অনএয়ারে ‘কামিং সুন’

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ধারাবাহিক নাটক ‘কামিং সুন’-এর প্রচার শুরু হচ্ছে ৭ আগস্ট থেকে এটিএনবাংলায়। ড. মোহিত কামালর ‘মায়াবতী’ উপন্যাসের ছায়া অবলম্বনে এটি রচনা করেছেন যৌথভাবে সিমু নাসের ও শরাফ আহমেদ জীবন। পরিচালনায় রয়েছেন শরাফ আহমেদ জীবন। প্রতি শনি ও রবিবার রাত ৯টা ৩০ মিনিটে ধারাবাহিকটি প্রচার হবে এটিএন বাংলায়।

ধারাবাহিক নাটক ‘কামিং সুন’-এর প্রচার শুরু হচ্ছে ৭ আগস্ট থেকে এটিএনবাংলায়। ড. মোহিত কামালর ‘মায়াবতী’ উপন্যাসের ছায়া অবলম্বনে এটি রচনা করেছেন যৌথভাবে সিমু নাসের ও শরাফ আহমেদ জীবন। পরিচালনায় রয়েছেন শরাফ আহমেদ জীবন। প্রতি শনি ও রবিবার রাত ৯টা ৩০ মিনিটে ধারাবাহিকটি প্রচার হবে এটিএন বাংলায়।

এতে দেখা যাবে, ফয়সাল সদ্য জাপান ফেরত এক যুবক। জাপানে সে বড় একটা চাকরি করতো। সুখে শান্তিতেই সেখানে কেটে যাচ্ছিল তার জীবন। কিন্তু এই সুখ সমৃদ্ধিময় জীবন, বড় চাকরি ছেড়ে সে একদিন বাক্স পেটরা গুছিয়ে চলে আসে দেশে।ফয়সাল মনে প্রানে বিশ্বাস করেÑজীবনটা সুন্দর, দেশের তরুণরা সম্ভাবনাময়। কিন্তু এর ভেতর অনেকেই হতাশাগ্রস্থ। তাদের কোন স্বপ্ন নেই। ফয়সাল এই জায়গাগুলোর পরিবর্তন চায়। সে আর জাপান যাবে না। ফয়সাল ভাবে, জাপান যদি নিজেদের উন্নতি করতে পারে আমরা পারবো না কেন?

ফয়সালের এই দিনবদলের ভূবনে যোগ দেয় তার সদ্য ভার্সিটি ভর্তি হওয়া ভাগনী তিলা আর তিলার বন্ধুরা। সে জানে, তাদের এই চেষ্টা হয়তো বিশাল কোন পরিবর্তন ঘটাতে না পারলেও একটা সূচনা হয়তো করতে পারবে। শুধু ‘কিছুই হবে না’- এই ভেবে বসে থাকা যাবে না। মফস্বলের স্কুলের বাচ্চাদের দিয়ে তার পরিবর্তনের প্রথম ধাপ শুরু করে। সে বিশ্বাস করে, এই বাচ্চারাই আগামী দিনের ভবিষৎ। ওদের যদি সঠিক জিনিসটা শেখানো যায় তাহলে এক সময় অটোমেটিকেলি পরিবর্তন চলে আসবে। তবে তার এই বিষয়গুলো যে সবাই ভালো ভাবে দেখে তা না কেউ কেউ পাগলামী বলে উড়িয়ে দিয়ে।

তিলা, তার তিন বান্ধবী বিপা, সারা, ইমি। এদের প্রত্যেকের জীবনেও আছে অসাধারন সব গল্প। সেই গল্পে আছে হাসি-কান্না, রাগ-অভিমান, এই বয়সের পাগলামী, প্রেম, হঠাৎ ভুল করে আÍঘাতী সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলার পরিনতি। ফয়সাল জীবন যাত্রার এই রসায়নকে আরও অর্থবহ করে তোলে দূর্দান্ত সব কর্মকান্ড করে। জড়িয়ে পড়ে সে অনেক ব্যক্তিগত বিষয়ে। বিপাকে সাহায্য করতে গিয়ে নিজেই ভালবাসায় জড়িয়ে পড়ে। কিন্তু ভালবাসার কথা বলতে পারে না। এটা-একদিক দিয়ে যেমন ফয়সালের সমাজ পরিবর্তনের গল্প অন্যদিকে চারটি মেয়ের জীবনেরও গল্প। যারা স্বপ্নকে জয় করতে চায়। তাদের জন্য দরকার একটু সাহস। সাহস থাকলেই একদিন পরিবর্তন আসবে এবং তা খুব শীঘ্রই, এই বিশ্বাস নিয়েই এগিয়ে চলে নাটকের প্রধান প্রধান পাত্র-পাত্রী।

ধারাবাহিক নাটক ‘কামিং সুন’-এ অভিনয় করেছেনমোশাররফ করিম,মারজুক রাসেল,কচি খন্দকার,ইলোরা গহর, মনিরা মিঠু, শায়না, রাহা, ভাবনা, মিশু সাব্বির. নাঈম, মাশিয়াত, ডিকন নূর, রিতু, অলক বসু, মিতা মাহমুদ, বাপ্পি ও আরো অনেকেই।

বাংলাদেশ সময় ১৩০৫, আগস্ট ০৭, ২০১১

শেবামেকে করোনা ল্যাব, বুধবার শুরু হচ্ছে প্রশিক্ষণ-টেস্ট 
যাত্রাবাড়ীতে কর্মহীন মানুষের মধ্যে যুবলীগের ত্রাণ বিতরণ
করোনা মোকাবিলায় অর্থনৈতিক গতিশীলতা ধরে রাখতে হবে
চলে গেলেন রিয়াল, বার্সা, অ্যাতলেটিকোর সাবেক কোচ অ্যান্টিচ
করোনা: বরিশাল জেলায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা


সাজেকে ‘হাম-রবেলা’ টিকা ক্যাম্পেইন শুরু
ত্রিপুরায় করোনায় আক্রান্ত একজন শনাক্ত
বিনিয়োগ বাড়লেও ইপিজেডে কমেছে জনবল
করোনা: লালমনিরহাটে বেগুনের কেজি ২ টাকা!
হাসপাতাল থেকে ফিরিয়ে দেওয়ায় রাস্তায় ইজিবাইকে জন্ম নিলো শিশু