কাদের খানের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ বলিউড

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কাদের খানের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ বলিউড

walton

পর্দায় যার উপস্থিতি সবসময় দর্শকদের হাসিয়েছে, আজ তার চির বিদায় সবাইকে কাঁদাচ্ছে। ৮১ বছর বয়সে না ফেরার দেশে চলে গেলেন ভারতের বর্ষীয়ান অভিনেতা কাদের খান।

php glass

সোমবার (৩১ ডিসেম্বর) স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় কানাডার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এই কিংবদন্তি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

প্রখ্যাত অভিনেতার মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ হয়ে পড়েছে পুরো বলিউড। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে মেগাস্টার অমিতাভ বচ্চন পর্যন্ত কাদের খানের বিদায়ে টুইটারে শোক প্রকাশ করেছেন।

শোক প্রকাশ করে নরেন্দ্র মোদী টুইট করেন, কাদের খান জি তার দুর্দান্ত অভিনয় দিয়ে সবসময় সিনেমার পর্দা আলোকিত করেছেন। তিনি একজন গুণী চিত্রনাট্যকার ছিলেন এবং বহু বিখ্যাত সিনেমায় কাজ করেছেন। তার মৃত্যু আমাকে অনেক কষ্ট দিয়েছে। ওনার পরিবার এবং ভক্তদের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।

অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন লেখেন, কাদের খান চলে গেলেন; খুব কষ্টদায়ক সংবাদ পেলাম। আমার প্রার্থনা এবং সমবেদনা রইলো। তিনি বুদ্ধিদীপ্ত একজন শিল্পী ছিলেন, মেধার স্বাক্ষর রেখে গেছেন তার সিনেমাগুলোতে। তিনি বহু সফল সিনেমার লেখকও। তার সঙ্গ সবাইকে আনন্দ দিত। ছিলেন একজন গণিতজ্ঞ।

বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন বলিউডের আরেক প্রখ্যাত অভিনেতা ঋষি কাপুর। সেখান থেকে তিনি লেখেন, কাদের ভাই খান সাহেব! আমাদের সব কাপুরদের সঙ্গে আপনার দীর্ঘদিনের সম্পর্ক। আপনি অনেক কাজ করেছেন, অনেককিছু আপনার কাছ থেকে শিখেছি। আপনি জান্নাতবাসী হোন, আমিন।
 
প্রবীণ অভিনেতা অনুপম খের লেখেন, কাদের খান আমাদের দেশের অসাধারণ একজন অভিনেতা ছিলেন। শুটিং সেটে তার কাছ থেকে অনেককিছু শিখেছি ও আনন্দময় সময় কাটিয়েছি। চমৎকার একজন লেখক ছিলেন। তাকে আমরা অনেক মিস করবো।

সুপারস্টার অক্ষয় কুমার লেখেন, কাদের খান সাহেবের মৃত্যুর খবর শুনতে পেয়ে অনেক কষ্ট পেয়েছি। তার সঙ্গে বেশ কয়েকটি সিনেমায় আমার কাজ করার সৌভাগ্য হয়েছে। তিনি অসাধারণ একজন অভিনেতা ও খুব ভালো কমেডিয়ান ছিলেন। তার পরিবারের জন্য প্রার্থনা করছি।  

ভারতের স্বনামধন্য গায়িকা লতা মঙ্গেশকর লেখেন, আমার পছন্দের অভিনেতা ও লেখক কাদের খান জির চলে যাওয়ার সংবাদ শুনে খুব কষ্ট পেয়েছি। আমাদের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি একজন গুণী অভিনেতা ও লেখক হারালো। তার প্রতি আমার বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি।

তরুণ অভিনেতা অর্জুন কাপুর লেখেন, একজন অভিনেতা ও লেখক হিসেবে তিনি একটি প্রজন্মকে চিনিয়েছেন। তার চলে যাওয়ায় ইন্ডাস্ট্রিতে যে ক্ষতি হয়েছে, তা কখনই পূরণ হবে না। আমি তার আত্মার শান্তি কামনা করছি ও তার পরিবারের জন্য আন্তরিক প্রার্থনা করছি।    

কাদের খান ১৯৩৫ সালের ২২ অক্টোবর আফগানিস্তানের কাবুলে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন একাধারে চলচ্চিত্র অভিনেতা, কমেডিয়ান, চিত্রনাট্য ও সংলাপ লেখক এবং পরিচালক।

তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমার মধ্যে রয়েছে-‘দুলহে রাজা’, ‘হিম্মতওয়ালা’, ‘হাসিনা মান যায়েগি’ ইত্যাদি। ২০১৫ সালে ‘হো গায়া দেমাগ কা দাহী’ সিনেমার মধ্য দিয়ে কাদের খান শেষবার পর্দায় হাজির হন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০১, ২০১৯
জেআইএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: বলিউড
ভারতে ভোট গণনায় কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা
অস্ত্রসহ গ্রেফতার ছিনতাইকারী
মানুষের মৃত্যুর প্রহর গুনেন তারা
অসহ্য গরমের পর স্বস্তির বৃষ্টি চট্টগ্রামে
পাইকারিতে আড়াই টাকার লেবু খুচরা পর্যায়ে ১০ টাকা


মার্কেটে মার্কেটে পুলিশের সেবা বুথ
ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে লক্ষ্য সুনির্দিষ্ট: পলক
২৫০ রোগীর বিপরীতে ১ জন চিকিৎসক
বগুড়া-৬ উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছেন না খালেদা জিয়া
খিলগাঁয়ে কাভার্ড ভ্যানচাপায় শিক্ষার্থীর মৃত্যু