ইসির সঙ্গে সংলাপে ১৭ প্রতিনিধি পাঠাচ্ছে বিএনপি

ইকরাম-উদ দৌলা, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিএনপির লোগো

walton

ঢাকা: অবশেষে নানা গুঞ্জনের পর নির্বাচন কমিশন (ইসি) আয়োজিত সংলাপে বিএনপির অংশগ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত হল। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে ১৭ সদস্যের প্রতিনিধি দল সংলাপে অংশ নেবে।

php glass

বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইসির জনসংযোগ পরিচালক এসএম আসাদুজ্জামান। তিনি বলেন, ওই প্রতিনিধি দলে বিএনপি শীর্ষস্থানীয় মুখপাত্রের সকলেই আছেন।

গত কয়েকদিন ধরেই বিভিন্ন মহলে আলোচনা চলছিলো নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপে বিএনপি বসবে কিনা। তবে এই আলোচনায় শনিবার (১৪ অক্টোবর) সকালে পানি ঢেলে দেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা। তিনি সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম পরিদর্শন করতে গিয়ে বিএনপি সংলাপ ও নির্বাচনে আসবে বলে জোর আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
 

এদিকে এই বক্তব্যের রেশ কাটতে না কাটতেই জানাগেলো, দলটির ১৭ সদস্যের একটি তালিকা দিয়ে সংলাপে অংশ নেবে বলে ইসিকে জানিয়েছে।
 

১৫ অক্টোবর বেলা ১১টায় বিএনপিকে  সংলাপে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ আগেই চিঠি দিয়েছিলেন।
 

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আইন সংস্কার, সংসদীয় আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণ, ভোটার তালিকা হালনাগাদসহ নানা বিষয়ে অংশীজনদের সঙ্গে সংলাপ করছে নির্বাচন কমিশন।
 

গত ৩১ জুলাই সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এবং ১৬ ও ১৭ আগস্ট গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের সঙ্গে সংলাপে বসেছিল ইসি। এরপর গত ২৪ আগস্ট থেকে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ শুরু করে নির্বাচন কমিশন।

 

সংলাপে আসা এ পর্যন্ত সুপারিশগুলোর মধ্যে সারাদেশে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন, সেনা মোতায়েন, বর্তমান সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী দলগুলোকে নিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন, প্রতি ভোটকেন্দ্রে সিসি টিভি/ক্যামেরা স্থাপন,নবম সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী দলগুলোকে নিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন, দশম সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী দলগুলোকে নিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন, ‘না ভোট’ প্রবর্তন, প্রবাসে ভোটারধিকার প্রয়োগ,জাতীয় পরিষদ গঠন, নির্বাচনকালীন অস্থায়ী সরকার গঠন, নির্দলীয় নির্বাচনকালীন সরকার, নির্বাচনের সময় সংসদ ভেঙ্গে দেওয়া, রাজনৈতিক মামলা প্রত্যাহার, নির্বাচনকালীন সময়ে ইসির অধীনে জনপ্রশাসন ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা, দলের নির্বাহী কমিটিতে বাধ্যতামূলকভাবে ৩৩ শতাংশ নারী সদস্য রাখান বিধান তুলে নেওয়া অন্যতম।

 

আগামী ১৯ অক্টোবর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের (নৌকা) সঙ্গে বসবে নির্বাচন আয়োজনকারী এই সংস্থাটি।

 

এবারের সংলাপ শেষ হচ্ছে আগামী ২৪ অক্টোবর। এক্ষেত্রে ২২ অক্টোবর নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের সঙ্গে, ২৩ অক্টোবর নারী নেত্রীদের সংলাপে বসছে নির্বাচন কমিশন।

**সংলাপে ও নির্বাচনে বিএনপি আসবে, সিইসির আশাবাদ

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৯ অক্টোবর ১৪, ২০১৭/আপডেট ১৬৪৮
ইইউডি/বিএস 

ভারতে ভোট গণনায় কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা
অস্ত্রসহ গ্রেফতার ছিনতাইকারী
মানুষের মৃত্যুর প্রহর গুনেন তারা
অসহ্য গরমের পর স্বস্তির বৃষ্টি চট্টগ্রামে
পাইকারিতে আড়াই টাকার লেবু খুচরা পর্যায়ে ১০ টাকা


মার্কেটে মার্কেটে পুলিশের সেবা বুথ
ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে লক্ষ্য সুনির্দিষ্ট: পলক
২৫০ রোগীর বিপরীতে ১ জন চিকিৎসক
বগুড়া-৬ উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছেন না খালেদা জিয়া
খিলগাঁয়ে কাভার্ড ভ্যানচাপায় শিক্ষার্থীর মৃত্যু