সয়াবিনের বাজারে অস্থিরতা বাড়ছেই

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

দেশের বড় ব্যবসাকেন্দ্র চাক্তাই খাতুনগঞ্জের পাইকারি দোকানগুলোতে এখন সয়াবিনের মজুদ ফুরিয়ে আসছে, বাড়ছে অস্থিরতা। কয়েক সপ্তাহ ধরে টানা দাম বেড়েই চলেছে। খুচরা বাজারে খোলা সয়াবিন বোতল ও প্যাকেটজাত সয়াবিনের দামকেও ছাড়িয়ে যাচ্ছে।

চট্টগ্রাম: দেশের বড় ব্যবসাকেন্দ্র চাক্তাই খাতুনগঞ্জের পাইকারি দোকানগুলোতে এখন সয়াবিনের মজুদ ফুরিয়ে আসছে, বাড়ছে অস্থিরতা। কয়েক সপ্তাহ ধরে টানা দাম বেড়েই চলেছে। খুচরা বাজারে খোলা সয়াবিন বোতল ও প্যাকেটজাত সয়াবিনের দামকেও ছাড়িয়ে যাচ্ছে।

বৃহত্তর চট্টগ্রামে সয়াবিন তেলের পরিবেশক, পাইকারি, খুচরা বিক্রেতা ও সাধারণ ক্রেতাদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ছে নানা গুজব। কেউ বলছেন কৃত্রিম সংকট।

কেউ বলছেন ঠাণ্ডায় পাম অয়েল ও সুপার পাম বসে যায় তাই ভেজাল দিতে না পারায় দাম বাড়ছে। ভেজাল দিতে না পারার বিষয়টি উঠে এসেছে বৃহস্পতিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ৩০তম সভায়ও।  

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পাইকাররা বলেছেন মিল গেটে ট্রাকের জট হয়েছে, এসও (আগের ডিও) সরবরাহ কম।


বাংলানিউজের অনুসন্ধানে দেখা গেছে, এক মাসের ব্যবধানে খোলা সয়াবিনের দাম বেড়েছে মণপ্রতি ৭৫০ থেকে ১ হাজার টাকা।

সচেতন ব্যবসায়ী ও অভিজ্ঞমহলের মতে, এখনই সরকারি নজরদারি (মনিটরিং) ও যথাযথ উদ্যোগ না নিলে সয়াবিনের সংকট ভয়াবহ আকার ধারণ করবে।

১৭ ডিসেম্বর খাতুনগঞ্জে মোস্তফা গ্রুপের সয়াবিন চার হাজার ৫০০ টাকা, সিটি গ্রুপের সয়াবিন ৪ হাজার ৫৫০ টাকা, টিকে গ্রুপের সয়াবিন ৪ হাজার ২৬০ টাকা এবং এস আলম সয়াবিন ৪ হাজার ২৭০ টাকা, এসএ অয়েলের (মুসকান) সয়াবিন ৪ হাজার ২৫০ টাকা বিক্রি হয় পাইকারি বাজারে।

সর্বশেষ বৃহস্পতিবার খাতুনগঞ্জের বারদী স্টোরে নূরজাহান ব্রান্ডের খোলা সয়াবিন প্রতিমণ ৮ হাজার ৮৮০ টাকা, এস আলম সয়াবিন ৪ হাজার ৭৫০ টাকা বিক্রি হয়েছে।

কোনো ব্রান্ড ছাড়াই পাইকারদের ভাষায় ‘রেডি মাল’ খ্যাত সয়াবিন প্রতিমণ বিক্রি হচ্ছে সর্বনিম্ন ৪ হাজার ৭৫০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৫ হাজার টাকায়। সিটি গ্রুপের সয়াবিন প্রতিমণ ৫ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে।

এ ছাড়া অন্যান্য ব্রান্ডের সয়াবিন খাতুনগঞ্জে প্রায় নেই বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

