কুড়িগ্রামে ৮ উপজেলায় আ’লীগ ৫, বিদ্রোহী ২

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

walton

কুড়িগ্রাম: কুড়িগ্রামে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আটটি উপজেলার মধ্যে পাঁচটিতে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী এবং দু’টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছে। রৌমারী উপজেলায় একটি কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত থাকায় ফলাফল ঘোষণা করা হয়নি।

php glass

রোববার (১০ মার্চ) রাতে কুড়িগ্রাম জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম রাকিব বেসরকারিভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আমান উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু নৌকা প্রতীকে ৩৪ হাজার ৪০০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী সাইদুল হাসান দুলাল আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৮ হাজার ১৪৯ ভোট। এ উপজেলায় চারটি স্থগিত কেন্দ্রে ভোট সংখ্যা ১১ হাজার ৭৮২টি। 

ভুরুঙ্গামারীতে আওয়ামী লীগের নুরন্নবী চৌধুরী খোকন নৌকা প্রতীক নিয়ে ৬৪ হাজার ৬১৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জাকের পার্টির আব্দুল হাই মাস্টার গোলাপফুল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৯ হাজার ৩৭১ ভোট।

নাগেশ্বরীতে আওয়ামী লীগের মোস্তফা জামান নৌকা প্রতীক নিয়ে ৪১ হাজার ৯৮০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির মহিবুল হক খন্দকার লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৩ হাজার ৭৫ ভোট।

রাজারহাট উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী জাহিদ সোহরাওয়ার্দ্দী বাপ্পী মোটরসাইকেল প্রতীক ৪৬ হাজার ৬৬৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবু নুর মো. আক্তারুজ্জামান নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২৬ হাজার ৮৮ ভোট।

উলিপুরে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গোলাম হোসেন মন্টু নৌকা প্রতীকে ৫৫ হাজার ৯২১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী সাজাদুর রহমান তালুকদার সাজু আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ২২ হাজার ৩৪২ ভোট। এ উপজেলায় চারটি কেন্দ্র স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। স্থগিত কেন্দ্রগুলোতে ৯ হাজার ৯৭২ ভোট রয়েছে।

চিলমারীতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শওকত আলী সরকার নৌকা প্রতীক নিয়ে ৩৬ হাজার ৩৭১ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির জোবাইদুল ইসলাম বাদল লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪ হাজার ৪৫৪ ভোট।

রাজিবপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী আকবর হোসেন হিরু আনারস প্রতীক নিয়ে ২০ হাজার ৪৯১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শফিউল আলম নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৪ হাজার ৬৬২ ভোট।

রৌমারী উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী শেখ আব্দুল্লাহ মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে ২১ হাজার ৫৩৯ ভোট পেয়েছেন। আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মজিবর রহমান বঙ্গবাসী পেয়েছেন ১৮ হাজার ৬৩৯ ভোট। এ উপজেলায় একটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত থাকায় ফলাফল ঘোষণা করা হয়নি। স্থগিত কেন্দ্রে মোট ভোট সংখ্যা ২ হাজার ৪০০।

বাংলাদেশ সময়: ০৩৫৩ ঘণ্টা, মার্চ ১০, ২০১৯
এফইএস/জিপি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: কুড়িগ্রাম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন
প্রশিক্ষণ পাল্টে দিচ্ছে হিজড়াদের জীবন
যে ১২ ট্রেনের টিকিট মিলছে কমলাপুরে
ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু
ছোটপর্দায় আজকের খেলা
অ্যাপসে রেলের টিকিট সাড়ে ১৩ হাজার, ‘মিলছে না একটিও’


দিনাজপুরের সুস্বাদু লিচু এখন বাজারে
অপেক্ষার পালা শেষ, কমলাপুরে টিকিট বিক্রি শুরু
গাংনীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
নেই চিরচেনা রূপ, তবুও কমলাপুরে রাত জেগে টিকিটের অপেক্ষা
ময়লা ফেলায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা