ঝুলে গেছে নম্বর পোর্টেবিলিটি চালুর উদ্যোগ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

দীর্ঘদিন ধরে ঝুলে আছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) নম্বর পোর্টেবিলিটি চালুর উদ্যোগ।

ঢাকা: দীর্ঘদিন ধরে ঝুলে আছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) নম্বর পোর্টেবিলিটি চালুর উদ্যোগ।

এ সংক্রান্ত একটি উদ্যোগ গাইডলাইন তৈরি পর্যায় এসে থমকে গেছে। অথচ উন্নত বিশ্বে অনেক আগেই চালু হয়েছে নম্বর পোর্টেবিলিটি।

পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে নম্বর পোর্টেবিলিটি চালু হয়েছে।

বিটিআরসি গ্রাহক সেবার মানোন্নয়নের লক্ষ্যে গ্রাহকের ফোন নম্বর অপরিবর্তিত রাখার নীতিমালা প্রণয়ন কাজ শুরু করেছিল ২০০৮ সালে।

নম্বর পোর্টেবিলিটি চালু হলে নির্দিষ্ট একটি অপারেটরের একজন গ্রাহক অন্য অপারেটরের সংযোগ ব্যবহার করলেও তার নম্বর অপরিবর্তিত থাকবে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এর ফলে বাজার ব্যবস্থায় প্রতিযোগিতার সৃষ্টি হবে, সেবার মান বাড়বে এবং গ্রাহক কোনও অপারেটরের সেবায় অসন্তুষ্ট হলে সে সংযোগ পরিবর্তন করতে পারবে। সেক্ষেত্রে তার ফোন নম্বর অপরিবর্তিত থাকবে।

এ বিষয়ে টেলিযোগাযোগ বিশেষজ্ঞ ও এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের (এআইডাব্লিউ) শিক্ষক ড. ফাহিম হোসাইন বাংলানিউজকে বলেন, নম্বর পোর্টেবিলিটি চালু করা খুবই জরুরি। মোবাইল ফোন কোম্পানিগুলোর পক্ষ থেকে এক্ষেত্রে খুব একটা সাড়া পাওয়া যাবে না। তাই সরকারকেই এক্ষেত্রে এগিয়ে আসতে হবে।

বর্তমানে অনেক গ্রাহক তার অপারেটরের প্রদি অসন্তুষ্ট হলেও নম্বর পরিবর্তন হবে বলে অন্য অপারেটরের মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারছেন না।

নম্বর পোর্টেবিলিটি বিষয়ক একটি গাইড লাইন পর্যন্তই সবকিছু আটকে আছে। এ সংক্রান্ত একটি নীতিমালা তৈরি না করা পর্যন্ত নম্বর পোর্টেবিলিটি চালু করা যাবে না।

বিটিআরসি সূত্রে জানা গেছে, পাকিস্তানে নম্বর পোর্টেবিলিটি চালু করে ভালো ফল পায়নি। ভারতেও এটি সঠিকভাবে কার্যকর করা যাচ্ছে না। এ অবস্থায় বাংলাদেশে নম্বর পোর্টেবিলিটি চালু করা টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন দ্বিধান্বিত।

তাই চিন্তা-ভাবনা না করে হুট করে এটি চালুর পক্ষপাতি নয় বিটিআরসি।

এ কারণেই ২০০৮ সালে এ সংক্রান্ত গাইডলাইন তৈরি কাজ শুরু হয়েও তা থেমে গেছে।

বিটিআরসি’র এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা প্রকাশ না করার শর্তে বাংলানিউজকে বলেন, নম্বর পোর্টেবিলিটি চালু করে সম্প্রতি তারা (পাকিস্তান) এটি বন্ধ করে দিয়েছে। এ বিষয়টিও বিটিআরসিকে ভাবাচ্ছে। তাই কোন পদ্ধতিতে এটি চালু করা হবে তা আগেভাগে ঠিক করেই, তবে এটি চালু করতে চায় বিটিআরসি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী চলতি বছরের ২০ জানুয়ারি নম্বর পোর্টেবিলিটি উদ্বোধন করেন।

শ্রীলঙ্কাতেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স ও  জাপানে এটি চালু হয় ২০০৩ সালে।

অস্ট্রেলিয়া এটি চালু করে ২০০১ সালে, জার্মানি ২০০২ সালে, ব্রাজিল ২০০৯ সালে।

এমনকি আফ্রিকা মহাদেশের কেনিয়ার মতো দেশেও চলতি বছরের ১ এপ্রিলে নম্বর পোর্টেবিলিটি চালু হয়েছে।

এই অঞ্চলে একমাত্র ব্যতিক্রম পাকিস্তান ও বাংলাদেশ। পাকিস্তান নিরাপত্তা হুমকি মনে করে সম্প্রতি নম্বর পোর্টেবিলিটি চালু করে ফের বন্ধ করে দিয়েছে।  

এ বিষয়ে টেলিযোগাযোগ বিশেষজ্ঞ ড. ফাহিম হোসাইন বলেন, সরকারি সবকিছুতেই জাতীয় নিরাপত্তার অজুহাত তোলা হয়। এটি করা উচিত নয়। কারণ নম্বর পোর্টেবিলিটি চালু হওয়া জরুরি একটি বিষয়। এতে গ্রাহকদের সুবিধা নিশ্চিত হবে। আর এটি কোনও রকেট সায়েন্স নয়। এটি চালু করার প্রকৌশল সক্ষমতা বিটিআরসির রয়েছে।  
 
বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৬, ২০১১

Nagad
বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত সাহারা খাতুন
রোববার থেকে বরিশালে ফ্লাইট চালাবে নভোএয়ার
সাহারা খাতুন ছিলেন একজন সংগ্রামী নেতা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
সাহারা খাতুনকে শেষ শ্রদ্ধা
রোয়াংছড়িতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নারী নিহত 


বৃষ্টিতে ভোগান্তি, বন্দরে সতর্কতা সংকেত
বনানী কবরস্থানে সাহারা খাতুনের দ্বিতীয় জানাজা
বান্দরবানের রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ আর নেই
রাজধানীর পথে-ঘাটে ভেজাল সুরক্ষা পণ্যের কারবার
বনানী কবরস্থানে সাহারা খাতুনের মরদেহ