দিনাজপুরে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

walton

দিনাজপুর: পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দিনাজপুরে চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চার, আওয়ামী লীগ চার, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চার ও জাতীয় পার্টি একটি উপজেলায় বিজয়ী হয়েছে। 

php glass

সোমবার (১৮ মার্চ) রাতে বেসরকারি এ ফলাফল ঘোষণা করেন জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মাহমুদ হাসান। 

রিটার্নিং কার্যালয়ের তথ্য মতে, বিরল উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী একেএম মোস্তাফিজুর রহমান (নৌকা) প্রতীক নিয়ে ৫২ হাজার ৫১৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রার্থী জাতীয় পার্টির প্রার্থী (লাঙ্গল) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১২ হাজার ৯৬২ ভোট।  

বোচাগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মো. জুলফিকার হোসেন (লাঙ্গল) প্রতীক নিয়ে ৩০ হাজার ৬৮৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. আফসার আলী (নৌকা) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২৬ হাজার ৬২৩ ভোট। 

কাহারোল উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল মালেক সরকার (মোটরসাইকেল) প্রতীক নিয়ে ২৬ হাজার ২১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রার্থী আওয়ামী লীগের একেএম ফারুক (নৌকা) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২৪ হাজার ৪৩০ ভোট। 

বীরগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. আমিনুল ইসলাম (নৌকা)  প্রতীক নিয়ে ২৮ হাজার ৩৪৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী দীনেশ চন্দ্র মোহন্ত পেয়েছেন ২৭ হাজার ৫৮৭ ভোট। 

খানসামা উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. আবু হাতেম (মোটরসাইকেল) প্রতীক নিয়ে ২৯ হাজার ৪৫৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী সফিউল আযম চৌধুরী (নৌকা) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২৫ হাজার ৪ ভোট। 

চিরিরবন্দর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. তারিকুল ইসলাম তারিক (আনারস) প্রতীক নিয়ে ৮৩ হাজার ৮৩৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. আহসানুল হক (নৌকা) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২৬ হাজার ৮২৫ ভোট। 

ফুলবাড়ী উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আতাউর রহমান মিল্টন (নৌকা) প্রতীক নিয়ে ৩৫ হাজার ১৩৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সুদর্শন (আনারস) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৩ হাজার ৩৮৫ ভোট। 

বিরামপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. খায়রুল আলম ৩৭ হাজার ৫২১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী পারভেজ কবির (নৌকা) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৫ হাজার ৬৭১ ভোট। 

নবাবগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. আতাউর রহমান ৪৭ হাজার ১৫৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হাফিজুর রহমান (মোটরসাইকেল) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২০ হাজার ১৫০ ভোট। 

এর আগে আওয়ামী লীগের চার প্রার্থী দিনাজপুর সদর উপজেলায় মো. ইমদাদ সরকার, পার্বতীপুর উপজেলায় হাফিজুল ইসলাম প্রামাণিক, ঘোড়াঘাট উপজেলায় রাফে খন্দকার শাহেন শাহ ও হাকিমপুর উপজেলায় মো. হারুনুর রশিদ বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। 

বাংলাদেশ সময়: ০৬০৬ ঘণ্টা, মার্চ ১৯, ২০১৯
টিএম/আরবি/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: দিনাজপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন
দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি
ট্রেনের টিকিট পেয়ে জয়ের হাসি
ছোটপর্দায় আজকের খেলা
লালমনিরহাটে মাদকসহ দুই কারারক্ষী আটক
বাণিজ্য বাড়াতে বাংলাদেশ-চেক প্রজাতন্ত্রের মধ্যে চুক্তি


টিকিটের আশায় ঘুমিয়েই রাত পার তাদের 
মায়ের কবরের পাশে চিরশায়িত হবেন খালিদ হোসেন
জয় উদযাপনে বিজেপির লাড্ডু কেক
ভারতে চলছে নির্বাচনের ভোট গণনা
ট্রেনের টিকিট কেনায় ভোগান্তি কমেছে