কিশোরগঞ্জের ১১ উপজেলায় আ’লীগ ৭, অন্যান্য ৪

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

উপজেলা নির্বাচনের লোগো

walton

কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জের ১৩ উপজেলার মধ্যে এক উপজেলার ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। বাকি ১১টিতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত ৭ এবং জাতীয় পার্টিসহ স্বতন্ত্র ৪ প্রার্থী বেসরকারিভাবে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

php glass

এর মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদরের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) মামুন আল মাসুদ খান ৪০ হাজার ৮৬৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগে সাকা উদ্দিন আহাম্মদ রাজন পেয়েছেন ২৩ হাজার ৯৯৩ ভোট।
 
করিমগঞ্জ উপজেলায় ৪৪ হাজার ৪৬৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের নাসিরুল ইসলাম খান আওলাদ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) রফিকুর রহমান পেয়েছেন ২৯ হাজার ৩০১ ভোট। 

তাড়াইল উপজেলায় জাতীয় পার্টির প্রার্থী জহিরুল ইসলাম ভূঞা শাহীন ২৬ হাজার ৪০৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী আজিজুল হক ভূঞা পেয়েছেন ১৬ হাজার ১ ভোট।
 
হোসেনপুর উপজেলায় ৩১ হাজার ১৮৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) মোহাম্মদ সোহেল। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের শাহজাহান পারভেজ পেয়েছেন ২৩ হাজার ৭৯২ ভোট।
 
পাকুন্দিয়া উপজেলায় আওয়ামী লীগের রফিকুল ইসলাম রেনু ৪২ হাজার ৫১৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির জাহাঙ্গীর আলম শওকত পেয়েছেন ৭ হাজার ১৬০ ভোট। 

নিকলী উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) রুহুল কুদ্দুস ভূইয়া ২৮ হাজার ৬৫৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের সাইফুল ইসলাম পেয়েছেন ২৪ হাজার ৩০৭ ভোট। 

ইটনা উপজেলায় নৌকা প্রতীকের চৌধুরী কামরুল হাসান ৪৫ হাজার ৩১১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) অ্যাডভোকেট খলিলুর রহমান পেয়েছেন ১৮ হাজার ৭৪৩ ভোট। 

অষ্টগ্রাম উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী শহিদুল ইসলাম জেমস ২৪ হাজার ৪৩৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) মোস্তাক আহমেদ কমল মিয়া পেয়েছেন ২১ হাজার ২৮৩ ভোট। 

কুলিয়ারচর উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইয়াছির মিয়া ৪০ হাজার ৯৯৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র)  আব্দুস সাত্তার পেয়েছেন ২ হাজার ৮৩৪ ভোট। 

ভৈরব উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী সায়দুল্লাহ মিয়া ৫৮ হাজার ৪৫৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) আবুল মনসুর পেয়েছেন ৩০ হাজার ১৭৯ ভোট।
 
কিশোরগঞ্জের ১৩টি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কটিয়াদী উপজেলার সবকটি কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। বাকি ১২টি উপজেলার মধ্যে মিঠামইনে আওয়ামী লীগের আছিয়া আলম বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া বাজিতপুর উপজেলায় ছয়টি কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত থাকায় ফলাফল ঘোষণা করা হয়নি। 

বাংলাদেশ সময়: ০২২৫ ঘণ্টা, মার্চ ২৫, ২০১৯
এসএইচ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: উপজেলা পরিষদ নির্বাচন
শিক্ষাখাতে বরাদ্দ বৃদ্ধিতে কাজ করছে সরকার
গাজীপু‌রে ভবন থে‌কে নারীর গলাকাটা মর‌দেহ উদ্ধার
‘মানবিকতা না থাকলে সেই বিজ্ঞানের প্রয়োজন নেই’
ফুপু হামিদা খানমের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
স্প্যানিশ সুপার কাপের ৬ মৌসুম সৌদি আরবে


মহালছড়িতে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার
প্রথম প্রান্তিকে বেড়েছে গ্রামীণফোনের রাজস্ব ও গ্রাহক 
মান্দায় বিষপানে দেড় বছরের শিশুর মৃত্যু
লাউয়াছড়া থেকে নবজাতক উদ্ধার
প্রেসক্রিপশন ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রি বন্ধে রিট