খাতুনগঞ্জের বাদশা মার্কেটের পাইকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা প্রবীর সরকার বাংলানিউজকে জানান, সয়াবিনের বাজার ঊর্ধ্বমুখী। পাম ও সুপার পামের বাজার নিম্নমুখী। মিল থেকে পর্যাপ্ত সরবরাহ দেওয়া হলে দাম কমে আসবে।

তিনি বলেন, সারা বছরে সয়াবিনের চাহিদা ১৫-১৮ লাখ টন। হোটেল-রেস্তোরাঁয় পাম ও সুপার পামের চাহিদা আছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ব্যবসায়ী জানান, আর্জেন্টিনা থেকে সয়াবিনের ক্রুড (কাঁচামাল) আমদানি করলে আসতে সময় লাগে ৩ মাস। অবশ্য পাম ও সুপার পামের কাঁচামাল আসে মালয়েশিয়া থেকে, সময় লাগে ১৫ দিন। অতএব সয়াবিনের দামবৃদ্ধি রোধে সরকারকে জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।

চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন খুচরা বাজারে সয়াবিনের দাম নিয়ে এখন নৈরাজ্য চলছে। কোনও দোকানে ১৩০-১৩৫ টাকা। কোনো দোকানে আগের দামে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নগরীর কদম মোবারক এতিমখানা মার্কেটের শরিফ স্টোরে প্রতি কেজি খোলা সয়াবিন বিক্রি হয় ১৩৮ টাকা দরে। আর বোতলজাত সয়াবিন প্রতি লিটার ১৩০ টাকা দরে।

এর ১ কিলোমিটারের মধ্যে হেমসেন লেনের বিভিন্ন দোকানে রূপচাঁদা ব্রান্ডের প্রতিলিটার সয়াবিনের প্যাকেট ১২১ টাকা, তীর ব্রান্ডের ১ লিটারের বোতলজাত সয়াবিন ১২০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে একজন খুচরা বিক্রেতা বলেন, যাদের আগের কেনা তারা কম দামে বিক্রি করছে। আমরা বেশি দামে কিনে এনেছি তাই বেশি দামে বিক্রি করছি।

এদিকে, সয়াবিনের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধিতে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) চট্টগ্রাম শাখার সভাপতি নাজের হোসাইন।

তিনি বাংলানিউজকে বলেন, ব্যবসায়ীরা বলছেন ডলারের দাম বৃদ্ধির কথা। অবশ্য এটা ঠিক ইতিমধ্যে জ্বালানি তেল, ঘরভাড়া, সিএনজি ও বিদ্যুতের দাম বেড়েছে। কিন্তু ব্যবসায়ীরা কোনো অজুহাত পেলেই নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়িয়ে ফেলে।

সয়াবিনের দাম বৃদ্ধির ক্ষেত্রে সরকারের কোনও ইনিশিয়েটিভ দেখছি না। সরকারের দায়িত্বশীল লোকজনের এখন থেকেই মনিটরিং করা দরকার। পাশাপাশি বাজার স্থিতিশীল করার জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থাও নিতে হবে।


বাংলাদেশ সময়: ২২১৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২২, ২০১১

Nagad
করোনা: চট্টগ্রামে নতুন আক্রান্ত ১৯২ জন
সংকটে প্রকাশনা শিল্প, করোনায় ক্ষতি ৪শ’ কোটি
লালমনিরহাটে চাষ হচ্ছে ড্রাগন ফল
এরশাদ ট্রাস্টের চেয়ারম্যানের ইন্তেকাল
দেবে গেছে ২০০% বাড়তি ব্যয়ে নির্মিত রেলপথের কুশন ব্যালাস্ট


ঢেলে সাজানো হবে জাতীয় জাদুঘর
যশোরে রাসেল হত্যা মামলায় আরও দুই আসামি গ্রেফতার
মণিরামপুরে ট্রাক থেকে কাঠের গুঁড়ি পড়ে পথচারীর মৃত্যু
সুনামগঞ্জে ফের বন্যা পরিস্থিতির অবনতি
শ্রমিক নেতা হত্যার প্রতিবাদে সিলেট রাতভর মিছিল