php glass

বরিশালে উৎসবমুখর পরিবেশে প্রতীক বরাদ্দ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নির্বাচনী প্রতীক পাওয়ার পর প্রার্থীদের উল্লাস। ছবি: বাংলানিউজ

walton

বরিশাল: বরিশাল সিটি নির্বাচনের প্রার্থীদের মধ্যে উৎসবমুখর পরিবেশে চলছে প্রতীক বরাদ্দ।

মঙ্গলবার (১০ জুলাই) সকাল থেকে নগরের কাশিপুর এলাকায় আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে এ প্রতীক বরাদ্দের কার্যক্রম শুরু হয়। চলবে বিকেল পর্যন্ত।

সকাল থেকে নির্ধারিত সময়ে বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলরদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেন নির্বাচন কমিশন।

দুপুর ১২টার দিকে মেয়র প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে বলে বিষয়টি বাংলানিউজকে নিশ্চিত করেন সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মুজিবুর রহমান।

রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ছয়জন মেয়র প্রার্থীর মধ্যে দলীয় নৌকা প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ, ধানের শীষ প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন বিএনপি প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার, লাঙল প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন জাতীয়পার্টির ইকবাল হোসেন তাপস, ইসলামী আন্দোলনের হাতপাখা প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন তাদের সমর্থিত মেয়র প্রার্থী ওবাইদুর রহমান মাহবুব, মই প্রতীক পেয়েছেন বাসদের মেয়র প্রার্থী মনীষা চক্রবর্তী ও কাস্তে প্রতীক পেয়েছেন সিপিবির প্রার্থী একে আজাদ।

বরিশাল জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সিটি নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা হেলাল উদ্দিন খান বাংলানিউজকে জানান, যাচাই-বাছাই, প্রত্যাহার কার্যক্রম শেষে বিসিসির নির্বাচনে মেয়র-৬ জন, সাধারণ কাউন্সিলর-৯৪ জন, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ৩৫ জন প্রার্থী রয়েছেন। এদের মধ্যে ১৫,১৬,১৯ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজন ও সংরক্ষিত ৪ নম্বর ওয়ার্ডে ১ জন প্রার্থী এককভাবে রয়েছেন। যাদের বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হবে। এর বাইরে সব প্রার্থীকে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে। এরমধ্যে সাধারণ আসনের কাউন্সিলরা ১২টি ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলরদের জন্য ১০টি সংরক্ষিত প্রতীক রয়েছেন।

তিনি বলেন, প্রতীক পাওয়ার পর প্রার্থীরা নির্বাচনী বিধি-নিষেধ মেনে প্রচার-প্রচারণা চালাতে পারবেন।

প্রতীক বরাদ্দ পেয়ে বিএনপির প্রার্থী মজিবর রহমান সরওয়ার, জাতীয়পার্টির প্রার্থী ইকবাল হোসেন তাপস ও ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী ওবাইদুর রহমান মাহবুব নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হওয়া নিয়ে শঙ্কার কথা জানিয়েছেন। পাশাপাশি তারা সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন সরকারের প্রতি।

এদিকে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে বিএনপির প্রার্থী মজিবর রহমান সরওয়ার ও ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী ওবায়দুর রহমান মাহবুব বিজীয় হওয়ার আশাবাদও ব্যক্ত করেন।

অপরদিকে ক্ষমতাসীনরা ইতোমধ্যে শ্রমিক নেতাদের বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন বাসদের প্রার্থী ডা. মনীষা চক্রবর্তী।

আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পক্ষে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল বলেন, বরিশাল সিটি নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু  ও নিরপেক্ষ এবং পুরো নির্বাচনী কার্যক্রম উৎসবমুখর পরিবেশেই হবে। এরমধ্য দিয়ে বরিশাল জনগণ তরুণ নেতৃত্ব আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করবেন।

আগামী ৩০ জুলাই নির্বাচনে ৩০টি ওয়ার্ডের ১২৩ কেন্দ্রে ২ লাখ ৪২ হাজার ১৬৬ জন ভোটার বেছে নেবেন তাদের প্রার্থীদের।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০৩ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০১৮
এমএস/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: বরিশাল সিটি নির্বাচন
বাড়ি গিয়ে শ্রেষ্ঠ সন্তানদের সম্মাননা জানালেন ডিসি
বন্ধুকে বেঁধে রেখে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ, আটক ৩
ছয় দফা দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল
জাকের পার্টিতে নারী নেতৃত্ব ৩৩.৩৩ শতাংশ
কেরানীগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আরও ৩ জনের মৃত্যু


ঘোষণাপত্রে ‘জয় বাংলা’ না থাকলে নিবন্ধন বাতিল হওয়া উচিত
নারায়ণগঞ্জে ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তার গ্রেফতার 
খুলনায় যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে নিহত ১
সুন্দরবন পরিদর্শনে জাতিসংঘ যৌথ মিশনের প্রতিনিধি দল
মানবাধিকার দিবসে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন