নিউইয়র্কে পত্রিকা বিক্রি করে শাহীনের বাৎসরিক আয় ২৫ লাখ

মাহমুদ এইচ খান, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

এম এ শাহীন। ফাইল ফটো

walton

মৌলভীবাজার: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার-২ (কুলাউড়া) আসনে মহাজোটের প্রার্থী বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য এম এম শাহীন। আমেরিকার নিউইয়র্ক শহরে পত্রিকা বিক্রি করে বছরে ২৫ লাখ টাকা আয় করেন তিনি। 

সেখানে ‘ঠিকানা’ নামে একটি সাপ্তাহিক পত্রিকা প্রকাশ করেন তিনি। তার পাঠক সংখ্যা বাঙালি কমিউনিটির মধ্যেই সীমাবদ্ধ। একাদশ জাতীয় সংসদ নিবার্চনে শাহীনের দাখিল করা হলফনামা থেকে এ তথ্য জানা যায়। 

মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে সদ্য বিএনপি ছেড়ে বিকল্পধারায় যোগদানকারী এম এম শাহীনের হলফনামা থেকে আরও জানা যায়, ১২.৮৩ বিঘা জমিতে কৃষিকাজ করে যৌথ আয়ে তার পরিবারের খরচ চালানো হয়। তবে টাকার পরিমাণ উল্লেখ করেননি তিনি। শাহীন বিভিন্ন সময়ে জার্মানে গিয়ে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের কথা বলে এলেও হলফনামায় শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি উল্লেখ করেছেন। পেশা হিসেবে উল্লেখ করেছেন, নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক ‘ঠিকানা’ পত্রিকার প্রকাশনা ও বিক্রি।

হলফনামা অনুযায়ী, এম এম শাহীনের কাছে নগদ টাকা রয়েছে চার লাখ পাঁচ হাজার ৩৫৪ টাকা। তার মোট অস্থাবর সম্পদের মূল্য ১৪ লাখ ৩১ হাজার ৫৪৪ টাকা। তার স্ত্রীর নামে আছে ৫০ তোলা স্বর্ণ, যার মূল্য ২০ লাখ টাকা। ২০০৮ এর হলফনামায় ৫০ তোলা স্বর্ণ তার নিজের নামে ছিল। আট লাখ টাকার একটি গাড়ি রয়েছে তার ওপর নির্ভরশীলের নামে। তবে সে কে তা উল্লেখ করেননি তিনি। স্থাবর সম্পদ হিসেবে দেখিয়েছেন এক কোটি ৩০ লাখ টাকা। যা জমি বিক্রির বায়না থেকে এসেছে বলে উল্লেখ করেছেন। এর পাশাপাশি যৌথ মালিকানায় এক কোটি ১০ লাখ টাকা উল্লেখ করেছেন। 

এ বিষয়ে এম এম শাহীন বাংলানিউজকে বলেন, আমার হলফনামায় যা উল্লেখ করা হয়েছে তাই সত্য। এখানে সন্দেহের কিছু নেই।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৮
এসআই

Nagad
শেষ শ্রদ্ধা শেষে সিমেট্রিতে এন্ড্রু কিশোরের কফিন
বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি: ময়ূরের দুই ইঞ্জিন ড্রাইভার গ্রেফতার
স্বাস্থ্য সংকট হ্রাসে ‘ডাটা বিপ্লব’
এন্ড্রু কিশোরের শেষ যাত্রায় জায়েদ খান
মাশরাফির ছোট ভাই সেজারেরও করোনা নেগেটিভ


খনন হবে সাঙ্গু-চাঁদখালী নদী, সোনাইছড়ি বেড়িবাঁধে সংস্কার
র‍্যাঙ্কিংয়েও বড় লাফ হোল্ডারের
সাহেদের যত প্রতারণা
ইউআইটিএস ও গুলশান ক্লিনিকের মধ্যে সমঝোতা স্মারক
সিরাজগঞ্জে বেড়েই চলেছে যমুনার পানি, প্লাবিত নতুন এলাকা