও জায়গার অভাবে প্রকল্পের কাজ শুরু করা যাচ্ছে না।
 
তার কার্যপত্রে আরও বলা হয়, ডাক্তারদের অনেক সুযোগ সুবিধা দেওয়া হয়েছে। এখন ডাক্তারদের উচিত জাতির সেবায় নিজেদের নিবেদিত করা। হাসপাতালে ডাক্তারদের কর্মঘণ্টা সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত নির্ধারিত। এই কর্মঘণ্টা অবশ্যই ৮টা হতে বিকেল ৫টা পর্যন্ত হওয়া উচিত। ডাক্তাররা অতিমাত্রায় প্রাইভেট প্র্যাকটিসে লিপ্ত হচ্ছেন।

এ ধরনের প্র্যাকটিস বন্ধ করতে প্রয়োজনে আইন প্রয়োগের কথা বলে এ ব্যাপারে সকলের সহযোগিতা চান উপাচার্য।
 
বৈঠকে বিএসএমএমইউ উপাচার্য ইন্টার্ন ডাক্তারদের ভাতার হার ১০ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ২০ হাজার করার প্রস্তাব করেন। পরে মন্ত্রী বিষয়টি মন্ত্রণালয়ের বিবেচনাধীন রয়েছে বলে জানান।

এসব বিষয়ে কমিটি সদস্য ডা. ইউনুস আলী সরকারের সঙ্গে আলাপ করলে তিনি বাংলানিউজকে বলেন, ‘মন্ত্রী কথার কথা এসব বলেছেন’।

ডা. ইউনুস আলী সরকার বলেন, বাস্তবতা হলো- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা সেবার মান অতো খারাপ না। তবে কিছু সমস্যা তো আছেই। সেসব সমস্যা সমাধান করার জন্য কর্তৃপক্ষকে বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৪ ঘণ্টা, আগষ্ট ০২, ২০১৫
এসএম/এইচএ/

Nagad
চীনের সঙ্গে ৯০০ কোটি রুপির ব্যবসা বাতিল হিরোর
সিলেটে বিনামূল্যে বাসায় পৌঁছাবে অক্সিজেন সেবা
সাংবাদিক নাজমুল হকের জন্ম
ইতিহাসের এই দিনে

সাংবাদিক নাজমুল হকের জন্ম

স্বর্ণের মাস্ক পরছেন ভারতীয়!
জাপানে বন্যা-ভূমিধস, ১৫ জনের মৃত্যুর আশঙ্কা


ভুতুড়ে বিল: ডিপিডিসির ৫ প্রকৌশলী বরখাস্ত, ৩৬ জনকে শোকজ
ইন্ডাস্ট্রি একাডেমিয়া লিংকেজ তৈরি করা খুবই জরুরি: উপমন্ত্রী
সীমান্তে ২৮টি ভারতীয় গরু জব্দ
লাল-সবুজ পতাকা অস্তিত্বে, তাই শিবনারায়নের পাশে দাঁড়িয়েছি
রাজশাহীতে হারিয়ে যাওয়া সেই শিশুটি বাবাকে ফিরে পেয়েছে