আইজিসিসির সঙ্গীত আয়োজনে বাংলা গানের ২৫০ বছর স্মরণ

ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

গান পরিবেশন করছেন চন্দ্রবলী রুদ্র দত্ত। ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ঢাকা: পুরনো বাংলা গান, রবীন্দ্রসঙ্গীত, নজরুলগীতি, আধুনিক বাংলাসহ বিভিন্ন ধারার গান পরিবেশন করে দর্শকদের মুগ্ধ করলেন ভারতীয় কণ্ঠশিল্পী চন্দ্রবলী রুদ্র দত্ত।

সোমবার (৯ এপ্রিল) সন্ধ্যায় রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল অডিটরিয়ামে আয়োজিত এক সঙ্গীতসন্ধ্যায় তিনি এসব গান পরিবেশন করেন। 

‘বাংলা গানের ২৫০ বছর’ উপলক্ষ্যে ইন্দিরা গান্ধী কালচারাল সেন্টার (আইজিসিসি) এ সঙ্গীতসন্ধ্যার আয়োজন করে।

আয়োজনে শিল্পী- আমি এসেছি, তুমি নির্মল কর, লাবণ্যে পূর্ণ প্রাণ, দূর দীপবাসিনী, ছিল চাঁদ মেঘেরাসহ বিভিন্ন গান পরিবেশন করেন। এসব গানের মধ্য দিয়ে বাংলা গানের ২৫০ বছর স্মরণ করা হয়।

আয়োজন সম্পর্কে আইজিসিসি’র পরিচালক জয়শ্রী কুন্ডু বাংলানিউজকে বলেন, বাংলা গান আমাদের অনন্য এক সম্পদ। যুগ যুগ ধরে তা মানুষের মনের কথা বলে আসছে। আমরা যেখানে ভাষা হারিয়ে ফেলি, সেখান থেকেই যেন আমাদের না বলা কথাগুলো গান বলে দেয়। সেই গানকে স্মরণ করেই আমাদের এ আয়োজন।

শিল্পী চন্দ্রবলী রুদ্র দত্ত কলকাতা তথা পশ্চিমবঙ্গের একজন খ্যাতিমান কণ্ঠশিল্পী। বাংলা সঙ্গীতের বিভিন্ন ধারায় তার সাবলীল পদচারণা। তিনি অলইন্ডিয়া রেডিও ও দূরদর্শনের একজন নিয়মিত শিল্পী। ভারত ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডার মতো বিভিন্ন দেশে তিনি কনসার্ট করেছেন। পাশাপাশি সঙ্গীত জীবনে বহু পুরষ্কার ও সম্মাননা লাভ করেছেন চন্দ্রাবলী। তিনি পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সঙ্গীত একাডেমির প্রথম পুরষ্কার অর্জন করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২৩০৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৯, ২০১৮
এইচএমএস/এনটি

চীন বাদ দিয়ে ভারতে ব্যবসা আনার পরিকল্পনা করছে অ্যাপল
শাহজাদপুরে যমুনার ভাঙনে বিলীন ২ শতাধিক ঘরবাড়ি
রসিক মেয়রকে কাউন্সিলদের আল্টিমেটাম
বিক্ষোভে সমর্থন দিলেন বুশ-ক্লিনটন-ওবামারা
‘আমার জীবন, আমার যোগ– বাংলাদেশ’ অনলাইন প্রতিযোগিতা


করোনা দেখালো সংক্রামক রোগ সীমান্ত চেনে না
গাজীপুরে করোনা নিয়েই কাজে যোগ দিলেন শ্রমিক!
বর্ণ বৈষম্যের প্রতিবাদ করে ট্রলের শিকার কারিনা
ইনজুরিতে পড়েননি মেসি, খেলবেন 'শুরু' থেকেই
ভূমিমন্ত্রীর নির্দেশে আইসোলেশন সেন্টার হচ্ছে আনোয়ারায়