লাইফ সাপোর্টে সঙ্গীতশিল্পী সুবীর নন্দী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দী

walton

ঢাকা: গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দীকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচে) ভর্তি করা হয়েছে।

php glass

রোববার (১৪ এপ্রিল) সন্ধ্যায় সিলেট থেকে ঢাকা ফেরার পথে হৃদরোগে আক্রান্ত হলে রাত ৮টার দিকে তাকে সিএমএইচে নেওয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া গুণী এই শিল্পীকে। ৭২ ঘণ্টা যাওয়ার পর তার পরবর্তী অবস্থা সম্পর্কে জানা যাবে বলে ডাক্তার জানিয়েছেন।

শিল্পীর কন্যা ফাল্গুনি নন্দী জানান, সুবীর নন্দীর অবস্থা গুরুতর। চিকিৎসকরা তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখেছেন।

৬৬ বছর বয়সী সুবীর নন্দী দীর্ঘদিন ধরে কিডনির জটিলতায় ভুগছেন। নিয়মিত তার ডায়ালাইসিস করতে হচ্ছিল।  

সংগীত অঙ্গনে চার দশকের ক্যারিয়ারে আড়াই হাজারের বেশি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন এই শিল্পী। সংগীতে অবদানের জন্য এ বছরই তাকে একুশে পদকে ভূষিত করে সরকার।

 ১৯৫৩ সালের ১৯ নভেম্বর হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলার নন্দীপাড়ায় সুবীর নন্দীর জন্ম। 

সুবীর নন্দীর কণ্ঠে জনপ্রিয় গানের মধ্যে উল্লেখযোগ্য— ‘দিন যায় কথা থাকে’, আমার এ দুটি চোখ পাথর তো নয়’, ‘পৃথিবীতে প্রেম বলে কিছু নেই’, ‘হাজার মনের কাছে প্রশ্ন রেখে’, ‘বন্ধু তোর বরাত নিয়া’, ‘বন্ধু হতে চেয়ে তোমার’, ‘কতো যে তোমাকে বেসেছি ভালো’, ‘পাহাড়ের কান্না দেখে’, ‘আমি বৃষ্টির কাছ থেকে কাঁদতে শিখেছি’, ‘কেন ভালোবাসা হারিয়ে যায়’, একটা ছিল সোনার কইন্যা’।

‘প্রেম বলে কিছু নেই’, ‘ভালোবাসা কখনো মরে না’, সুরের ভুবনে, ‘গানের সুরে আমায় পাবে’ সুবীর নন্দীর একক অ্যালবাম।

বাংলাদেশ সময়: ১০৩০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৫, ২০১৯
এমজেএফ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: সংগীত
ভারতের সঙ্গে বিদ্যমান সম্পর্ক অব্যাহত থাকবে
মোদীকে অভিনন্দন জানালেন যুবলীগ চেয়ারম্যান
বিজেপির বিজয়ে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় হবে:এরশাদ
কমলাপুর রেলস্টেশনে আগুন, প্রাথমিক অবস্থাতেই নিয়ন্ত্রণ
ধানের দাম অস্বাভাবিকভাবে কমে যাওয়ায় সরকার উদ্বিগ্ন


ইফতার করা হলো না দম্পতির
না’গঞ্জে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় প্রাণ গেলো কিশোরের
সিইপিজেডে ফ্যাক্টরির আগুন নিয়ন্ত্রণে
ধারাবাহিকতা ধরে রাখাই লক্ষ্য মাশরাফির
১২ ঘণ্টা পর সচল সিলেট-তামাবিল সড়ক