php glass

কোদাল-হুক্কা নিয়ে বুধবার বসছে নির্বাচন কমিশন  

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ইসি লোগো

walton

ঢাকা: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে ধারাবাহিকভাবে সংলাপে বসছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তারই ধারাবাহিকতায় বুধবার (৩০ আগস্ট) বাংলাদেশ বিল্পবী ওয়ার্কার্স পার্টি (কোদাল প্রতীক) এবং জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির- জাগপার (হুক্কা প্রতীক) সঙ্গে সংলাপে বসবে সংস্থাটি।

ইসির জনসংযোগ পরিচালক এসএম আসাদুজ্জামান বাংলানিউজকে জানান, নিবন্ধিত ৪০টি দলের মধ্যে ইতিমধ্যে ২০ দলের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। এরমধ্যে তিনটি দলের সঙ্গে সংলাপ অনুষ্ঠিতও হয়েছে। ৩০ আগস্ট বেলা ১১টায় বাংলাদেশ বিল্পবী ওয়ার্কার্স পার্টি এবং বিকেল ৩টায় জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা)  সঙ্গে সংলাপ অনুষ্ঠিত হবে।
 
অন্যদিকে ঈদের পর ১০ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট (মোমবাতি), বিকেল ৩টায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ (হাতপাখা), ১২ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস (রিকশা),বিকেল ৩টায় ইসলামী ঐক্যজোট (মিনার) এবং ১৪ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি (হাতঘড়ি) এবং বিকেল ৩টায় ইসলামী ফ্রন্ট বাংলাদেশ (চেয়ার) এর সঙ্গে সংলাপে বসবে নির্বাচন কমিশন।
 
এছাড়া ১৭ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় ঐক্যবদ্ধ নাগরিক আন্দোলন (চাবি), বিকেল ৩টায় বাংলাদেশ জাতীয় পার্টিকে (কাঁঠাল) ডেকেছে নির্বাচন কমিশন। ১৮ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ (গাভী), বিকেল ৩টায় প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দল-পিডিপিকে (বাঘ) সময় দিয়েছে সংস্থাটি। ২০ সেপ্টেম্বর বেলা ১১ টায় গণফ্রন্ট (মাছ), বিকেল ৩টায় গণফোরাম (উদীয়মান সূর্য) এবং ২১ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ (খেজুর গাছ) এবং বিকেল ৩টায় ন্যাশনাল পিপলস পার্টিকে-এনপিপিকে (আম) ডেকেছে নির্বাচন কমিশন।
 
গত ৩১ জুলাই সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এবং ১৬ ও ১৭ আগস্ট গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের সঙ্গে সংলাপে বসেছিলো ইসি। এরপর গত ২৪ আগস্ট থেকে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ শুরু করে নির্বাচন কমিশন। ওইদিন বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) ও বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট (মুক্তিজোট) এর সঙ্গে সংলাপ করার সময়সূচি ছিলো। কিন্তু বন্যায় ত্রাণ দেওয়ার কথা বলে সংলাপে আসেনি বিএনএফ।
 
২৮ আগস্ট (সোমবার) সকালে বাংলাদেশ মুসলিম লীগ-বিএমএল ও বিকেলে খেলাফত মজলিশের সঙ্গে সংলাপ করে ইসি।
 
সংলাপে এ পর্যন্ত কয়েক ডজন সুপারিশ এসেছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে- সেনা মোতায়েন, না ভোটের প্রবর্তন, প্রবাসে ভোটারধিকার প্রয়োগ, জাতীয় পরিষদ গঠন, নির্বাচনের সময় সংসদ ভেঙ্গে দেওয়া, রাজনৈতিক মামলা প্রত্যাহার ও নির্বাচনকালীন সময়ে ইসির অধীনে জনপ্রশাসন ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওপর নিয়ন্ত্রণ ইত্যাদি।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৮ ঘণ্টা, আগস্ট ২৯, ২০১৭
ইইউডি/বিএস 
 

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: নির্বাচন কমিশন
বশেমুরবিপ্রবিতে আক্কাস আলীর বিরুদ্ধে পুনঃতদন্ত কমিটি গঠন
সোনারগাঁয়ে অস্ত্রসহ সন্ত্রাসী আটক
নোয়াখালীতে ২য় শ্রেণীর মাদ্রাসা ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ
আজ মানিকগঞ্জের তেরশ্রী গণহত্যা দিবস
ফরাসি কথাশিল্পী আঁদ্রে জিদ’র জন্ম


ভারতে পালানোর সময় আটক হন নির্যাতনকারীরা
শনিবার টোয়াবের কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন
ফাহাদ হত্যা: ২৬ জনকে আজীবন বহিষ্কার
কাপ্তাইয়ে সন্ত্রাসী হামলায় ১০ নির্মাণ শ্রমিক আহত
আড্ডার ছলে আলাপনে ফরিদ কবির