জন্মদিনের অনুষ্ঠানের টাকায় দরিদ্রদের জন্য কিছু করা উচিত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ইলিয়াস কাঞ্চন। ছবি: শাকিল আহমেদ

walton

ঢালিউডের অন্যতম সফল চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। এক সময় তার নতুন সিনেমা মুক্তির সময় দর্শকে পূর্ণ থাকতো প্রেক্ষাগৃহ। বাংলা সিনেমার ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যবসাসফল সিনেমা ‘বেদের মেয়ে জোছনা’র নায়ক তিনি। মঙ্গলবার (২৪ ডিসেম্বর) খ্যাতিমান এই অভিনেতার ৬৩তম জন্মদিন।

ইলিয়াস কাঞ্চন তার জন্মদিনে বিশেষ কোনো আয়োজন রাখেন না। এবারও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। অন্য দিনগুলোর মতো কর্ম-ব্যস্ত সময় কাটছে তার।

বাংলানিউজের সঙ্গে আলাপে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, আমি কখনই ঘটা করে অনুষ্ঠান করি না। কারণ আমার কাছে মনে হয় অনুষ্ঠান করে টাকা নষ্ট করার কোনো মানে হয় না। উচিত সেই টাকা দিয়ে দরিদ্র মানুষদের জন্য কিছু করা।

নিজে কোনো আয়োজন না করলেও রাত ১২টার পর ইলিয়াস কাঞ্চনের মেয়ে তার জন্মদিনে কেক নিয়ে হাজির হয়েছেন বলে জানান তিনি। তার অফিসের সহকর্মীরাও কেক কেটে প্রিয় মানুষটির জন্মদিন উদযাপন করছেন।

জনপ্রিয় এই অভিনেতা জানান, সিনেমায় আসার আগে তার জন্মদিন কেউ উদযাপন করতেন না। অভিনয় শুরু করার পর থেকে ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুরা, সহকর্মীরা তাকে নানাভাবে সারপ্রাইজড করেছেন। তবে স্ত্রীকে হারানোর পরের জন্মদিনটা তাকে খুব কষ্ট দিয়েছে।

ইলিয়াস কাঞ্চনের ভাষ্যে, জাহানারা আমার প্রতিটি জন্মদিন উদযাপন করত। আমাকে নানা উপহার দিত। তখন সবাইকে নিয়ে খুব সুন্দর সময় কাটত। জাহানারার মৃত্যুর বছরের জন্মদিনটা আমার জীবনে সবচেয়ে বেশি কষ্টদায়ক ছিল। সেই দিনের কথা কখনো ভুলে যাওয়া সম্ভব না।

১৯৯৩ সালের ২২ অক্টোবর মর্মান্তিক এক সড়ক দুর্ঘটনায় স্ত্রী জাহানারাকে হারান ইলিয়াস কাঞ্চন। এরপর সম্পূর্ণ বদলে যান তিনি। টানা ২৬ বছর ধরে পরিবহন মাফিয়াদের হুমকি উপেক্ষা করে একাই আন্দোলন করে চলেছেন ‘নিরাপদ সড়ক চাই’র।

ঢাকাই সিনেমার অন্যতম নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন একসঙ্গে রোমান্টিক, অ্যাকশন, কমেডিয়ান এবং পরিবার গল্পের সিনেমায় অভিনয় করেছেন। ১৯৫৬ সালের কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলায় আশুতিয়াপাড়া গ্রামে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম হাজী আব্দুল আলী ও মাতা সরুফা খাতুন।

কৈশোর থেকেই অভিনয়ের প্রতি ঝোঁক ছিলে তার। ১৯৭৭ সালে কিংবদন্তি নির্মাতা সুভাষ দত্তের ‘বসুন্ধরা’ সিনেমার মাধ্যমে ববিতার বিপরীতে বড় পর্দায় অভিষেক ঘটে ইলিয়াস কাঞ্চনের।

এখন পর্যন্ত ৩৫০টিরও বেশি সিনেমায় তিনি অভিনয় করেছেন। এরমধ্যে বেশিরভাগ সিনেমায় ব্যবসায়িকভাবে সাফল্য পেয়েছে।

১৯৮৯ সালে তোজাম্মেল হক বকুল পরিচালিত ‘বেদের মেয়ে জোছনা’ সিনেমায় ইলিয়াস কাঞ্চন জুটি বেঁধে অঞ্জু ঘোষের সঙ্গে অভিনয় করেন। সিনেমাটি আজও দৃষ্টান্ত হয়ে রয়েছে। 

১৯৭৫ সালে কবি নজরুল সরকারী কলেজ থেকে এইচ.এস.সি পাস করেন তিনি। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শেষ করেন এ তারকা। 

এরই মধ্যে অভিনয় জীবনের চার দশক পার করলেও এখন আর সিনেমায় ইলিয়াস কাঞ্চনকে অভিনয় করতে দেখা যায় না।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৯
জেআইএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: সিনেমা
খাগড়াছড়িতে আইসোলেশনে মারা যুবকের করোনা ছিল না
করোনা: বিনামূল্যে অ্যাপলয়ি দিচ্ছে টাইম ট্র্যাকিং সফটওয়্যার
মা হারালেন হাবিবুল বাশার সুমন
কোয়ারেন্টিন শেষে বরিশালে ১২০৪ জনকে ছাড়পত্র
জেলা প্রশাসনের খাবার গেল দিনমজুরদের বাড়ি


চলে গেলেন ফ্রান্সের ৮৪’র ইউরো জেতানো কোচ হিদালগো
ফেনীতে ৯৬১ বিদেশফেরত হোম কোয়ারেন্টিনে
১০ কেজি করে চাল-নগদ টাকা পাবে নিম্ন আয়ের মানুষ
বিনামূল্যে পিপিই সরবরাহ করার ঘোষণা ফর্টিস গ্রুপের
কোভিড-১৯ ঠেকাতে কমলনগরের হাট-বাজারে ‘সামাজিক দূরত্ব চিহ্ন’