বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ার‌ম্যান হচ্ছেন কসবা-আখাউড়ায়

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কাওসার ভূঁইয়া জীবন ও আবুল কাশেম ভূঁইয়া

walton

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা ও আখাউড়ায় আওয়ামী লীগ মনোনীত দুই প্রার্থী রাশেদুল কাওসার ভূঁইয়া জীবন ও আবুল কাশেম ভূঁইয়া বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।

php glass

বুধবার (৬ মার্চ) বিকেল পর্যন্ত যাচাই-বাছাইয়ে কসবা উপজেলায় ইসলামী ঐক্যজোটের প্রার্থী শাহীনুল হকের মনোনয়ন বাদ পড়ে। প্রস্তাবক ও সমর্থকের স্বাক্ষর জাল করে দেওয়ার অভিযোগে তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।

তবে শাহীনুল জানিয়েছেন, ব্যক্তিগত সমস্যায় তিনি নিজেই মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

কসবায় শুধু আওয়ামী লীগের প্রার্থী রাশেদুল কাওসার ভূঁইয়া জীবন মনোনয়ন দাখিল করেন। তিনি আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হকের একান্ত ব্যক্তিগত সহকারী। আর পুরুষ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে এ উপজেলায় একজন করেই মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

অন্যদিকে আখাউড়ায় আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ বোরহান উদ্দিন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিতে গেলে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে থেকে তার মনোনয়ন ছিনতাই করে নেওয়া হয়। ফলে সেখানে মনোনয়নপত্র জমা পড়ে কেবল আবুল কাশেম ভূঁইয়ার। মনোনয়ন ছিনতাইয়ের জন্য অবশ্য শেখ বোরহান আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী কাশেম ভূঁইয়া ও স্থানীয় মেয়র তাকজিল খলিফা কাজলের লোকজনকে দায়ী করেন। এ নিয়ে তিনি সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করলেও তা রাখেননি ওই কর্মকর্তা।

তবে এ উপজেলায় পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ছয়জন আর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে চারজন মনোনয়নপত্র জমা দেন। তাদের মধ্যে বাছাইয়ে পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হোসেন মিয়া, ছগির আহমেদ, ফখরুল ইসলাম খান ও আবদূন নূরের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়। দু’জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী জাকিয়া সুলতানা ও সাথীর মনোনয়নপত্রও বাতিল হয়েছে।

এছাড়া বাছাইয়ে সরাইলে চেয়ারম্যান প্রার্থী মুখলেছুর রহমান এবং ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ আবুল কালামের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়। চেয়ারম্যান পদে বাকি ছয় প্রার্থী, পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে পাঁচজন আর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন জমাদানকারী ছয় জনেরই মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে।

আশুগঞ্জ উপজেলায় দুই মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ফেরদৌসি জাহান ও মোফেদা বেগমের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। দুই চেয়ারম্যান এবং সাত পুরুষ ও পাঁচ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ ঘোষিত হয়।

নবীনগরের সব প্রার্থীর মনোনয়নও বৈধ হয়েছে। এখানে চেয়ারম্যান পদে তিনজন, পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান ছয়জন আর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে পাঁচজন মনোনয়নপত্র জমা দেন।

নাসিরনগরে মনোনয়ন জমাদানকারী তিনজন চেয়ারম্যান, পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান তিনজন আর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান দু’জনের মনোনয়নপত্রও বৈধ হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার সব প্রার্থীর মনোনয়নও বৈধ হয়েছে। এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে পাঁচজন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে দু’জন এবং পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে পাঁচজন মনোনয়নপত্র জমা দেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৭ উপজেলা নাসিরনগর, সরাইল, আশুগঞ্জ, কসবা, আখাউড়া, নবীনগর এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরে আগামী ৩১ মার্চ ভোটগ্রহণ। এসব উপজেলায় প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য চেয়ারম্যান পদে ২৩ জন এবং পুরুষ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোট ৬১ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৫ ঘণ্টা, মার্চ ০৬, ২০১৯
জিপি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: নির্বাচন ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রশিক্ষণ পাল্টে দিচ্ছে হিজড়াদের জীবন
যে ১২ ট্রেনের টিকিট মিলছে কমলাপুরে
ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু
ছোটপর্দায় আজকের খেলা
অ্যাপসে রেলের টিকিট সাড়ে ১৩ হাজার, ‘মিলছে না একটিও’


দিনাজপুরের সুস্বাদু লিচু এখন বাজারে
অপেক্ষার পালা শেষ, কমলাপুরে টিকিট বিক্রি শুরু
গাংনীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
নেই চিরচেনা রূপ, তবুও কমলাপুরে রাত জেগে টিকিটের অপেক্ষা
ময়লা ফেলায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা